ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

রাজনীতি আর ক্ষমতার ভাগাভাগি নিয়ে সারাদেশে চলমান সহিংসতা নিয়ে ভাবার অবকাশ নেই রাজধানীর বাইরের খেটে খাওয়া মানুষদের। দুবেলা দু’মুঠো অন্ন যোগাড় করতে যাদের মাথার ঘাম পায়ে ফেলতে হয়, তাদের কাছে রাজনীতি স্রেফ বিলাসিতার নাম। তবু সেই রাজনীতির সহিসংতায় বলি হতে হয় তাদের।

কোথায় তো দেখি না এযাবত এই মন্ত্রী কিংবা ঐ মন্ত্রীর সন্তান পেট্রোলবোমার আঘাতে হাসপাতালের বেডে যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে। এই খেটে খাওয়া মানুষগুলোর ভোটেই তাদের আলিসান বাড়ি, গাড়ি তবে কেন তারা নিজেদের স্বার্থের দ্বন্দে জ্বালিয়ে পুড়িয়ে মারছে নিরীহ মানুষগুলোকে। কেউ চিরকাল বেঁচে থাকে না কিংবা ক্ষমতাও চিরকাল থাকে না। অতীত ইতিহাস গুলো কি তারা ভুলে গেছে ? সৃষ্টিকর্তাও কিন্তু শোধরানোর একটা সময় দেয় আর সেই সময় অতিক্রম করলেই যতটুকু প্রাপ্য ঠিক ততটুকুই শাস্তি নির্ধারন করেন।

আমি বলছি না যে আপনাদের রাজনীতি করা এবং দেশের প্রতিনিধি হওয়ার প্রয়োজন নেই। আমি এতোটুই বলতে চেয়েছি স্বার্থের কারনে প্রতিহিংসার রাজনীতি বন্ধ করুন। রাজনীতিতে কোন দলই ভাল না। সবাই সবার স্বার্থ নিয়েই ব্যস্ত।

অথচ গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থায় জনগণকেই সব ক্ষমতার উৎস বলা হলেও তাদের অধিকার আদায়ের নামে যে আন্দোলন-কর্মসূচি, সেখানে বারবার উপেক্ষিত থেকে যায় সে সাধারণ মানুষদেরই মতামত। রাজধানীর বাইরের একটি গ্রাম। যেখানে মাঠে ফসল নিয়ে ব্যস্ত কৃষক, দিনমজুররা। কি হচ্ছে দেশের রাজনীতি আর সরকার ব্যবস্থায়, তাতে কতটা কি আসে যায় তাদের? এটা নিয়ে তো কেউ আন্দোলনে নামেনি।

বর্তমানে কেউ অন্ধ, কানা প্রতিবন্ধি নয় তারা বোঝেন, এই সব কর্মকাণ্ডে বারবার ক্ষতিগ্রস্ত হয় তাদের যাপিত জীবনের স্বাভাবিক ছন্দ।গ্রামের এই মানুষগুলো রাজনীতি অতোটা বোঝেন না। তারা বোঝেন দু’বেলা দু’মুঠো খাবার আর শান্তিতে দিনযাপনের বিষয়টি। সেটুকুর নিশ্চয়তা যখন পাওয়া যায় না তখন অসহায়ত্ব ছাড়া তাদের করার থাকে না কিছুই।

তবে কি এসব সাধারণ মানুষের ক্ষেত্রে এটাই সত্য রাজা যায় রাজা আসে, তবু ভাগ্যবিড়ম্বিতরা সৌভাগ্যের দেখা না পেয়ে হতাশই থেকে যান দিনের পর দিন। কেউ ভালো নয় সকল রসুনের গোয়া এক জায়গায় বলতে হয়। কেউ তো কারও কথা সহ্য করে না,  কেউ মানে না আইন, নিজের দলের গঠণতন্ত্রই মানে তবে কিভাবে মানবে দেশের সংবিধান।

তবু খেটে খাওয়া মানুষগুলোর অপেক্ষা রাজনীতির আকাশের কালো মেঘ দূর হয়ে উঁকি দেবে সোনালী সূর্য। আর এই অমিত আশাবাদই জাগিয়ে রাখে অপরাজেয় বাংলাদেশকে।