ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

 

দেশটা বসবাসের অনুপযোগী হয়ে পড়ছে।আমরা সবাই আত্মকেন্দ্রিক হয়ে যাচ্ছি।পাশের লোকটি কি অবস্থায় আছে ভাবার অবকাশ নাই।অপরের ভাবনা চিন্তা অনুভূতি সুখ দুঃখ ভাবার সময় আমার কোথায়?অন্যকে অসম্মান করব।নিজে সম্মানিত হব।আমি উদরপূর্তি করে খাব।তুমি না খেয়ে থাকবে।কারো অসহায়ত্ব দেখে দারুন মজা পাই।তার সহায় হব না। উপহাস করব ।ঠাট্টা,বিদ্রুপ করব।সহায়তায় এগিয়ে আসে যারা তারা নির্বোধ। আমি ভালো তো জগৎ ভালো।সোনার হরিণটা আমার চাই।আর কারো দরকার নাই।

সিংহাসন আমার জন্য।রাজপথ তোমার।আমি মুক্তিযোদ্ধা।তুমি রাজাকার।আমি আধুনিক তুমি বড্ড সেকেলে।আমি মেধাবী তুমি মেধাহীন।আমি গনতন্ত্র তুমি একনায়ক।আমি সৎ।যোগ্যতার মাপকাঠিতে সর্বসেরা।তুমি অসৎ।অযোগ্য।সংবাদমাধ্যম আমার ভালো লিখবে তোমার লিখবে মন্দ।আমি বৈধ তুমি অবৈধ। আমি ধার্মিক তুমি বকধার্মিক।তুমি মৌলবাদী।আমি দেশের মঙ্গল চাই তুমি ধ্বংস কর।আমার কারনে দেশের উন্নতি তোমার কারনে অবনতি।

এভাবে ভাবলে হবে না।দেশে ১৫ কোটি মানুষ।সবার বুদ্ধি আছে, বিবেক আছে,দেশপ্রেম আছে।তাদের কথাও ভাবতে হবে।তাদের অনুভূতিকে সম্মান করতে হবে।দেশের সমস্যাগুলো নিয়ে ভাবতে হবে।তার সমাধান খুজে বের করার দায়িত্ব আমাদেরও।দেশটা কারো একার নয়।কারো বাবার বা স্বামীর নয়।সবার।

রাস্তায় বেরোলেই যানজট।ঘন্টার পর ঘন্টা।মূল্যবান সময় নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।বেকার যাচ্ছে।অনিয়ম,দূর্নীতি আর কালো টাকার দৌরাত্বে আমরা বেসামাল।বিষাক্ততা চারিদিকে।মাছে বিষ ;গোশতে বিষ;সবজিতে বিষ;মানুষে বিষ ।বিষের রাজত্ব।মাটিতে,পানিতে,বাতাসে বিষ।আমাতে তোমাতে সবখানে বিষ। হুমায়ূন ফরীদির মতো নির্ভেজাল লোক হুমায়ূন আহমেদ এর মতো ভেজালে চাপা পরে গেছেন।আমরা ভেজালে আসক্ত। নির্ভেজাল জিনিস লুকিয়ে রাখি।আমদের সবকিছু সুবর্ণময়। আমরা ফরীদিময় হতে ভুলে গেছি। সমাজে, কর্মক্ষেত্রে, শাসনযন্ত্রে সবখানে অনিয়ম।প্রেমে,ভালবাসায়,বিয়েতে,স্কুলে,কলেজে অনিয়ম। ধূমপানে, মলমূত্রত্যাগে, চিকিৎসা, শিক্ষায় ধর্মে,কর্মে অনিয়ম।এগুলোর সমাধান কি?আরও বেশি আত্মকেন্দ্রিক হওয়া !নাকি সংকীর্ণতা পরিহার করা। কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সকল সমস্যার সমাধানে এগিয়ে আসা।অন্যের আবেগ অনুভূতিগুলোকে সম্মান করা।ভাল থাকা মানে সবাই ভাল থাকা।দেশের উন্নতি মানে সবার উন্নতি।গণতন্ত্র মানে আমরা সবাই রাজা আমাদের এই রাজার রাজত্বে।