ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

আমাদের দেশের গুরুত্ত পূর্ণ রাজনৈতিক এবং অরাজনৈতিক ব্যাক্তি বর্গ বিভিন্ন মিটিং, মিছিলে, সেমিনারে এবং নেতা নেত্রীর বাসায় দেশে আইনের শাসন ও গণতন্ত্রের (তাদের ভাষায়ে) জন্য উৎকণ্ঠা প্রকাশ করছেন এবং আইনের শাসন ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় তাদের চেষ্টা অব্যাহত রাখবেন বলে জানিয়েছেন। খুব ভালো কথা। তবে তারা দেশে তাদের আইনের শাসন ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় করার সময় তারা যেন আমাদের মুক্তিযুদ্ধের কথা, মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ/চেতনার কথা ভুলে না যান। তারা যেন ভুলে না যান হাজার হাজার ধর্ষিত মায়ের কান্না । শহীদ বুদ্ধিজীবী সন্তানদের উৎকণ্ঠা আর হতাশার কথা। লক্ষ লক্ষ শহীদের আত্মত্যগের কথা। তারা যদি দেশে আইনের শাসন ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার কথা বলে আমাদের স্বাধীনতার শত্রু জামাতকে রাজনৈতিক ভাবে পুনর্বাসনের চেষ্টা করেন তবে জাতি তাদেরকে কোনদিনও ক্ষমা করবে না। এ দেশের মানুষ যেমন সত্যিকারের গণতন্ত্র চায় তেমনি চায় যুদ্ধা অপরাধীদের বিচার এবং জামাত সহ সকল স্বাধীনতা বিরোধীদের এদেশ থেকে চিরতরে নির্বাসন । এই সব দেশ বিরোধীরা সক্রিয় থাকলে দেশে কোন দিনই আইনের শাসন ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা যাবে না । দেশে আইনের শাসন ও গণতন্ত্রের প্রতিষ্ঠা দেশের মানুষকে নিয়ে করতে হবে, সব ধরনের সঙ্কীর্ণতা, ধর্মীয় গোঁড়ামি ও দলীয় চিন্তা ভাবনার উর্ধে উঠে। গণতন্ত্রের মূল ভিত্তি হতে হবে আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধ এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনা।