ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

ভারতীয়রা কতটা মানুষ সেটা বিএসএস-এর বর্ডার কিলিং দেখলেই বোঝা যায় । বিএসএফ বাংলাদেশী সীমান্তে যে ভাবে নির্বিচারে মানুষ হত্যা করছে তা মধ্য যুগের অসভ্যতা আর বর্বরতাকেও হার মানায় । ভারতীয়রা যে অসভ্য জনজাতি তা বিএসএফ বিশ্ববাসীকে বুঝিয়ে দিয়েছে ।.

ভারত সরকার বার বার বলছে বর্ডার কিলিং আর হবে না তার পরও কিলিং করে দিল্লী প্রমাণ করেছে যে ভারতীয়রা টাউট-বাটপার । কেউ অপরাধ করলে তাকে আদালতের মাধ্যমে শাস্তি দিতে হয় । যত বড় অপরাধীই হোক তাকে নির্বিচারে গুলি করে হত্যা করার তো কোনও বিধান থাকতে পারে না ।

আমেরিকান- বৃটিশরাও তাদের দেশের সীমান্তে স্মাগ্লার তথা অবৈধ অনুপ্রবেশকারীদের গুলি করে হত্যা করে না । এই ভাবে নির্বিচারে হত্যা করা অসভ্যদের কাজ । আমেরিকান-বৃটিশরা তো আর ভারতীয়দের মতো অসভ্য তথা বর্বর জাত নয় ।

ভারতীয় কোনও নাগরিককেও এই নির্বিচারে বর্ডার কিলিং-এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে দেখা যায় না । এতে প্রমাণ হয় যে এই বর্ডার কিলিং-এর পেছনে ভারতীয় নাগরিকদেরও সমর্থন রয়েছে । ভারতীয়রা দিল্লী আর বিএসএফ-এর অসভ্যতার সাথে মিলে মিশে একাকার হয়ে গেছে ।

বিঃদ্রঃ- যেই ভারতীয়রা বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজ করেছেন সেই ভারতীয়রা আমার এই পোস্টের টার্গেটের বাইরে । তাদের প্রতি আমি সর্বদা শ্রদ্ধাশীল ।