ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

বঙ্গবীর বীর মুক্তিযোদ্ধা কাদের সিদ্দিকী যদি সরকারের দৃষ্টিতে রাজাকার হয় আর কর্ণেল অলি’র উপর যদি সরকার দলের এরকম বর্বর হামলা হয়, বিএনপি ও জামাত কে দমন-পীড়ন করে সরকার এর সাথে সম্পৃক্ত অন্যান্য সহযোগী জোট দলগুলো কতটুকু নিজেদের নিরাপদ মনে করতে পারে। আসলে দেয়ালে পিঠ ঠেকলে যা হয় আর কি ”একলা চল রে নীতি”! আজ সরকার জোট’রা সরকারের পাশ থেকে সরে দাঁড়ালে ছোট দলগুলোর কি অবস্থা হবে তা দেখতে আমি অপেক্ষা করব !

বিশ্বের অনেক দেশের রাষ্ট্র নায়কের পদত্যাগ এর দৃশ্য চোখে পড়লেও আমাদের দেশে এর নজির তেমন একটি নেই বললেই চলে। পদে যে আছে তার মেয়াদ শেষ হওয়ার আগ পর্যন- ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রশ্নই ওঠে না। সে দেশ পরিচালনায় ব্যর্থ হলেও তার কিছু যায়-আসে না। মুখ তো আছেই চাপা’র জোর যতটুকু চালানো যায় আর কি। দেশের ১৫ কোটি মানুষ বলে দেশ ও অর্থনৈতিক অবস্থা আজ ভাল নেই, আইন-শৃঙ্খলার চরম অবনতি, যাতায়াত ব্যবস্থার কথা বললে নিজেকে লজ্জ্বিত হতে হয়, পররাষ্ট্র কুটনীতি শূন্যের কোঠায়, রপ্তানীতে ব্যর্থ কিন’ সরকারী হাতে গোনা ডজন খানেক সংসদ সদস্য এমন অবস্থাতেও এসব ব্যর্থতা মানতে নারাজ। এমনকি প্রধানমন্ত্রী স্বয়ং নিজেও এগুলো মানে না। সব ঠিক-ঠাক আছে ও চলছে এবং চলবে। তবে কি দেশের ১৫ কোটি মানুষ মিথ্যা কথা বলছে?

২৪-১১-২০১১ তারিখের বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকায় একটি রিপোর্ট দেখলাম তাতে লেখা হয়েছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনি কুটনীতিক ব্যর্থ মন্ত্রী। তাহলে এ ৩ বছর সে যে শতবারের উপরে আকাশে আকাশে উড়ে বিভিন্ন দেশ-বিদেশ ভ্রমন করলো সেটার ফল কি শূণ্য নাকি সেটা নেহায়াত দেশের মানুষের টাকায় বিশ্বভ্রমনে ঘুরে আসা আর মার্কেটিং করা। আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রীও কোন অংশে কম নয়। তিনি তো অনেক ধাপ এগিয়েই আছেন। আমার মনে হয় বাংলাদেশ সরকার এ আসা রাষ্ট্র-নায়কদের মধ্যে সর্বোচ্চ বিদেশ যাত্রাতে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী রেকর্ড করেছেন। আসলে উনার জানা উচিত টাকা গুলো দেশের জনতার।