ক্যাটেগরিঃ ব্লগালোচনা

মহান বিজয়ের মাসে প্রথমে সবাইকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা। ছোট ছোট বালু কনা,বিন্দু বিন্দু জল,গড়ে তুলে মহা দেশ সাগর অতল ঠিক সেই প্রত্যয় নিয়েই ব্যাক্তি গত ভাবে একটি প্রস্তাব বিডি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডট কম ব্লগের সদস্যদের লেখা নিয়ে “একুশে বই মেলায়” ব্লগারদের লেখা নিয়ে হতে পারে বই প্রকাশ! শিরোনামে পোস্ট করেছিলাম বিগত ৩০ অক্টোবর ২০১১, ইং তারিখে। আমার এই আহ্বানে সাড়া দিয়ে প্রাথমিক ভাবে ব্লগের সদস্য এবং প্রাথমিক বাছাই কমিটি সহযোগিতা এবং উৎসাহ যুগিয়েছেন তার ধারাবাহিকতায় “একুশে বই মেলা-২০১২” ব্লগারদের লেখা নিয়ে বই প্রকাশ- আপডেট-০২ শিরোনামে দ্বিতীয় আপডেট প্রদান করি। সেই মোতাবেক প্রাথমিক বাছাই কমিটির প্রত্যেকে আলাদা আলাদা ভাবে তাদের মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

প্রাথমিক বাছাই কমিটির প্রত্যেকের নির্বাচিত একেকটি পোস্টকে একটি ভোট হিসেবে গণনা করা হয়েছে। এভাবে প্রাথমিক বাছাই কমিটির প্রত্যেকের প্রদত্ত ভিন্ন ভিন্ন বাছাই তালিকা থেকে ভোট পদ্ধতিতে পোস্ট সমন্বিত করে সর্বোচ্চ ভোট প্রাপ্ত নির্দিষ্ট সংখ্যক পোস্ট চূড়ান্ত বাছাই কমিটির জন্য তালিকাকারে লিপিবদ্ধ করা হয়েছে এবং কমিটিকে প্রদান করা হয়েছে।

আমরা খুব দ্রুত গতিতে আমাদের লক্ষের খুব কাছাকাছি পৌছার জন্য এখন র্পযন্ত আমাদের সম্পাদিত কর্মকান্ডকে বিচার করলে আশাহত হওয়ার কোন কারন আছে বলে মনে করছি না।
চুড়ান্ত বাছাই কমিটির সদস্য হিসেবে যারা সহযোগিতা করছেন –

১. নাজনীন খলিল
২. মোত্তালিব দরাবারী
৩. মামুন ম আজিজ
৪. নাহুয়াল মিথ

(চুড়ান্ত বাছাই কমিটি ৪ঠা ডিসেম্বর ২০১১ তারিখের মধ্যে চুড়ান্ত বাছাই তালিকা জমা দেবেন।)

একজন লেখকের সর্বোচ্চ ১টি পোস্টকেই চুড়ান্ত বাছাইয়ে মনোনয়ন দেয়া হবে । যদি চুড়ান্ত বাছাই কমিটির প্রত্যেক সদস্যদের মনোনয়ন তালিকা সমন্বয়কালে কোন ব্লগারের একের অধিক পোস্ট দেখা যায় তবে ওই ব্লগারের পোস্টের প্রাপ্ত ভোটের ভিত্তিতে চুড়ান্ত বাছাই নির্ধারিত হবে। যদি প্রাপ্ত ভোট সমান হয়ে থাকে, তবে সম্পাদনা কমিটি লেখার বিষয়বস্তু ও মানের ভিত্তিতে যে কোন একটি পোস্ট নির্বাচিত করবেন। এক্ষেত্রে সম্পাদনা কমিটির সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে।

চুড়ান্ত বাছাইকালে সমসাময়িক ও গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা-মতামত-আলোচনা, নাগরিক সংবাদিকতা ভিত্তিক পোস্ট ও বিষয়বস্তুর বিভিন্নতা ও সর্বপরি ভাল লেখনীকে প্রাধান্য দেয়া হবে।

ব্লগারদের আগ্রহ ধরে রাখতে ও কমিটির কাজের সুবিধার্থে চুড়ান্ত বাছাই তালিকা ব্লগে প্রকাশ করা হবে না। বই প্রকাশের পর পাঠক বই হাতে নিয়ে লেখা সম্পর্কে অবগত হবেন, এটাই প্রত্যাশা।

ইতিমধ্যে ”জাগৃতি” প্রকাশনীর [, ] সাথে প্রাথমিক আলাপ করা হয়েছে। চুড়ান্ত বাছাই তালিকা তৈরীর পর প্রকাশকের সাথে আরো বিস্তারিত ও চুড়ান্ত আলাপ করা হবে। এ ছাড়া ব্লগারদের মাঝে কারও কোন প্রকাশনা সংস্থার সাথে সু-সম্পর্ক আছে বা অন্য কোন প্রকাশনী দ্বারা বইটি প্রকাশ পেলে আরও বেশী সাড়া পাওয়া যাবে বলে মনে করলে যুক্তি সহকারে নাম প্রস্তবনা করতে পারেন। এক্ষেত্রে, প্রকাশনা সংস্থার সাথে আলাপ-যোগাযোগে ব্লগাররা স্বশরীরে এগিয়ে এলে কাজের সুবিধা হবে

বইয়ের নাম প্রস্তাবনা:

বইয়ের নাম হিসাবে এ পর্যন্ত যা পেয়েছি তা হল –

১। ফাহিম ইবনে সারওয়ার -> কথায় কথায়, ব্লগে ব্লগে
২। ফকির ইলিয়াস -> ব্লগাক্ষর, অন্তরে-ব্লগান্তরে

তবে ব্লগারদের কাছ থেকে আরো আরো নাম আশা করা যাচ্ছে। নাম নিয়ে আমরা ব্লগাররা ভোটাভোটিও করতে পারি। বিডিনিউজ২৪ ডটকম ব্লগের কিছু নিজস্বতা রয়েছে। ব্লগাররাও সেই নিজস্বতা রাখার চেষ্টা করেন তাদের লেখনীতে এবং বিষয়বস্তুতে। ফলে প্রাথমিক মনোনয়নে যে সকল লিংক জমা পড়েছিল,তাতে সমসাময়িক বিভিন্ন ঘটনা, রাজনীতি , নাগরিক সমস্যা , জাতীয় ইস্যু , স্থানীয় এতিহ্য-ইতিহাস নিয়ে মতামত ও বিশ্লেষণমূলক লেখা দেখা গেছে। চুড়ান্ত বাছাই কমিটিও লেখার মান ও বিষয়বস্তুর বৈচিত্র্যতার প্রতি যত্নশীল। ফলে নাম প্রস্তাবনার সময়ও ব্লগাররা সেই মননশীলতার পরিচয় দেবেন বলে আশা করা যায়। তবে, নাম নিয়ে সবার ভাবনার প্রতিফলন ব্লগে আসাটা আরো গুরুত্বপূর্ণ। তাই তাৎক্ষণিকভাবে মনে আসা নামটিও জানিয়ে দিন ব্লগারদের।

এখন আপনাদের নিজস্ব ভাল লাগা এবং পছন্দের নাম মন্তব্যের ঘরে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে। হয়ত আপনার প্রস্তাবিত নাম নিয়েই আসতে পারে সামনের একুশে বই মেলায় বিডি ব্লগের ব্লগারদের লেখা নিয়ে প্রকাশিতব্য বইটি আর তাই এই সুযোগটি নেওয়ার জন্য ব্লগের সকল সদস্যদের আবারো উদাত্য আহ্বান করছি।

(বইয়ের নাম,প্রচ্ছদ এবং বই সংক্রান্ত যে কোন সিদ্ধান্ত চুড়ান্ত সম্পাদনা কমিটির এখতিয়ার ভুক্ত)

পরিশেষে আপনাদের সকলের সু-স্বাস্থ্য কামনা করে যে কোন পরামর্শ নির্দ্বিধায় পেশ করার অনুরোধ করছি।

শুভেচ্ছান্তে-

ম.সাহিদ