ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

দেরিতে হলেও বিশ্ব বানিজ্য কেন্দ্র শেষ পর্যন্ত হলো । এবার হয়তো চট্টগ্রাম সত্যি সত্যিই দেশের বানিজ্যিক রাজধানী হতে যাচ্ছে । সেই ছোট বেলা থেকে শুনে আসছি বানিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রাম, শিল্প নগরী খুলনা- কিন্তু বাস্তবে সবই কথার কথা। বাস্তবে দেশের সবই ঢাকা কেন্দ্রীক । নিয়ম অনুযায়ী ব্যবসা ও শিল্প প্রতিষ্ঠান গুলোর প্রধান কার্যালয় বানিজ্যিক রাজধানীতেই থাকার কথা । এই মর্মে সরকারে ভূমিকাও আবশ্যক । সরকার চাইলে অনেক কিছুই করা সম্ভব হয় ।

অন্য দিকে খুলনা নগরী নাকি শিল্প নগরী- আর শিল্প হলো সব ঢাকায় । আচ্ছা এক্সপোর্টার শিল্প-কারখানা গুলোর রাজধানীতে কি কাজ ? যেই দেশে দুটো সামুদ্রিক বন্দর ভিত্তিক নগরী রয়েছে সেই দেশের রাজধানীতে এত মিল-ফ্যাক্টরী কেন ? মানুষের ঠেলায় ঢাকার রাস্তায় হাঁটা যায় না । খুলনার মতো এমন চমৎকার সম্ভাবনাময় স্থানকে কাজে না লাগিয়ে ঢাকার বারোটা বাজানোর কি কোনো মানে হয় ? খুলনায় সুপরিকল্পিত ভাবে বিশাল বিশাল শিল্পাঞ্চল গড়ে তুলে সকল রফতানিকারী মিল-কারখানা ঢাকা থেকে ওখানে স্থানান্তরিত করে দিন । এই ভাবেই বাংলাদেশ সমৃদ্ধ হবে ।

ঢাকার শিল্প-কারখানা চট্টগ্রাম ও খুলনায় সরিয়ে দিতে পারলে দ্রুত এই দুটি শহর মেগা সিটিতে পরিণত হবে । তখন মানুষ শুধু ঢাকার দিকে ছুটবে না । বরং ঢাকার বড় একটা জনসংখ্যা ঐ দুটি শহরের চলে যাবে । অনেক বেশি মেগা সিটি বিদেশে দেশের ভারসাম্য বৃদ্ধি করে । শুধু অবাসযোগ্য এক ঢাকাকে ধরে বসে থাকলে হবে না । দেশের উন্নতির জন্য নিকেন্দ্রীকরণ অত্যাবশ্যক । বিশ্বের প্রায় সব দেশেরই বন্দর নগর গুলো বেশি উন্নত থাকে শুধু বাংলাদেশের বেলায় তা ব্যাতিক্রম । এর জন্য প্রশাসনিক উদাসিনতাই মূলত দায়ী । বর্তমানে একটি দায়িত্বশীল সরকার দেশ পরিচালনা করছে, এই সব বিষয়ে এই সরকার সুদৃষ্টি দেবে বলেই আমার বিশ্বাস ।