ক্যাটেগরিঃ পাঠাগার

এবারের বইমেলায় আমার লেখা দ্বিতীয় ভ্রমণ গল্পগুচ্ছ “মেঘ বালিকার দেশে” নিয়ে আসছে মহাকাল প্রকাশনী। স্টল নং-২২০-২২১, সোহরাওয়ার্দি উদ্যান, মঞ্চের পশ্চিমপাশ। বাংলা ভাষাভাষী ভ্রমণ বিষয়ক গ্রন্থের নারী লেখক তালিকায় নিজের নাম আবিষ্কার করে ভালো লাগছে।

ব্যস্ত জীবনে যখনি অবসর পাওয়া যায়; আমরা চাই দলবল নিয়ে বেড়িয়ে পড়তে, কখনো খুব নির্জন পাহাড়ের চূড়োয় বসে প্রিয় মানুষের হাতে হাত রেখে হারিয়ে যেতে ইচ্ছে করে। কখনোবা ইচ্ছেরা জলে ভেসে হেসে করে ডুবসাঁতার আবার কখনো গহীন অরণ্যে পালিয়ে বেড়ায়। ইচ্ছে আর স্বপ্নের এমন মেলবন্ধন রচনা করবে আমার– “মেঘ বালিকার দেশে”

খুব কম খরচে কতোটা ঘুরতে পারার আনন্দ নেওয়া যায় তাই স্পষ্ট করে বর্ণিত হয়েছে এই বইয়ের প্রত্যেকটি গল্পে। আছে দর্শনীয় স্থানে ছুটে যাবার সঠিক দিক নির্দেশনা, ভিন্ন জাতির সংস্কৃতি এবং তাদের খাবা্রের সাথে পরিচয় আপনাকে আরো সমৃদ্ধ করবে। তাই ঘরে বসেই মেঘ বালিকার সাথে ঘুরে আসুন দেশ ও বিদেশের দেখা-অদেখা নয়নাভিরাম জায়গাগুলো।

 

 

আমার লেখা অন্যান্য বই গুলো হচ্ছে-

কবিতা- ফাগুনঝরা রোদ্দুর (২০১০), ভাষাচিত্র প্রকাশনী

নিমগ্ন গোধূলি (২০১৬), অন্যধারা প্রকাশনী

পঞ্চপত্রের উপপাদ্য (২০১২), এক রঙ্গা এক ঘুড়ি প্রকাশনী

দ্বৈত কবিতার বই -নীলপদ্ম (২০১৫), যমুনা প্রকাশনী

 

গল্পগুচ্ছ- রোদ্দুরের গল্প (২০১৫), আলপনা প্রকাশনী

চলতি পথের গপ্পো (২০১৬), বিদ্যা প্রকাশ

ভ্রমণ গল্প– পিয়াইন নদীর স্রোতে (২০১৭), জয়তী প্রকাশনী

গল্পের পাশাপাশি বাংলা সিনেমা সমালোচনা করে থাকি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ইনিস্টিউটিউট পত্রিকাতে। এছাড়া ক্লাসিক ম্যাগাজিন, পর্যটন বিচিত্রা, ফুলকুড়ি পত্রিকা, অন্যধারা ম্যাগাজিন, জয়তী পত্রিকার সাথে লেখনীর মাধ্যমে যুক্ত আছি। আমার আরো লেখা পাওয়া যাবে প্রথম আলো ব্লগ, সামহোয়ার-ইন ব্লগ, বন্ধু ব্লগ এবং বাংলা মুভি ডাটাবেজ পেইজে।

আমি দীর্ঘ দিন সিটিজেন জার্নালিস্ট হিসেবে সর্ববৃহৎ বাংলা পোর্টাল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম এর সাথে আছি।

এবারো প্রাণের মেলাতে সকল ব্লগার-বন্ধুদের উপস্থিতি কামনা করছি।