ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

আবারো ৭১ সালের আলবদর আলশামস রাজাকার গোষ্ঠীর ঘৃণ্য ঐতিহাসিক খুনে রক্তপায়ী চেহারায় আত্মপ্রকাশের ধৃষ্টতা দেখাচ্ছে জেহেলি জামায়াত-তালেবান গং। কি ভয়ংকর মূর্তিতে ওরা আবার ঝাঁপিয়ে পড়েছে দেশ রাষ্ট্র জনগনের ওপর। ঘৃন্য নরপশু আইয়ামে জাহিলিয়াতের রক্তপায়ী দেবতা গো আযম নিজামী সাঈদী কামরাজজামান কসাই কাদের মল্লার হিমালয় সমান অপরাধের বিচার ঠেকাতে ওরা এখন নৃশংস। ওরা সহিংস। ইসলামের প্রাথমিক যুগে যেভাবে মক্কার গোষ্ঠি মুসলমান এবং নবগঠিত ইসলামী জামানার বিরুদ্ধে খুনপায়ী হয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল _ সেই আবু জেহেল হারাম নাজায়েজ গোষ্ঠীর মত এই জেহেলি জামায়াত বাংলাদেশ রাষ্ট্র, গনতন্ত্র এবং স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বের ওপর ঝাপিয়ে পড়ার ধৃষ্টতা দেখাচ্ছে। ওরা বাংলাদেশ রাষ্ট্রের অস্তিত্ব কখনওই স্বীকার করে না। ওরা পাকিস্তানে বিশ্বাস করে। ওরা মুখে বাংলাদেশ রাষ্ট্রের আনুগত্য স্বীকার করার ভান করে। কিন্তু ওদের মগজ মজ্জা রক্ত মাংস সবই সাচ্চা দিল পাকিস্তানি। শুধু একদিনের নজির দেখুন। ওরা কত নৃশংস। নিষ্ঠুর নির্মম।

নাউজুবিল্লাহ! তালেবানরা কি ভয়ংকর হিংস্র দানব; অগতাগফিরুললাহ

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আটক জামায়াতে ইসলামীর নেতাদের মুক্তির দাবিতে সোমবার রাজধানী ও দেশের কয়েকটি স্থানে পুলিশের ওপর হামলা চালায় জামায়াত ও ছাত্রশিবিরের নেতাকর্মীরা। রাজধানীর মতিঝিল, পল্টন ও জিরো পয়েন্ট এলাকায় তারা শতাধিক গাড়ি ভাংচুর করে এবং পাঁচটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়।স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াত-শিবির ‘জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে’ পুলিশের ওপর হামলা চালিয়েছে।

নাউজুবিল্লাহ! তালেবানরা কি ভয়ংকর হিংস্র দানব; অগতাগফিরুললাহ

একাত্তরের মিরপুরের কসাই যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লার বিচারের রায়কে সামনে রেখে ঝটিকা মিছিলের নামে রাজপথে নেমে পাবলিকের গাড়ি ভাংচুর-প্যানিক সৃষ্টির কৌশল নিয়েছে জামায়াত-শিবির!
আজ জামাত শিবির কর্মীরা সাড়া দেশে সন্ত্রাস কায়েম করে প্রমান করেছে যে জামাত শিবির একটি সন্ত্রাসী সংগঠন। বাংলাদেশের সংবিধান আর দেশে প্রচলিত আইন অনুযায়ী কোন সন্ত্রাসী সংগঠন অবৈধ।

জামায়াত-শিবিরের তান্ডব
বাঁশখালীতে ।পুলিশের উপর হামলা, সংঘর্ষ, আহত ২০।

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার চাম্বল বাজারে জামায়াত-শিবির কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। এতে ১০ পুলিশসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সোমবার বেলা ১২টার দিকে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে অভিযুক্ত আটক জামায়াত নেতাদের মুক্তির দাবিতে বাঁশখালীর চাম্বল বাজারে আকস্মিকভাবে মিছিল বের করে জামায়াত-শিবির। এসময় পুরো এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে। লোকজন ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে দোকানপাট বন্ধ করে দেয়া শুরু করেন।

পবিত্র কুরঅনের শপথ নিয়ে বলছি

ওহে জেহেলি জামায়াতের অপজন্মিত কাফেরকুল, স্বাধীন বাংলাদেশে যেখানে ৮৫ ভাগ মানুষ সাচ্চা মুসলমান,নবীর উম্মত ;যেখানে কাফিরানা জামায়াতের কোন স্থান নেই। পাকিস্তানি কাফির ভন্ড মুসলমান ধর্ষককূল ও তাদের পাচাটা অঅলবদর আলশামস রাজাকার গোষ্টি গোলাম আযম নিজামী কাদের সাইদী নামের খুনি কাফিরানা জামায়াতকে পরাজিত করে বাংলাদেশে সাচ্ছা মুসলমানের শান্তির রাজ প্রতিষ্টা হয়েছে ।৩০ লাখ মাবোনের প্রানের বিনিময়ে। সেই দেশে হে জামায়াতি জেহেলি কাফিরানা জমায়াতকে বলছি- তোমাদের কাফিরা ফেরকা তোমাদের। আমাদের ঈমানী জজবা আমাদের। আমরা আল্লাহর সিজদা করি। তোমরা খুন খারাবি ধর্ষণ লুটপাট গনিমতের মালের দেবতা গো আযম মদুদির উপাসনা কর। ওটা শয়তানি ফেরকা। নাজায়েজ ফেরকা। আল্লাহর ধর্মে রসুলের ইসলামে খুনি ধর্শকদের স্থান নেই। আমরা আল্লাহর এবাদত করি। শান্তির এবাদাত করি। তোমরা রগকাটা ধর্ষণ নাররি কোমরে আলকাতরা মাখার প্রবর্তক সাঈদী গোলামকে নবভন্ডামির প্রবর্তক মানো। ; নারীকে কবর দেয়ার জেহেলি এবাদাত কর। লাকুম দিনুকুম ওয়া লিদিন।

জেহেলি জামায়তের অপজন্মিত কুচক্র, তেমাদের কাছে শিখতে হবে ইসলাম। শান্তির ধর্ম ইসলাম শেখাবে ইহুদি নাসারা শাইলকদের পাচাটা তাবেদার চক্র।

সূরা কাফিরুন থেকে শোন( মক্কায় অবতীর্ণ ),

আরবী থেকে বাংলা অনুবাদ

بِسْمِ اللّهِ الرَّحْمـَنِ الرَّحِيمِ
শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।

قُلْ يَا أَيُّهَا الْكَافِرُونَ

01
বলুন, হে কাফেরকূল,

لَا أَعْبُدُ مَا تَعْبُدُونَ

02
আমি এবাদত করিনা, তোমরা যার এবাদত কর।

وَلَا أَنتُمْ عَابِدُونَ مَا أَعْبُدُ

03
এবং তোমরাও এবাদতকারী নও, যার এবাদত আমি করি

وَلَا أَنَا عَابِدٌ مَّا عَبَدتُّمْ

04
এবং আমি এবাদতকারী নই, যার এবাদত তোমরা কর।

وَلَا أَنتُمْ عَابِدُونَ مَا أَعْبُدُ

05
তোমরা এবাদতকারী নও, যার এবাদত আমি করি।

لَكُمْ دِينُكُمْ وَلِيَ دِينِ

06

তোমাদের কর্ম ও কর্মফল তোমাদের জন্যে এবং আমার কর্ম ও কর্মফল আমার জন্যে।

সুতরাং বাংলার ইসলামী ও অন্য ধর্মাবলম্বীদের পবিত্র মাটিতে বেইমানদের জায়গা নেই। তোমরা খুনখারাবা ধর্ষণ করে ৭১ এ তোমাদের নগ্ন নিষ্ঠুর চেহারা দেখিয়েছো। আবার এখন নতুন করে জেহিলি আলবদর আলশামস চেহারাদেখাচ্ছ। তোমরা বাংলার মাটিতে আমাদের মহান ধর্মকে কলঙ্কিত করা চেষ্টা করেছো। আর তোমাদের তা করতে দেয়া হবে না।