ক্যাটেগরিঃ ফিচার পোস্ট আর্কাইভ, ব্যক্তিত্ব

 
gobindo-haldar

 

‘মোরা একটি ফুলকে বাঁচাবো বলে যুদ্ধ করি’, ’এক সাগর রক্তের বিনিময়ে বাংলার স্বাধীনতা আনলে যাঁরা’, ‘পূর্ব দিগন্তে সূর্য উঠেছে, রক্ত লাল রক্ত লাল’, ‘পদ্মা মেঘনা যমুনা তোমার আমার ঠিকানা’ ইত্যাদি গান শুনে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধারা ও সাধারণ মানুষ অনুপ্রাণিত হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের উদ্দীপক প্রাণশক্তি হিসেবে এই গানগুলোর অবদান অসীম। আজও আমরা এসব গান শুনে দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হই।

এই কালজয়ী গানগুলোর গীতিকারকে আমরা চিনি? অনেকেই চিনি না। না চেনাটা বড় ধরনের কোনো ঘটনা নয়। এরকমই রবীন্দ্রনাথের সোনার তরী কবিতায় রূপকাশ্রয়ে বলা হয়েছে, এই পৃথিবীতে সৃষ্টির স্থান হয় সৃষ্টির যে চাষী তার স্থান হয় না। তাই আমরা গোবিন্দ হালদারের অমর সৃষ্টি গ্রহণ করে, বরণ করে উজ্জীবিত হই কিন্তু কখনো খবর রাখি না ঐ অমর গানের গীতিকার ও সুরকারকে। গোবিন্দ হালদার একজন বাঙালি। ভৌগোলিকভাবে পশ্চিম বঙ্গের অধিবাসী কিন্তু তাঁর রক্তে রয়েছে বাংলাদেশের ঋণ । তাঁর পূর্ব পুরুষরা ছিলেন বাংলাদেশের অধিবাসী (?)। তাছাড়া, আমরা তো ভৌগোলিক কারণে কাঁটাতারের বেড়ায় আলাদা হয়ে গেছি; কিন্তু মনে প্রাণে সংস্কৃতিতে একই মায়ের পুত্রকন্যা। তাই তিনি মনে ধারণ করেছিলেনে একইভাবে আমাদের হয়ে স্বাধীনতা ও মুক্তির আবেগ, দেশপ্রেমের উচ্ছ্বাস। ফলে তাঁর হৃদয়-উৎস-ধারা-জল বেয়ে বেরিয়ে এসেছে স্বাধীনতা-মুক্তিযুদ্ধ-দেশপ্রেমের কথা-গান; যা আমাদের বাঙালির প্রাণে উদ্দীপক হয়ে বেজেছে মুক্তিযুদ্ধের সময়। ্োজও বাজে। কালজয়ী হয়ে বেজে যাবে চিরকাল। চিরায়ত/কালজয়ী শ্রেষ্ঠ বাংলা গানের উপর বিবিসি-র জরিপে ২০টি গানের মধ্যে অন্যতম সেরা দুটি গান ‘মোরা একটি ফুলকে বাঁচাবো বলে যুদ্ধ করি’, ’এক সাগর রক্তের বিনিময়ে বাংলার স্বাধীনতা আনলে যাঁরা’ গোবিন্দ হালদারের লেখা, আমাদের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক। এই দুটিসহ পনেরটি (?) গান পেয়েছি আমার তাঁর কাছ থেকে। সেই সূত্রে তিনি আমাদের দেশের পরম বন্ধু ও সুহৃদ স্বজন।

Gobinda-Halder2 President-Govind-Haldar-22.12.2014

গোবিন্দ হালদারের সৃষ্টি অমর, কিন্তু গোবিন্দ হালদার অমর কিনা সে কথা আজ বললে আমার উপরে পাঠক চটে আসবেন। বাস্তবতা হচ্ছে সোনার তরীতে গোবিন্দ হালদারের মতো গীতিকার ও সুরকারের ঠাঁই হয় না। তাই তাঁর মৃত্যু হয়, আমরা একসময় ভুলেও যাই তাঁদের। কিন্তু তাঁর গানকে আমরা কোনো দিন ভুলতে পারব না। তাঁকে ভুলতে পারি (?!) তাঁর গানকে নয়। তবুও যেটুকু তাঁর বেঁচে থাকা, যেটুকু অমরত্ব তা ঐ অমর সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে। মানুষের জরা-ব্যাধি-বার্ধক্য-মরণ আছে। কিন্তু মানুষের কালজয়ী সৃষ্টির জরা-ব্যাধি-বার্ধক্য-মরণ নেই।

এক অমোঘ নিয়ম মানুষ মরে যায়। একে এভাবে মরমিয়ারা তুলে ধরেছে,

উড়ে যায় বকপক্ষী পড়ে থাকে ছায়া,

মানুষ মরিয়া যায় রয়ে যায় মায়া।

এই দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের উদ্দীপনা সৃষ্টিকারী এই মানবতাবাদী বাঙালি কবি গীতিকার, সুরকার গোবিন্দ হালদারকে আমরা তাঁর গানের সাথে সুরের সাথে স্মরণ রাখবো। তাঁর গানের কথা যেমন ‘এক সাগর রক্তের বিনিময়ে বাংলার স্বাধীনতা আনলে যারা আমরা তোমাদের ভুলব না’, ঠিক তেমনি করে তাঁর গানে, তাঁর সুরের ধারায় আমরা একটি দেশ পেয়েছি, মুক্ত স্বাধীন স্বদেশ গড়েছি, তাঁকে / তোমাকের আমরা কোন দিন ভুলব না। তোমার গানের সাথে সুরের সাথে তোমাকেও অমর করে স্মরণীয়-বরণীয় করে রাখবো।

Gobinda-11