ক্যাটেগরিঃ খেলাধূলা

 

কয়েকদিন আগে সাবেক বিচারপতি গাজী শামসুর রহমান স্যারের লেখা “বিচারক জীবনের স্মৃতিচারন” বইয়ে একটি ঘটনা পড়লাম।আর সেই ঘটনাটি ছিল লেখকের বিচারক জীবনের সবচেয়ে বিষ্ময়কর ঘটনা!

ঘটনাটি ঘটেছিল পাবনার একটি গ্রামে!দুই সহদর ভাইয়ের মধ্যে জমিজমা নিয়ে খুব ঝামেলা চলতেছিল!ছোট ভাই বড় ভাইকে জব্দ করার জন্য দারুন একটি ফন্দি আটল!যাতে করে বড় ভাই ফেঁসে যায় এবং তাদের সমস্ত সম্পত্তি ছোট ভাই একাই ভোগ করতে পারে।

তার ফন্দিটি ছিল,নিজের মেয়েকে হত্যা করে বড় ভাইয়ের উপর দোষ চাপানো!ছোট ভাই নিজের বউয়ের চোখ ফাঁকি দিয়ে মেয়েকে হত্যা করে।তারপর বড় ভাইয়ের জমিতে পুতে রাখে।মেয়ে নিখোঁজ হয়েছে বলে,ছোট ভাই থানায় নালিশ করে।পুলিশ অনেক খোঁজাখুজির পর,বড় ভাইয়ের জমিতে সেই শিশুর লাশ খুঁজে পায়।যার কারনে পুলিশ বড় ভাই এবং তার স্ত্রীকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়।

ছোট ভাই মিথ্যা সাক্ষী সাজিয়ে বড় ভাইকে প্রায় দোষী প্রমান করে ফেলেছে।জেরা শেষে রায় ধার্যের দিন ঠিক হল।রায় ধার্যের দিনে,ছোট ভাই আদালতে তার সমস্ত অপকর্ম স্বীকার করে নিল।সে কাঠগড়ায় দাড়িয়ে বলেছিল,আমি বিবেকেরে কাছে হেরে গেলাম।তাই আর চুপ থাকতে পারলাম না।বড় ভাইয়ের ক্ষতি করতে গিয়ে আমার নিজের জীবনেরই অপূরনীয় ক্ষতি হয়ে গেল।

সেই নিষ্ঠুর ছোট ভাইয়ের মত বেকুব,আজকের কতক রাজনৈতিক ব্যক্তিরা।যারা বিরোধী দলের আন্দোলনকে দমাতে গিয়ে,দেশটাকে জঙ্গি রাষ্ট্রে প্রমান করতে উঠে পড়ে লেগে গেল।জাতিসংঘ থেকে শুরু করে বিশ্বের সবখানে জঙ্গির রসাতলে বাংলা গেল বলে চিৎকার চেচাঁমেচি করলেন।তাদের হাগডাক দেখে মনে হয়েছিল,ন্যাটোর হেলিকপ্টার বাংলার আকাশে ওড়া না পর্যন্ত তারা ক্ষ্যান্ত দিবেন না।সেই জঙ্গি অপবাদ দিয়ে বিরোধী দলকে ধরাশায়ী করতে গিয়ে আজ সরকার নিজেই ধরাশায়ী হয়ে গেছে।

এখন তারা ম্যা ম্যা করে বলছে,দেশে কোন জঙ্গি নেই(!)

কথায় আছে,“পরের জন্য গর্ত করলে,সে গর্তে নিজেকেই পড়তে হয়”।

কিন্তু অন্তর্নিহিত বিষয়টা ভেবে দেখেছেন কি?

বাস্তবিক অর্থে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে ধব্বংস করবার জন্য এতোসব ঘটছে!মিলিয়ে নিন, ঢাকায় বিদেশী কূটনৈতিকের উপর হামলা হবে,সে খবর ভারতীয় গোয়েন্দারা আগে থেকেই জানত”।[বাংলাদেশ প্রতিদিন,১ অক্টোবর]

পাকিস্তানের ক্রিকেটকে যেমন তালেবানের লেবাস পরিয়ে তামিল গেরিলার দ্বারা শ্রীলংকা ক্রিকেট টিমের উপর হামলা করিয়ে প্রায় ধব্বংস করে ফেলেছে!তেমনি বিদেশি কূটনৈতিক হত্যার অজুহাতে বাংলাদেশের ক্রিকেটকেও তারা ধব্বংস করে দিচ্ছে।

যার ফলে,আজ অষ্ট্রেলিয়া সফর বাতিল করেছে!কাল ইংল্যান্ড বাতিল করবে।পরশু নিউজিল্যান্ড বাতিল করবে।এভাবে ধীরে ধীরে বাংলাদেশের ক্রিকেট সেই নাইমুর রহমান এবং আকরাম খানদের যুদে পশ্চাদবরন করবে।আর এর মাধ্যমে ভারত তাদের সিরিজ হারের প্রতিশোধ গ্রহন করবে।

রবীন্দ্রনাথের সুরে বলতে চাই,“তুমি আমাদের বাঙালী করেছো,মানুষ কর নি”।

তাই ঘুমিয়ে না থেকে একটু সচেতন হোন।নিজের দেশকে নিয়ে ভাবুন।নিজের দেশের ভবিষ্যৎকে নিয়ে ভাবুন।নচেৎ একদিন পুরো দেশটাই আমাদের পাশ্ববর্তি দেশটির নতুন অঙ্গরাজ্যে পরিনত হয়ে যাবে।