ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

 

খবর দেখতে বসেছিলাম,টিভি খুব বেশি একটা দেখা হয়না, তাই বর্তমান সময়ের মিডিয়ার বিভিন্ন প্রচ চোখের আড়ালেই থেকে যায়। তবে এই সকল প্রচার সমাজের উপর কতটা প্রভাব ফেলছে তার একটি ধারনা হল সেদিন খবরের মাঝে একটি বিজ্ঞাপন দেখে। বিজ্ঞাপনটি একটি প্রসাধনী পণ্যের। ৩৮ সেকেন্ডের এই বিজ্ঞাপনে যা দেখান হয়েছে তার সারমর্ম এরূপ- একটি সিনেমা হলে একজন তরুন ও একজন তরুনী তথা প্রেমিক-প্রেমিকা বসে সিনেমা উপভোগ করছে, হাতে পপকর্ণ এবং তরুণীটির বসার ভঙ্গিমাও যথেষ্ট আপত্তিকর। পরবর্তী দৃশ্য গুলোতে যা দেখলাম তাতে এটা আমার দেশের একটা বিজ্ঞাপন ভাবতে খুব কষ্ট হচ্ছিল। তরুনীর পিছনের সিটে আরেক সুদর্শন একটি বডি স্প্রে মেখে বসার কারনে তার বর্তমান প্রেমিক কে তার কাছে খুবই তুচ্ছ মনে হল এবং সে নির্দ্বিধায় নতুন ঐ তরুনের বাহুবন্ধনে চলে গেল।

বর্তমানে দেশে ইভটিজিং বিরোধী অনেক কার্যকলাপ চলছে, এমনকি এর বিরুদ্ধে আন্দোলন পর্যন্ত গড়ে তোলা হচ্ছে। তবে অত্যাধুনিক ব্যবস্থায় এসব ইভটিজিং উৎসাহ দাতাদের বিরুদ্ধে কিন্তু কোন ব্যাবস্থা নেয়া হয়নি কখনো। এমনকি এসব বিষয়গুলো আমদের বিজ্ঞ আলোচকদের আলোচনাতেও আসে না। সুতরাং ইভ টিজিং উৎসাহ দাতারা আরো উৎসাহী হয়ে তাদের এমন ডিজিটাল ইভ টিজিং কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। যেখানে একটি নারীকে এত সস্তা একটি পণ্য হিসেবে মিডিয়ার সামনে তুলে ধরা হয় সেখানে আমাদের তথাকথিত নারী অধিকার সংগঠন গুলো কিন্তু নিরব দর্শকের ভুমিকা পালন করে। কারন শুধুমাত্র পুরুষ বিরোধী কার্যকলাপ ছাড়া এসব সংগঠন গুলোকে আর কোন কাজে দেখা যায় না। পাঠক/পাঠিকা, একটু ভেবে দেখুন তো এসব বিজ্ঞাপন গুলোর মূল উৎস কোথায়???একদম ঠিক ধরেছেন, আমাদের প্রতিবেশী একটি দেশে, যেখানকার কুরুচিপূর্ণ সিরিয়াল দেখার জন্য পাঠিকা আপনি নিজেও হয়তো ঘড়ির সময় গুনছেন। তবে পাঠক/পাঠিকা এবার একটু কল্পনার জগতে আসুন, আপনার ঘরেও আপনার স্ত্রী ( পাঠকের ক্ষেত্রে), কন্যা সন্তান অথবা পাঠিকা আপনি নিজেও রয়েছেন। বিজ্ঞাপনের এই নায়িকার স্থানে আপনার স্ত্রী, কন্যা অথবা পাঠিকা নিজেকে একটিবার ভাবুন। কি দেখলেন? শুধুমাত্র একটি প্রসাধনীর গন্ধে আপনার স্ত্রী অন্য আরেকজনের হয়ে গেল, অথবা আপনার কন্যা এমনকি আপনিও এক পুরুষের হাত থেকে আরেক পুরুষের হাতে এত সহজেই নিজেকে বিলিয়ে দিলেন।। আমাদের দেশের নারীরা কতই সহজলভ্য তাই না? প্রসাধনীর গন্ধ দিয়ে তাদের কত সহজেই পাওয়া যায়। কিছুকাল আগে প্রতিবেশী দেশের একটা বিজ্ঞাপন এমনটাই দেখেছিলাম, যেখানে দেখানো হয়েছিল একটি প্রসাধনীর গন্ধে বহু নারী একটি পুরুষের পিছনে প্রায় উলঙ্গ হয়ে ছুটছে। আপনাদের আফসোস করার কিছু নেই, আপনাদের ভারতীয় টিভি চ্যানেল আর সিরিয়াল প্রীতির জন্য আর কিছুদিন পরে এমন একটি বিজ্ঞাপন আমাদের দেশেও তৈরি হবে এবং যার নায়িকা থাকবে আপনার স্ত্রী,কন্যা, প্রেমিকা অথবা আপনি নিজে। আমরা প্রায়ই আমাদের দেশের সমাজপতিদের এদেশের নারী অধিকার নিয়ে গর্বের হুঙ্কার ছাড়তে দেখি, যদি এই হয় আমাদের নারী স্বাধীনতা অথবা অধিকার যেখানে একজন নারী খুব সহজলভ্য একটি পণ্য তাহলে সেইদিন বুঝি আর বেশিদিন দূরে নেই যেদিন নারীদের ঠিক এমন পণ্যের মত মিডিয়াতে দেখানো হবে এবং নারীদের বিক্রয় করা হবে আকর্ষণীয় মূল্যছাড় দিয়ে।

আমি জানি, আমার এই লেখাটি পরে অনেকেই আমার উপরে অগ্নিশর্মা হয়ে গেছেন, বিশেষ করে পাঠিকারা, যাদের মাঝে অনেকে নিজেদের “নারী পণ্য” হিসেবে উৎসর্গ করতে এখন থেকেই হিন্দি সিরিয়ালের কাঠামো অনুযায়ী অনুশীলন করে যাচ্ছেন। তাদেরকে বলছি, অনুশীলন চালিয়ে যান, ঐ নায়িকার স্থানে খুব শিঘ্রই আপনি আপনাকে অথবা আপনার কন্যাকে দেখতে পাবেন।

আর আপনাদের অনুশীলনের সুবিধার্থে বিজ্ঞাপনটি এইখানে দেয়া হল, ক্লিক করে দেখুন।