ক্যাটেগরিঃ জনজীবন

অভিশাপ শোনা যায় বার্ন ইউনিটে দগ্ধ মানুষের কণ্ঠে, নির্দোষ আতঙ্কিত-সন্ত্রস্ত সাধারণ মানুষের মন থেকে। অভিশাপ শোনা যায় ড্রাইভার, হেলপার তথা পরিবহণকর্মীর মুখে। অভিশাপ শোনা যায় দেশ জুড়ে সকল শ্রেণি ও পেশার নারী-পুরুষদের কণ্ঠে। তারা অভিশাপ দিচ্ছে:

আমাদের শরীর ঝলসে দিয়েছে যারা পেট্রোল বোমা মেরে

যাদের ছোঁড়া ককটেলে আমাদের শরীর আজ দগ্ধ, রক্তাপ্লুত,

আমরা অভিশাপ দিচ্ছি নেকড়ের চেয়ে অধিক

পশু সেই সব পশুদের।

যারা অবরোধ ও হরতালের ঘোষণা দিচ্ছে, সেই সব হুকুমদাতা ও

সেই সাথে তাদের হুকুমে যারা অবরোধ ও হরতালের নামে মানুষকে পুড়িয়ে মারছে

আমরা তাদের জন্য কঠিন নির্মম মৃত্যু কামনা করছি

তাদের জন্য নির্মম মৃত্যুর কষ্ট কাতরতা কামনা করছি।

‘অভিশাপ দিচ্ছি

ওদের তৃষ্ণায় পানপাত্র প্রতিবার

কানায় কানায় রক্তে উঠুক ভরে, যে রক্ত ওরা বইয়ে দিচ্ছে বাংলাদেশে।

অভিশাপ দিচ্ছি….

(শামসুর রহামান এর “অভিশাপ দিচ্ছি”, (ফিরিয়ে ঘাতক কাঁটা), অবলম্বনে)