ক্যাটেগরিঃ স্বাস্থ্য

বাবামা শিশুর প্রথম শিক্ষক, দ্বিতীয় ধাপের শিক্ষক বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ। আমি চাই দুটি ধাপেই শিশুর জন্য শিক্ষা হোক শিশুকেন্দ্রিক, শিশুর ইন্টারেস্টভিত্তিক। তবে, দ্বিতীয় ধাপের শিক্ষা কেমন হবে তাতে পুরোপুরি বাবামার হাত নেই; প্রথম ধাপে তো আছে। তাই প্রথম ধাপে প্রথম শিক্ষক মাবাবার হাতে শিশুর জন্য শিক্ষাটা শিশুকেন্দ্রিক, শিশুর ইন্টারেস্টভিত্তিক হোক না।


যদিও, কে কেন্দ্রীয় ভূমিকায় থাকবো? আমি বাবা/মা নাকি পুচকি সন্তান? দ্বন্দ্বটা এখানেই। সন্তানের কথামত না হয়ে সবজান্তা কতৃত্ববাদী মাবাবা হিসেবে যদি ভাবি, ও পুচকির কথা মতো হওয়া ঠিক হবে না। ও পুচকি কী বোঝে? ওর ভালোমন্দ তা আমাকেই বুঝতে হবে। ও কী পছন্দ করবে, কী করবে না করবে ওকি জানে? তাই বাবামা হিসেবে সব আমারই ঠিক করে দিতে হবে। আমি যা বলব, যেভাবে করতে বলব ও তা করার মধ্যেই ওর ভালো ও উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ নিহিত। আসলে এভাবেই নিহত করছি আমরা ওর বর্তমানকে। শিশু-সন্তানের ভবিষ্যতের জন্য ব্যক্তি শিশুর শৈশবকে যদি এভাবে হত্যা করি, আর যাই হোক ব্যক্তিত্বসম্পন্ন একজন মানুষ হিসেবে তাকে ভবিষ্যতে পাবো না যে এটা নির্দ্বিধায় বলা যায়, গবেষণাতেও তা-ই দেখা যায়।

শুনতে অদ্ভুত লাগতে পারে, শিশুর প্রথম শিক্ষকদের অধিকাংশেরিই শিশুকে শিখন-শেখানো বিষয়ে কোনো প্রশিক্ষণ নেই। কিন্তু তারা শিশুর প্রথম শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে যুগ যুগ ধরে। শিশুর শিখন-শেখানোয় বিশাল ভূমিকা পালন করে আসছেন এবিষয়ে প্রশিক্ষণ ছাড়াই। এরকম একটি সংবেদশীল বিষয়ে প্রশিক্ষণ ছাড়া দায়িত্ব পালন করছেন তারা কেউ কিছু বলছে না। বিদ্যালয়ের শিক্ষকের প্রশিক্ষণ থাকলেই কি বাড়িতে শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালনকারীর শিখন-শেখানোর দায়িত্ব পালন সঠিক হবে? অসম্ভব। ঘরে ঘরে অনেক মাবাবা প্রশিক্ষণ বিহীনভাবে নিজের শিশুকে ভালোবাসার ধন শিশুকে শিখন-শেখানোর কাজটি করতে গিয়ে অনেক অনর্থই করেন, কে তার খবর রাখে?

এদেশে শিশুরা খুবই ভুল পরিচর‌যায় বেড়ে ওঠে। বিদ্যালয়ে ও বাসায় দুটি জায়গাতেই ওরা ভুল পরিচর‌যার শিকার। বাবামার প্রশিক্ষণ নেই। বিদ্যালয়ের শিক্ষকের প্রশিক্ষণ থাকলেও শিশুর আচ্ছা, আগ্রহ, ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দ তাদের কাছে কতটুকু স্থান পায়? বাড়িতে তো প্রশিক্ষণবিহীন মাবাবার কাছে চাপে চাপে শিশুরা আপন মাবাবার স্যান্ডউইচ হয়ে যায়। ওদের মনের বিকাশ বাধাগ্রস্ত হয় স্বং মাবাবার হাতে তাদের অজান্তেই।
শুনতে চাই আপনার কথাও, শুনতে চাই আপনার অভিজ্ঞতাও।
শুনতে চাই আপনার কথাও, শুনতে চাই আপনার অভিজ্ঞতাও।