ক্যাটেগরিঃ দিনলিপি

শব্দগুলো মাঠ পেরিয়ে মেঘ,দুরবর্তী মেঘ আমাদের হেমন্তের দিন। সাদা কয়েকটি মুহুর্তের হলুদ রোদের বিকেলে দাড়িয়ে,আমরা চাই আমাদের সবটুকু,আমাদের নিজস্ব আকাশের নিচে। যদিও অবাধ ঘুরছে অন্ধকার মিথ্যাচার আর ভণ্ডামির বোমা আর বুলেটে স্থির লক্ষ্যভেদী। লাল গোধুলীর শেষে পরবর্তী দিনের পরবর্তী সুর্যের নীচে দাড়িয়ে, হৃদয়র্তি অতৃপ্তির স্বাদ নিয়ে স্বপ্নের তাড়াহুড়ায় ঘুমিয়ে পড়ি।এবং আমরা স্বপ্ন দেখি কি দেখি না তো নিশ্চিত হওয়ার আগেই জেগে ওঠার সুতীব্র লালসা আমাদের জানায়,সকাল হলো।হয়ত ঘুমের মধ্যেই আমরা সবচে নিরাপদ জীবন উপভোগ করিনা তাই খোলা চোখের নির্লজ্জতায় আমরা আমাদের প্রাত্যহিক জীবন সাজাই।সাজাতে সাজাতে আমরা হাঁপাতে থাকি। হাঁপাতে হাঁপাতে ক্লান্ত হই এবং আমাদের সবচেয়ে অতৃপ্ত তৃষ্ণায় গনপ্রজাতন্ত্রীয় মুদ্রায় কিনে ফেলি বিজাতীয় কোমল পানীয়।কিছুটা গৌরব নিয়ে পান করতে করতে আমরা আমাদের দামি জিন্সের পকেটে হাত রেখে কানে লাউডলি বাজাই ভিনদেশি অপসাংস্কৃতিক চিৎকার। হয়তো এটা আমাদের স্বাধীনতা উপভোগ করার মানে হয়ে দাঁড়ায় এবং আমরা অতীত শুন্য, ভবিষ্যৎ শুন্য এক আদর্শহীন বর্তমানে দাঁড়িয়ে আমাদের যাবতীয় ভণ্ডামিপূর্ণ জীবন লিলায় রঙ্গ করে বেড়াই।

তারপরও জানি একদিন ভোর হবেই-দুর হবে সকল অন্ধকার-সকালের সুর্য বৃষ্টির জলোচ্ছ্বাসে আসবে নতুন সকাল।।