ক্যাটেগরিঃ ব্লগালোচনা

 

সময়ের হাত ধরে নানা অজানা আশংকার দোলাচলে দুলতে দুলতে শেষ পর্যন্ত কাংখিত সময়ের মধ্যে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর.কম ব্লগের ব্লগারদের “একুশে বই মেলায়” ব্লগারদের লেখা নিয়ে হতে পারে বই প্রকাশ! বই প্রকাশের উদ্দেগ সফল হওয়ার দ্বার প্রান্তে এসে দাঁড়িয়েছি। এরই মাঝে নানা দুশ্চিন্তায় কপালে জমেছে বিন্দু-বিন্দু ঘাম আবার পরক্ষনেই কাজের অগ্রগতি শুনে অনুভব করছি এক অজানা সৃষ্টির সুপ্ত শিহরনে শিহরিত হওয়ার আনন্দ।

বর্তমানে বইয়ের প্রচ্ছদ ও ভেতরের পাতার প্রিন্ট হয়ে গেছে। বাইন্ডিং এর কাজ চলছে। চেষ্টা করা হয়েছে যতটা সম্ভব কাগজ ও প্রিন্ট কোয়ালিটি ভাল রাখার। বইয়ের পৃষ্ঠা সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় ১৯১।বইয়ে লিখিত মূল্য ২২৫ টাকা। তবে অমর একুশে গ্রন্থমেলায় বিশেষ ছাড় থাকবে ২৫-৩০%। সে হিসেবে এই বইয়ের ক্রয়মূল্যও অনেক সাশ্রয়ী হবে।

বইটি প্রকাশ করেছে শ্রাবণ প্রকাশণী। মেলায় শ্রাবণ প্রকাশনীর স্টল নম্বর ১০৭-১০৮। ১২ তারিখ থেকে বইটি শ্রাবণ প্রকাশণীর স্টলে পাওয়া যাবে। যতদূর জানি www.bdnews24.com এবারের বইমেলাতেও স্টল রেখেছে। ব্লগের এ বইটি তাদের স্টলে রাখলে আরো বেশি সংখ্যক দর্শনার্থীদের চোখে পড়বে। এ বিষয়ে ব্লগ টিমের সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

এ ছাড়া ব্লগের ১ বছর পূর্তি আয়োজিত হতে যাচ্ছে ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১২, বিকাল ৫:০০টায়। ব্লগে উক্ত অনুষ্ঠানে সকল ব্লগারদের নিমন্ত্রনপত্র এবং অনুষ্ঠান সূচি নোটিশে দেওয়া হয়েছে সেদিনই বইয়ের মোড়ক উন্মোচিত হবে। আশা করছি, সেদিন আমরা ব্লগাররা অনুষ্ঠান স্থল থেকে মিলেমিশে বইটি সংগ্রহ করবো।

যেহেতু ব্লগারদের বই, তাই বইটির প্রচারণায় আমাদেরই এগিয়ে আসতে হবে। নিজেরা তো বইটি কিনবই, আমাদের পরিচিতজনদের বইটি সংগ্রহে উদ্বুদ্ধ করবো। প্রবাসী ব্লগারদের দৃষ্টি আকর্ষণ এবং সহযোগিতা একান্ত কাম্য। প্রবাসি ব্লগ বন্ধুরা যেন বইটি সংগ্রহ করেন,সে বিষয়ে আপনাদের কোন সহযোগিতা প্রয়োজন হলে ব্লগে মন্তব্য করে জানানোর অনুরোধ করছি। এ ছাড়া দেশে অবস্থানরত আত্মীয় স্বজন,বন্ধু-বান্ধবদের সহায়তায় বইটি সংগ্রহ করে বইটি আপনাদের হাতে পৌঁছালেই আমাদের এই কর্মযজ্ঞ সফল হবে বলে আশা করছি।

ফেসবুকে ’নগর নাব্য’ নিয়ে একটি ফ্যান পাতা আছে। এই পাতাটি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ব্যবহারকারীদের কাছে বইটিকে সহজেই পরিচিত করে তুলবে। ফ্যান পাতাটি সবার সাথে শেয়ার করুন। ’নগর নাব্য’ নিয়ে আপনার লেখা, অনুভূতি ফ্যান পাতাতেও জানান দিতে পারেন।

এখন পর্যন্ত বইয়ে কোন ব্লগারের কোন লেখা নির্বাচিত করা হয়েছে, তা আমরা অনেকেই জানিনা। কেবল বাছাই কমিটি ও সম্পাদকমণ্ডলী অবগত আছেন। যেহেতু ব্লগের লেখা নিয়ে বই প্রকাশে এটি প্রথম উদ্যোগ, তাই বিশেষভাবে আগ্রহ-উত্তেজনা টান টান রাখতে সচেষ্ট থাকা হচ্ছে। বইটি হাতে নিয়ে খুলে যদি দেখেন আপনার কোন লেখা বা মন্তব্য প্রকাশ করা হয়েছে তখন আপনার কাছে অপ্রত্যশিত হঠাৎ আনন্দিত মুখের হাসিটি দেখার সুযোগ না হলেও অনুভব করার জন্যই এই লুকোচুরি।

মহান মাতৃ ভাষা দিবসের মাসে একুশের বইমেলায় হয়ত আমরা অনেকেই এর আগে এসেছি বইয়ের পাঠক-ক্রেতা হয়ে,কিন্তু এবার আমরা একুশের বই মেলায় যাব নিজেদের মনের কথা জানান দেওয়ার মাধ্যম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর.কম ব্লগের সদস্য হিসাবে আমাদের লেখা নিয়ে প্রকাশিত “নগর নাব্য” এই মেলায় অন্তত আমাদের জন্য নিয়ে আসবে একটি ভিন্ন মাত্রা। আমাদের সবার ঐকান্তিক প্রচেষ্টা আর একতাই এই আনন্দময় ঘটনার মুল ভিত্তি এটা স্বীকার করে নিতে কারো কৃপনতা করার কোন সুযোগ নেই। তাই বর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠানে সবাই এক সাথে অংশ গ্রহন করে আমাদের সৃষ্টিকে আমরা বরণ করে নিব সাদর সম্ভাষনে।

ধন্যাবাদান্তে-
ম.সাহিদ