ক্যাটেগরিঃ পাঠাগার

বই উৎসব হয়ে গেছে বছরের শুরুতেই। শেষ শীতের কুয়াশা উপেক্ষা করে ঝলমলে নতুন বইখাতা হাতে, স্কুল-ইউনিফর্মে শিশুদের পদচারণায় মুখরিত গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো। বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার প্রস্তুতি চলছে। এরই মধ্যে ছাত্র-ছাত্রীদের সরকারি বৃত্তির টাকাও অভিভাবকদের হাতে পৌঁছে গেছে। ।

এর মাঝেও ছন্দপতন ঘটে থাকে। মলিন দেখা যায় কারো কারো চেহারা। কারণ  এখনও স্কুল-ইউনিফর্ম আর নতুন খাতা-কলম হয়নি ওদের।

 

ঢাকা ছেড়ে চার বছর আগে গ্রামে বসবাস শুরু করি। তখন এমনই এই বাস্তবতার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন পিরোজপুরের স্বরূপকাঠী উপজেলার বলদিয়া ইউনিয়নের রাজাবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা খাদিজা আকতার।

তার কাছ থেকেই জানতে পারি, স্কুল-ইউনিফর্ম এবং খাতা-কলম না থাকার কারণে কয়েকজন শিশু বিদ্যালয়ে আসতেই সংকোচ বোধ করে।

সেই থেকে আমরা কয়েকজন প্রতিবছর এই বিদ্যালয়ের কয়েকজন ছাত্রছাত্রীদের জন্য স্কুল-ইউনিফর্ম এবং প্রয়োজনীয় খাতা-কলম দেওয়ার ব্যবস্থা করে আসছি। পরে এই উদ্যোগে যোগ দিয়ে ঢাকা থেকে নিয়মিত সহযোগিতা করছেন কবিতা চৌধুরী।

কিছুদিন আগে বলদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সেলিম হোসেন তার বিদ্যালয়ের কিছু ছাত্রছাত্রীকে স্কুল-ইউনিফর্ম দেওয়ার অনুরোধ জানালেন। আমরা আমাদের সাধ্য মতো চেষ্টা করেছি।

এরই মধ্যে সামাজিক সংগঠন ‘মানবতার আলাপন’ এর কথা জানতে পেরেছি। অন্যান্য অনেক মানবিক কাজের সাথে সাথে তারা গরীব ছাত্রছাত্রীদের স্কুল-ইউনিফর্মও তৈরি করে দিচ্ছে। আমরা তাদের এই উদ্যোগে সামিল হয়েছি। এবার ঢাকা থেকে আমাদের উদ্যোগে যোগ হয় সৈয়দ জাহাঙ্গীর।

 

এইসব ছোট উদ্যোগ বাস্তবায়নে অনেক অর্থের প্রয়োজন হয়না। তবে অনেক সদিচ্ছা থাকলে সরকারের দিকে তাকিয়ে না থেকে আমরা নিজেরাই  এমন ছোট ছোট সমস্যার সমাধান করে নিতে পারি।

মন্তব্য ০ পঠিত