ক্যাটেগরিঃ খেলাধূলা

 

এশিয়া কাপের ফাইনালে ওঠা হলো না বিশ্বকাপজয়ী ভারতের। মহেন্দ্র সিং ধোনিদের বিদায়-ঘণ্টা বাজিয়ে গতকাল মঙ্গলবার রাতে ফাইনালে উঠে গেছে মুশফিকুর রহিমের বাংলাদেশ। বাংলাদেশের ফাইনালে ওঠা, আর ভারতের বিদায় নিয়ে আজ একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইনে। এই সংবাদে পাঠক করা মন্তব্যে ফুটে উঠেছে দলের বিদায়ে ভারতীয়দের ক্ষোভ আর হতাশা। কেউ আবার গেয়েছেন টাইগারদের জয়গান।

‘২০১২ এশিয়া কাপ: শচীন জিতেছে, হেরেছে ভারত’! বেঙ্গালুরু থেকে মন্তব্য করেছেন রুপেশ নামের এক পাঠক।বেশিরভাগ পাঠকের অভিযোগ, শচীন টেন্ডুলকারের কারণেই এশিয়া কাপ থেকে বিদায় নিয়েছে ভারত। শততম সেঞ্চুরির করতে গিয়ে ধীরে ব্যাটিং না করলে বাংলাদেশের কাছে হারতে হতো না ভারতীয় দলকে।

মুম্বাই থেকে এক পাঠক লিখেছেন, ‘শচীন, তুমি শততম সেঞ্চুরি পেয়েছ, অনেক হয়েছে। এবার দয়া করে ক্রিকেট থেকে বিদায় নাও। নায়ক থেকে হাসির পাত্রে পরিণত হয়েছে তুমি।’
আরেক পাঠকের মন্তব্য, ‘যখন কোহলি সেঞ্চুরি করে, ভারত জেতে। যখন শচীন সেঞ্চুরি করে, ভারত হারে। স্বার্থপর, দুর্ভাগা শচীনকে দল থেকে হটাও।’

বেঙ্গালুরুর এক পাঠক লিখেছেন, শচীন ক্রিকেটের প্রথম ঈশ্বর। সম্ভাব্য ক্রিকেট-ঈশ্বর কোহলি। গম্ভীর এবং ধোনিও এই তালিকায় আছেন। এত এত ঈশ্বর, অথচ মন্দির নিজেই ভেঙে পড়ল।
বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার ম্যাচটা পাতানো ছিল কী না, এ প্রশ্ন তুলেছেন অর্জুন নামের একজন, ‘ভারতীয় বোর্ডের উচিত, ম্যাচটা আইসিসিকে তদন্ত করতে বলা। ভারতকে বিদায় করার উদ্দেশ্যে বড় অঙ্কের ঘুষ নিয়েছে শ্রীলঙ্কান বোর্ড। আমি বিশ্বাসই করতে পারি না, বাংলাদেশের কাছে হেরেছে শ্রীলঙ্কা!

অনেক ভারতীয় পাঠক অবশ্য বিশ্বাস করেন, যোগ্য দল হিসেবেই ফাইনাল নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। শিনু নামের এক পাঠকের মন্তব্য, ‘ভারত ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশ ভালো খেলেছে। কেউ অপরাজেয় নয়। আমি মনে করি না, বাংলাদেশ সহজ কোনো দল। ভারত ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই ওরা তা প্রমাণ করেছে।’

বেঙ্গালুরু থেকে একজন লিখেছেন, ‘খারাপ খেলার কারণেই বাংলাদেশের কাছে হেরেছি আমরা। বোলাররা খুবই বাজে পারফর্ম করেছে। শুধু ব্যাটিং দিয়ে জয় পাওয়া যায় না।’
প্রণব নামের এক পাঠকের মন্তব্য, ‘২৮৯ রান করেও যদি আমরা বাংলাদেশকে হারাতে না পারি, এটা ভারতের ব্যর্থতা। সমস্যা হলো, বাংলাদেশকে খাটো করে দেখেছিলাম আমরা। বাংলাদেশ যেভাবে খেলছে, ওদের কাছে ট্রফি দেখলেও অবাক হবে না আমি। ওরা এটার প্রাপ্য।’

সূত্র: প্রথম আলো (http://www.prothom-alo.com/detail/date/2012-03-21/news/234388)