ক্যাটেগরিঃ ব্যক্তিত্ব, হুমায়ূন আহমেদ স্মরণে

 

হুমায়ূন স্যার আজ নেই….. এটা ধ্রুবতারার মত সত্য….. আমি তার ভক্ত নই এ কথা সত্য কিন্তু তাকে ভাল লাগত। পাঠককে ধরে রাখার শক্তি তার লিখার মধ্যে আছে। তার চলে যাওয়া অনেকের কাছেই হয়ত বা অনাকাঙ্খিত। অনেকেই বিভিন্ন কথা বলা শুরু করেছেন যেমন আমাদের আইরিন সুলতানা তো দাবিই করে বসলেন রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণার। আইরিন আপুর কাছে প্রশ্ন এটাই কি আপনার প্রিয় লেখক কে সন্মান জানানোর শ্রেষ্ঠ উপাই ? এর চেয়ে কি আর কোন ভাল উপাই ছিল না বা নাই ? আমার মনে হচ্ছে এতে হয়ত বা আপনার প্রিয় লেখক কে কিছুটা সন্মান দেখানো হবে কিন্তু যার অবস্থান লক্ষ পাঠকের হৃদয়ে তাকে রাষ্ট্রীয় সন্মান দিলেই কি আর না দিলেই কি।

অনেকেই আবার বলছেন স্যারকে কবি কাজী নজরুল ইসলামের পাশে কবর দেওয়া হোক, এতে নাকি উনাকে উপযুক্ত সন্মান জানানো হবে।আমার তো মনে হয়না হুমায়ূন স্যার কে এভাবে সন্মান জানানোর প্রয়োজন আছে। স্যার নিজের প্রতিভার যে আভা রেখে গিয়েছেন আইরিনদের অন্তরে সেই রঙ্গীন আভা অম্লান থাকবে অনন্তকাল ধরে..আইরিনরা স্যারকে ভালবাসবে, শ্রদ্ধা করবে এবং বাঁচিয়ে রাখবে হিমু…রুপা…তিথিদের…….

তাই বলছি স্যারকে ভালবাসেন, তাদের ভালবাসাই স্যারের জন্য অনেক… তিনি কখনও কোন সরকারের কাছে কোন কিছুরই দাবি করেননি। তার বিশ্ব ছিল তার পাঠক..তার সিনেমা..তার নাটক প্রেমীরা…..এবং তাদের ভালবাসাই তার জন্য যথেষ্ট। লক্ষ, লক্ষ পাঠকের অন্তর যার ঠিকানা তার জন্য রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণার কোন দরকার নাই….কি দরকার প্রিয় এই মানুষটিকে সমালোচনার বস্তু বানানোর…..?