ক্যাটেগরিঃ দিনলিপি

বাবা,
তোমার মনে আছে ? কোন এক ঈদের দিনে আমি নামাজ পরতে গিয়ে ছিলাম না,তুমি নতুন জামা কিনে দাওনি বলে। সেদিন তুমি আমাকে কিছুই বলনি, শুধু তাকিয়ে ছিলে ফ্যাল ফ্যাল করে। তখন বুঝিনাই কিন্তু আজ বুঝি তোমার কষ্টটা। তুমি ইচ্ছা করলেই আমাকে অনেক জামা কিনে দিতে পারতে। তোমার কলিগদের সন্তানরা যেত ইংলিশ ইস্কুলে আর আমি যেতাম সরকারী ইস্কুলে আমার অনেক অভিমাণ ছিল এই নিয়ে। আমার মনে হত এমন বাবা যেন কারও না হয়। কিন্তু আজ, আমার কি মনে হয় জান ? আমার এই বাবা,পৃথিবীর সেরা বাবা। তুমি আদর্শবান ছিলা বলেই আমাকে কস্ট করে মানুষ হতে হয়েছে। ইস্কুল খেকে বিশ্ববিদ্যায় পর্যন্ত দিনগুলিতে যে কত কষ্টে থাকতাম তা তোমাকে বুঝাতে পারব না। টাকা থাকত না বলে ঈদে বাড়ি যেতে পারতাম না। কস্টের দিনগুলি শেষ হয়েছে, তোমার ছেলে আজ বড় হয়েছে। কষ্ট আর তোমাকে করতে হবে না ।

বাবা, তোমার কথা আমি রেখেছি তোমার মুক্তিযুদ্ধের সার্টিফিকেট দিয়ে আমাকে চাকুরী নিতে হয়নি। তুমি ৭১-এ যুদ্ধ কারেছিলে পাকসেনাদের বিরুদ্ধে আর সারা জীবন যুদ্ধ করেছ অন্যায়ের বিরুদ্ধে । তোমার শেখানো দেশপ্রেম… অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের নীতি, আমি সারা জীবন ধরে রাখব, বাবা….আমি একা একা ঈদ করছি। তোমাদের অনেক মিস্ করছি। কি করব বল…? আমি অফিস থেকে ছু্টি পাইনি। আর কিছু দিন পর আসব…আসব কিন্তু….

[ আমার বাবা ই আমার আর্দশ। তার দেশপ্রেম ও সততা আমাকে বিমোহিত করে। আমি প্রায় তার কাছে চিঠি লিখি এখনও, এটা এই মাত্র লিখলাম এখনও পোস্ট করা হয়নি, কাল পোস্ট করব। সবাই কে ঈদের শুভেচ্ছা…]