ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ কি ভাবে হবে বঙ্গবন্ধু ভারতের সাথে পরামর্শ করে সেই রণকৌশল আগেই প্রস্তুত করে রেখেছিলেন । পাকিস্তানের কাছে ভালো গুপ্তচর না থাকায় বঙ্গবন্ধুর রণকৌশল সম্মন্ধে দেশটির সরকার একেবারেই অবগত ছিল না ফলে বাঙালি মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে পাকিস্তানের সুসজ্জিত সেনা বাহিনী দ্রুত পরাজয় বরণ করতে বাধ্য হয় । বঙ্গবন্ধুর রণকৌশল যদি পাকিস্তান জেনে ফেলতো তাহলে হয়তো তাদের রণকৌশল অন্য রকম হতো ।

গোয়েন্দার অভাব বুঝতে পেরে পাকিস্তান (Inter-Services Intelligence) আইএসআই-এর জন্ম দেয় । পাকিস্তান পন্থী জামাত-বিএনপির সাহায্যে আইএসআই যে তাদের তৎপরতা চালাচ্ছে এই ধারনা আমার অনেক আগে থেকেই ছিল । ৭১-এ পাকিস্তানের পরাজয়ের প্রতিশোধ নিতে সংস্থাটি বাংলাদেশ ও ভারতের বিরুদ্ধে বিশেষ ভাবে কাজ করে থাকে । বাংলাদেশ ও ভারতে আইএসআই-এর প্রধান কাজ হলো দেশ দুটির সামরিক তৎপরতার ওপর দৃষ্টি রাখা, দুটি দেশের স্থিতিসশীলতা নষ্ট করা, বাংলাদেশ ভারতের সম্পর্ক খারাপ করে দেওয়া ইত্যাদি । বাংলাদেশ স্বাধীন হয়ে ভুল করেছে এই কথা প্রমাণ করার দায়িত্ব ও আইএসআই কে দেওয়া হয়েছে ।

আর এই কাজ সফল করতেই সংস্থাটি জামাত-বিএনপি কে দাবার ঘোড়া হিসেবে ব্যবহার করছে ।

আপনারা লক্ষ করে থাকবেন খালেদা জিয়ার ক্ষমতায় আসার আগ পর্যন্ত সীমান্তে কাটা তারের বেড়া দেওয়ার কথা ভারত চিন্তাও করতো না । আইএসআই বাংলাদেশের মাধ্যমে ভারতে জঙ্গী কর্ম-কান্ড চালিয়ে সীমান্তে কাটা তারের বেড়া দিতে ভারতকে বাধ্য করেছে । এই অর্থে সংস্থাটি অনেকটা সফল বলা যায় ।

জামাত বিএনপির আমলে সরকারের ইচ্ছায় বাংলাদেশ গোয়েন্দা সংস্থার সাথে আইএসআই-এর একটা গভীর সম্পর্ক গড়ে ওঠে । বর্তমান সরকার গোয়েন্দা সংস্থাকে কতটা ঢেলে সাজাতে পেরেছে সেটা আমার কাছে পরিস্কার নয় । তবে বাংলাদেশ গোয়েন্দা সংস্থা যে তার মিশনে ব্যর্থ হচ্ছে তাতে কোনো সন্দেহ নেই ।

সরকার যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করছে এটা একাত্তরের পরাজিত চক্রের কাছে মোটেও তৃপ্তি দায়ক নয় । পরাজিতরা এই বিচারকে নিজেদের জন্য অপমান জনক মনে করছে । তাই তাঁরা এই সরকারকে বিচার শেষ হওয়ার আগেই উৎখাত করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত । নিহত হওয়া সৌদী কূটনীতিক সেই ষড়যন্ত্রেরই শিকার ।

সরকারের নিরাপত্তার ব্যাপারে সুকৌশলি হতে হবে নইলে বড় রকমের বিপদ আসন্ন । আমরা জানি সৌদী আরব, পাকিস্তান ও জামাতে ইসলামী এই তিন পক্ষ বাংলাদেশের স্বাধীনতার প্রধান বিরোধী । অতএব, বাংলাদেশে সৌদী ও পাকিস্তানের সকল মিশনের ওপর কড়া নজরদারী একান্ত প্রয়োজন । কোনো কারনে কোনো দেশের কাছে বাংলাদেশের নত হয়ে থাকার কোনো যৌক্তিকতা নেই । যেই জাতি স্বাধীনতার জন্য যুদ্ধ করতে পারে সেই জাতি কারো সামনে নত হয়ে থাকতে পারে না ।