ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 
20150207_113450

বোমাবাজি যে করে, বোমাবাজি যে সহে তাকে ঘৃণা করো, তাকে চিহ্নিত করো, হোক তোমার ভাই, হোক বোন, হোক জামাতা, হোক স্বজন, হোক আত্মীয়-পরিজন, তাকে সমাজ থেকে নিশ্চিহ্ন করো, তাকে শাস্তির আওতায় আনতে সহায়তা করো, হোক না সে তোমার ভাই, বোন, জামাতা, স্বজন, আত্মীয় …

আর কত বোমাবাজ ধরা পড়লে, প্রমাণিত হবে কিছু রাজনৈতিক দল বোমাবাজি করছে রাজনৈতিক আন্দোলন অবরোধ ও হরতালের পক্ষে? ধরা-পড়া-বোমাবাজদের পরিচয় জানা যাচ্ছে। তাদের রাজনৈতিক পরিচয় জানা যাচ্ছে। তারা অবরোধের পক্ষে, হরতালে পক্ষে বোমাবাজি করছে। (যেহেতু) তারা স্বীকৃত রাজনৈতিক দলের কর্মী। সরকার তাদের দলকে / বোমাবাজির জন্য শাস্তির আওতায় এখনও আনেনি। ফলে তারা রাজনৈতিক পরিচয়ে, রাজনৈতিক নাম ভাঙিয়ে / বোমাবাজি করছে, মানুষ মারছে, মানুষকে আগুনে দগ্ধ করছে। বোমাবাজি করছে রাজনৈতিক আন্দোলন অবরোধ ও হরতালের পক্ষে। রাজনৈতিক আন্দোলন অবরোধ ও হরতালের কারণে তো বোমাবাজি রাজনৈতিক মর্যাদা পেতে পারে না।

20150207_113519
বোমাবাজদের হাত থেকে মানুষ, সমাজ ও দেশকে রক্ষা করতে হলে সমাজের মানুষকে বোমাবাজদের বিপক্ষে অবস্থান নিতে হবে। আসুন, বোমাবাজি যে করে, বোমাবাজি যে সহে তাকে ঘৃণা করি, তাকে চিহ্নিত করি, তাকে সমাজ থেকে নিশ্চিহ্ন করি, তাকে শাস্তির আওতায় আনতে সহায়তা করি।
বোমাবাজকে চিহ্নিত করা কঠিন নয়। সমাজ থেকে নিশ্চিহ্ন করা, তাকে শাস্তির আওতায় আনতে সহায়তা করা কঠিন। কারণ, বোমাবাজ এই সমাজেরই নব্য রাজাকার। সে আমাদেও কারো ভাই কারো ছেলে কারো বোমাবাজদের যারা রাজনীতির পক্ষে তারা কারো / আমাদের জামাতা কারো … সেলুকাস। মানুষ, সমাজ, দেশ, জাতিকে রক্ষা করতে হলে সব কিছুর ঊর্ধ্বে উঠতে হবে। বোমাবাজদের হাত থেকে মানুষ, সমাজ ও দেশকে রক্ষা করতে হলে সমাজের মানুষকে বোমাবাজদের বিপক্ষে অবস্থান নিতে হবে। আসুন, বোমাবাজি যে করে, বোমাবাজি যে সহে তাকে ঘৃণা করি, তাকে চিহ্নিত করি, তাকে সমাজ থেকে নিশ্চিহ্ন করি, তাকে শাস্তির আওতায় আনতে সহায়তা করি।

মানব-বন্ধন, মানবতার বন্ধনকে সুদৃঢ় করতে হবে। সারা দেশের মানুষ মানবতার বন্ধনে আবদ্ধ হলে দেশজুড়ে মানব-বন্ধন করলে, সুদৃঢ়ভাবে রুখে দাঁড়ালে বোমাবাজরা পালাবার পথ পাবে না। দেশজুড়ে বাংলাদেশের মানুষকে একতাবদ্ধ হয়ে মানবতার পক্ষে দাঁড়াতে হবে।