ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

এম এম রানার রাজনৈতিক কলাম ‌‌‌‌‌‌‌‌’প্রতিরোধ’ থেকে কিছু অংশ “মুক্ত গণমাধ্যম বাংলাদেশে কখনও কোন দিন ছিল না। আজও নেই। শৃঙ্খলিত গণমাধ্যমের আওয়াজেই সাধারণ জনগণের জীবন অতিষ্ঠ। তবু নিরুপায় জনগণ সংবাদপত্রের পাতা উর্টিয়ে-পাল্টিয়ে, চ্যানেলের পর চ্যানেল ঘুরে, অনলাইনে ক্লিকের পর ক্লিক করে হতাশ হয়ে দুই-চার টা গালি দিয়ে ক্লান্ত হয়ে পত্রিকা, টিভি বন্ধ করেন, অনলাইনে ট্যাব কাটে দেন।

কিন্তু যে প্রশ্নগুলো প্রতিনিয়ত আসছে,তা হলো আজ স্বাধীনতার ৪০ বছর পরও কেন এমন হচ্ছে? কেন সাধারণ মানুষ যা দেখেন, বোঝেন তা আমাদের প্রিন্ট বা অনলাইন মিডিয়াগুলো লেখেনা বা চ্যানেলগুলো দেখায় না ? আথবা কেন আমাদের সহকর্মী সাংবাদিক ভাইয়েরা হামলা-মামলা, হুমকি-ধামকি এমন কি খুন-খারাবির শিকার হচ্ছেন? কেন আমাদের মধ্যে একতা নেই? কেন সাংবাদিক পরিচয় মুনলে ক্ষমতাসীন-ক্ষমতাহীন সবাই কখনও কাছে টেনে নেয় আবারকখনও আতঁকে উঠেন? আজকাল সাংবাদিক না বলে কেন সাংঘাতিক বলে ডাকে? কেন মানুষ প্রশ্ন করে ভাই যা দেখছেন তা দেখাবেন বা লেখবেন তো? আবার নিজেই বলে বসেন ভাই আপনিতো অমুক পত্রিকা বা চ্যানেলের, আপনি তো লেখবেন না , দেখাবেন না। আর লিখলে অন্যকিছু লেখবেন। এ রকম হাজারো প্রশ্নের সম্মুখীণ আমাদের গনমাধ্যম।”

প্রশ্ন গুলোর উত্তর কি জানা আছে কারো? থাকলে দিয়েন।