ক্যাটেগরিঃ সেলুলয়েড

http://ciu.somewherein.net/pictures/selimanwar007/ec4a54392dcb958ce252c5c9c9b12e29_xlarge.jpeg

আমার দৃষ্টিতে শন ক্যানারী সেরা বন্ড।অন্যরা তার ধারের কাছেও নেই।তবে বর্তমানের ড্যানিয়েল ক্রেগ মনে হয় দ্বিতীয় সেরা।তার অভিব্যক্তি একশন সবকিছুই অসাম।নারী পটানোতে সব জেমসবন্ডই সিদ্ধহস্ত।যদিও সম্প্রতি সিআইএ প্রধান নারী কেলেংকারীতে ইস্তফা দিয়েছেন পদ থেকে।বন্ড গার্লরা তো একেকজন সেক্স বম্ব।একেবারে সরস মাল।দেখলেই প্রেমে পড়বেন সকল পুরুষ।এবার যেটা নিয়ে আলোচনা সেটি হলো স্কাইফল।জেমস বন্ড সিরিজের ২৩ তম ছবি।

আনেকের চোখে মুরের দ্য স্পাই হু লাভড মি-ই সর্বকালের সেরা বন্ড ছবি।অনেকের মতে ডঃ নো।সেই মুর রীতিমত মুগ্ধ স্কাইফল দেখে।তেনি ক্রেইগকে রীতিমত আকাশে উঠিয়েছেন।ঘোষণার সুরে মুর জানিয়ে দিয়েছেন জেমসবন্ড সিরিজের সর্বশেষ ছবিই ছাড়িয়ে গেছে আগের ২২টি ছবি।

একটা জায়গায় স্কাইফল ছাড়িয়ে গেছে আগের সব গুলোকেই।এই ছবির প্রথম সপ্তাহটি হয়েছে ধুন্ধুমার।এত ভাল ওপেনিং আর কোন বন্ড ছবি করতে পারে নি।

বন্ড তো বন্ড যুক্তরাজ্যের ইতিহাসে এত ভাল ওপেনিং আর কোন ছবিই করতে পারেনি।২৩ অক্টোবর প্রিমিয়ারের তিন দিন পর পুরো যুক্তরাজ্যে মুক্তি দেয়া হলে প্রথম সপ্তাহে স্কাইফল ঘরে তুলেছে তিনকোটি ৭২ লাখ পাউন্ড।স্কইফল ছাড়িয়ে গেছে হ্যরি পর্টার এন্ড ডেথলি হ্যালোস এর দ্বিতীয় পর্বের রেকর্ড। ওই ছবি সাত দিনে আয় করেছিল তিন কোটি ৫৭ লাখ পাউন্ড।৯ নভেম্বর মার্কিনযুক্তরাষ্ট্রে তা আয় করেছে তিন কোটি ৩০ লাখ ডলার।গত রোববার পর্যন্ত স্কাইফল সারাবিশ্বে আয় করেছে সাড়ে ৩৫ কোটি ডলার।এর আনুমানিক বাজেট ১৫-২০ কোটি ডলার।

ছবির মধ্যে যথেষ্ট মালমসলা ঢেলেছেন পরিচালক স্যাম মেন্ডেস।এ কারনে রোটেন টম্যাটোস কোন পচা টম্যাটো না ছূড়ে দিয়েছেন ৯২ শতাংশ রেটিং।ব্রিটিশ দৈনিক টেলিগ্রফ এর চলচ্চিত্র সমালোচক কলিন লিখেছেন‌‍ ‌স্কাইফল কখনো কখনো চোখ ধাধানো,সব সময়ই দুঃসাহসী আবার হাস্যরসে ভরপুর।টাইমস এর কেট মুইর লিখেছেন স্কাইফল ক্ল্যাসিক বন্ড ঘরানার বিজয়দীপ্ত প্রত্যাবর্তন।সেখানেই তিনি ঘোষণা করেছেন এটাই বন্ড সিরিজের সর্বকালের সেরা ছবির মর্য়াদা পাবেন।দেখা যাক স্কাইফল কতটা উচুতে উঠতে পারেন।দর্শকদের কতটা মাতাতে পারেন।মাই নেম ইস বন্ড জেইমস বন্ড।জেমস বন্ডের কোন ছবিই মিস করি না।বলা য়ায় আমার প্রিয়তম বিদেশী ছবি জেমস বন্ড।কে সেরা জেমস বন্ড শন ক্যানারী,রজার মোর,পিয়ার্স ব্রুসন্যন নাকি ড্ড্রানিয়েল ক্রেগ।এই নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই।জরিপও হয়েছে।সেখানে শন ক্যানারী সবাইকে পরাস্ত করেছেন।তারপরও বন্ড হিসেবে কে সেরা এ নিয়ে আছে বিতর্ক।ভক্তরা নিজেদের মতের পক্ষে যুক্তি দিতেও ছাড়েন না।জয়তু জেইমস বন্ড।