ক্যাটেগরিঃ দিনলিপি

বাবা তোমার জন্য ভালোবাসা। সেই ছোটবেলায় তোমার কষ্টটা বুঝিনি। এখন বুঝতে পারি তোমার রোদে পুড়ার – বৃষ্টিতে ভেজার কষ্ট। এখন বুঝতে পারি বাসায় মটরসাইকেল রেখে তুমি কেন বাইসাইকেলে করে যাতায়াত করতে। কেন তুমি সকাল বেলা উঠে অাগে ক্ষেতে যেতে তার পর সময় হলে স্কুলে যেতে আবার স্কুল ছুটির পর আবার ক্ষেতে যেতে আর সন্ধা না মেলানোর আগে বাসায় ফিরতে না। বাবা, আমাদেরকে বড় করতে তোমার অনেক কষ্ট হয়েছে, তাইনা। আমরা চামড়ার স্যান্ডেল পড়তাম আর তুমি পড়তে রাবারের স্যান্ডেল। আমাদের সবার মোবাইল ছিল কিন্তু তোমার কোন মোবাইল ছিল না। তুমি বলতে একটা বাসায় এত মোবাইল দিয়ে কি হবে। কিন্তু এখন আমি জানি যে যখন তুমি অনেক দুরের স্কুলে বদলী হয়ে গেলে তখন মোবাইলএর প্রয়োজনীয়তা অনুভব করতে কিন্তু কিনোনি। তোমাকে যখন ডেকেছি ‘আব্বাজি’ তখন নিশ্চই সকল কষ্ট ভূলে গিয়েছিলে, তা না হলে এত কষ্টকর কাজগুলি তুমি কেমন করে এত সাবলিল ভাবে করতে পেরেছো, বল। তোমাকে বাবা দিবসের শুভেচ্ছা। বাবা, তুমি হচ্ছ বটবৃক্ষ, তোমার ছত্রতলে আমাদের বসবাস। তুমি আছ বলেই আমরা এখনও আছি নয়তো বিলীন হয়ে যেতাম। বেঁচে থাক অনেক অনেক দিন। যখন তুমি আমি দুজনেই বৃদ্ধ হব, তখন এই দিনগুলো নিয়ে আমরা আনেক আলাপ আলোচনা করবো।
ইতি
তোমার ছেলে