ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

আমি দীর্ঘ দিন যাবৎ কক্সবাজার এলাকায় আমার কর্মজীবনের শুরুতে এই রোহিঙ্গাদেরকে নিয়ে কাজ করেছি। আমি দেখেছি রাজনৈতিক ফায়দার লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক এবং আঞ্চলিক পর্যায়ে এরা কীভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। ফলে, এত বছরেও এর কোনো সমাধান তো দূরের কথা বরং নিত্য নূতন বাহানায় আরো বিষয়টাকে জটিল থেকে জটিলতর করা হচ্ছে। এটা একটি পরিকল্পিতভাবে তৈরী করা সমস্যা যার সমাধান কোনোদিনই হবেনা। রোহিঙ্গা নামে যারা এদেশে থেকে এখানকার সুবিধা ভোগ করছে, এমনকি এদের অধিকাংশই আঞ্চলিক রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডেও জড়িত ও তৎপর, যখন-তখন অবাধে সীমান্ত পার হয়ে যাতায়াত করছে; নিশ্চয়ই বিশেষ কোনো উদ্দেশ্যে বিশেষ কোনো মহলের ছত্রছায়ায় তাদের স্বার্থে ব্যবহৃত না হলে বছরের পর বছর এমনটি চলতে থাকবে কেনো? ধর্মের ধুয়ো তুলে অত্র এলাকার স্বল্প শিক্ষিত এবং অধিকাংশই অশিক্ষিত অধিবাসীদের ব্যবহার ক’রে রাজনীতির এ দাবা খেলা আর কতদিন চলবে? ঐসব রোহিঙ্গাদের অনেকেই অত্র এলাকায় স্থায়ী স্থাপনা ক’রে তাদের কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে যার প্রভাব এলাকার অধিবাসীদের উপরও পড়ছে; এমনকি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এরজন্য বাংলাদেশের ভাবমূর্তিও অনেকাংশে ক্ষুন্ন হয়েছে। এজন্য আমাদের দেশের রাজনৈতিক দলগুলোও কম দায়ী নয়। তারাও তাদের ফায়দা লুটে যাচ্ছে, অথচ দেশের যে কী ক্ষতি হচ্ছে সে ব্যাপারে এতটুকুও মাথাব্যথা নেই। অত্র এলাকার অধিবাসীরা একদিন যখন সব বুঝে একযোগে আন্দোলনে নামবে তখনই টনক নড়বে সবার। শুরু হবে আরেক সমস্যার, আর এভাবে সমস্যার আবর্তে আমরা আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়েই থাকবো। এ আবর্ত থেকে মুক্তি কবে?