ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক

 

IMG_4263
বৈদ্যুতিক দুর্যোগে জীবনে আনে দুর্ভোগ, উন্নয়নেও ঘটায় ক্ষতি সীমাহীন যদি না সূচনাতে তার ভয়াবহতা পরিমাপ করতে ব্যর্থ হই। আমার গত কালকের অভিজ্ঞতা বলি শুনুন।
বিদ্যুতের অভাবে কাল আমরা দিনের বেলা হয়ে গিয়েছিলাম যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। বিশেষ করে ইন্টারন্টে, টিভি ইত্যাদির ক্ষেত্রে। ধাপে ধাপে বন্ধ হয়ে গেল পানি। পানির অভাবে বন্ধ খাবার,…। দিনের বেলা আইপিএস/ইউপিএসের একটানা ব্যবহার এর ফলে তার ধারণকৃত সঞ্চয়ও এক সময় হয়ে গেল নিঃশেষ।
candle-2
সন্ধ্যা নামতেই নেমে এল ঘোর অন্ধকার। গলির ধারে দোকানগুলোতে মোমবাতি কেনার লাইনে শামিল হলাম। কিছুক্ষণ পর মোমবাতির সরবরাহও শেষ; লোকজন ফিরে যেতে লাগল খালি হাতে। এসব প্রতিবেশীদের ঘরে/বাসায় নিশ্চয় আলো জ্বলবে না, অন্য রকম গ্রামীণ অন্ধকার বাসা বাঁধবে।

আমার একজন পরিচিত জন, তিনি দিনে পানি ধরে রাখেনি বাসায়, লোকটা তেমন সংসারী নয়। তাঁর বউটিও ছিল সারাদিন বিশেষ অফিসিয়াল ডিউটিতে। তার ঘরে রান্না হয় নি রাতে। আরও কত সমস্যা হয়েছে তা শোনা হল, লেখা গেল না।

বিবিসি রেডিওতে শুনলাম, অনেক কারখানাতে আজ পূর্ণ মাত্রায় কাজ সম্ভব হয় নি। উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রায় ব্যাঘাত ঘটেছে। এর ক্ষতি সীমাহীন, হিসেব করার মতো বিদ্যা আমার শেখা নেই।
মোবাইলের কোন কোনটিতে মাঝে মাঝে নেটওয়ার্ক পাই নি। এরকম নানান সমস্যায় জর্জরিত ছিল আজকের দিন। মোমবাতি কিনতে গিয়ে লাইনের একজনকে বলতে শুনেছি, ভাই, “বিদ্যুতের কাজ কি মোমবাতিতে সারে? কখন যে বিদ্যুত আসবে, কে জানে।” সত্যি, বিদ্যুত যে শক্তি কাল তা টের পাওয়া গেছে হাড়ে হাড়ে।

কালকের বিদ্যুতের বিপর্যয় দুর্যোগের পর্যায়ে পৌঁছে গেছে। এই দুর্যোগ শুধু আমাদের দুর্ভোগই সৃষ্টি করেনি, নানা ক্ষেত্রে উন্নয়ন, উৎপাদন ব্যাহত করেছে, সীমাহীন আকারে।

বৈদ্যুতিক দুর্যোগ আমাদের বহুজনকে বহুমাত্রিক চিন্তা থেকে এককেন্দ্রিক করে ফেলেছিল। এর ফলে আমরা জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে বিদ্যুতের অসীম প্রয়োজনীয়তাটা টের পেয়েছি ভালোভাবে। নির্মম হলেও এটাই সত্য।

গতকালকের বিদ্যুৎ দুর্যোগ থেকে আমাদের শিক্ষা নেওয়ার আছে যে যার দিক থেকে, যে যার মতো। যেমন- সংশ্লিষ্ট বিদ্যুৎ কর্তপক্ষের নিশ্চয় পর্যালোচনা করে দেখবেন, সমস্যাটার উৎস কী কেন হল. কীভাবে এধরনের পরিস্থিতি মোকাবেলা করা যায়।
আর, সিটিজেনদেরকে বিদ্যুৎ দুর্যোগকালীন স্বস্তিতে থাকার জন্য ঘটনা অনুমান ও এর ভয়াবহতা পরিমাপ করে পূর্বপ্রস্তুতি নিতে হবে। তাহলে দুর্যোগ আর দুর্ভোগে পরিণত হবে না।