ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

 

আমার মতো অনেকেই ফার্মেসী পেশাটাকে সোনার হরিণ ভেবে ফার্মেসী পড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। কিছু দিন পরে যখন সত্যি অনুধাবন করতে শুরু করলেন তখন নিশ্চই আর কিছুই করার ছিলনা। অন্যান্য উন্নত দেশের মতো বাংলাদেশে ফার্মেসী প্র্যাকটিস হয়না। সত্যি কথা বলতে কি বাংলাদেশে ফার্মেসির কানাকড়িও প্র্যাকটিস হয়না। ফার্মেসীর মূল প্র্যাকটিস হল হসপিটাল ও কমিঊনিটি ফার্মেসীতে। ইনডাস্ট্রিয়াল ফার্মেসী হল ফার্মেসীর সবচেয়ে অজনপ্রিয় পেশা। অথচ বাংলাদেশ সবচেয়ে অজনপ্রিয় ও অবহেলিত পেশাটিকেই আকড়ে ধরে আছে। বাংলাদেশে ফার্মেসী বলতে ইনডাস্ট্রিয়াল ফার্মেসীকেই বুজায়। দু’চোখে অনেক সপ্ন নিয়ে যারা ফার্মেসী পড়া শুরু করেছিলেন তাদের এখন এই অবহেলিত ও অজনপ্রিয় পেশাকেই বেছে নিতে হবে। কোন উপায় নেই। তবে যারা একেবারেই নাছোড়বান্দা তাঁরা ইচ্ছা করলে উন্নত দেশ গুলোতে গিয়েও ফার্মেসীর জনপ্রিয় পেশাগুলোকে বেছে নিতে পারেন। যুক্তরাজ্য,কানাডা, অস্ট্রেলিয়া সহ বিশ্বের অনেক উন্নত দেশে রয়েছে বাংলাদেশী ফার্মাসিস্টদের জন্য অপার সম্ভাবনা। কিন্তু তার জন্য চাই অনেক ধৈর্য অনেক পড়াশোনা এবং বেশ কিছু টাকা। তবে কিছু কিছু দেশে ফার্মেসী প্র্যাকটিস করার জন্য রেজিস্টার্ড হওয়া তুলনামূলক ভাবে অনেক সহজ।

আমি অন্য একটি ব্লগে যুক্তরাজ্যের কথা লিখেছি। আজ লিখব সৌদি আরবের কথা। উন্নত দেশগুলোতে রেজিস্টার্ড হতে গেলে অনেক কাঠখড় পোহাতে হয়। সে হিসাবে সৌদি আরবে ফার্মেসী প্র্যাকটিস করা অনেক সহজ। যুক্তরাজ্যে ফার্মেসী প্র্যাকটিস করতে গেলে যেমন GPhC এর সাথে রেজিস্টার্ড হতে হয় তেমনি সৌদি আরবের জন্য রয়েছে SCHS। রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া বাংলাদেশ অথবা সৌদি আরব দুই জায়গা থেকেই শুরু করা যায়। আপনি যদি বাংলাদেশে থাকেন বনানীতে অবস্থিত American Alumni Association (AAA) – এ একটি পরীক্ষা দিতে পারেন।

ঠিকানাঃ
American Alumni Association
House 145, Street 13B
Banani 1213
Dhaka,
Bangladesh

সেখানে SCHS –এর হয়ে Prometric নামক একটি টেস্টিং সেন্টার আপনার পরীক্ষা নিবে। তার জন্য ৯০ ডলারের বিনিময়ে সিডিউলিং/রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। দুভাবে সিডিউলিং/রেজিস্ট্রেশন করা যায়ঃ
1. অনলাইনের মাধ্যমে টাকা পরিশোধ ও ফরম পূরণের মাধ্যমে,
2. ডাকযোগে ব্যাংক ড্রাফটের মাধ্যমে টাকা পরিশোধ ও ফরম পূরণের মাধ্যমে (অপেক্ষাকৃত সহজ ও ঝুঁকিমুক্ত)

বিস্তারিত জানতে এই ওয়েবসাইটে গিয়ে FOR TEST TAKERS হেডিং থেকে “Academic, Professional, Government & Corporate” সিলেক্ট করুন। তারপর নিচের মেনু থেকে “Saudi Commission for Health Specialties” সিলেক্ট করুন।

আপনি যদি ব্যাংক ড্রাফটের মাধ্যমে সিডিউলিং করতে চান তাহলে যে পেইজটি আসবে তার নিচের দিকে “Frequently Asked Questions about the SCHS Test” ও “Registration Form” ডাউনলোড করুন।

আপনি যদি অনলাইনের মাধ্যমে সিডিউলিং করতে চান তাহলে যে পেইজটি আসবে তার উপরে “GET STARTED” অথবা “START” বাটনে ক্লিক করুন। যে পেইজটি আসবে তার “Program Name” হেডিং থেকে “Saudi Commission for Health Specialties (non-elig)” সিলেক্ট করুন। Non-eligible এর অর্থ হচ্ছে আপনি সৌদি আরবের বাইরে অবস্থান করছেন। আপনি যদি বাংলাদেশে আবস্থান করেন তাহলে Country হেডিং থেকে Bangladesh সিলেক্ট করুন। তারপর Next বাটনে ক্লিক করুন। তারপর যে পেইজটি আসবে সেখান থেকে Schedule an Appointment সিলেক্ট করে পরবর্তী ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

Appointment Selection হেডিং থেকে Pharmacy Specialist সিলেক্ট করে Next বাটনে ক্লিক করুন। Test Center Selection এর সার্চ বারে Banani লিখে সার্চ বাটনে ক্লিক করুন। একটি গুগুল ম্যাপ-এর বাম পাশে “8815: DHAKA, BANGLADESH #8815” এড্রেসটি দেখাবে। এতে ক্লিক করলে আপনার টেস্ট সেন্টারের ঠিকানা সহ “Schedule an Appointment” দেখাবে, এতে ক্লিক করুন। পরের পেইজটির নাম Date and Time Selection। আপনার পছন্দের একটি মাস ঠিক করে Go বাটনে ক্লিক করুন এবং সম্ভাব্য তারিখ ও সময় নির্বাচন করে নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন।

পরের পেইজটির নাম Additional Information, এখানে আপনার প্রয়োজনীয় সব ইনফরমেশন বসিয়ে Next বাটনে ক্লিক করুন। Payment Option-এ Visa অথবা Master Card সিলেক্ট করে আপনার ক্রেডিট কার্ডের কোড ও এক্সপাইরেশন ডেইট দিন। কারো ক্রেডিট কার্ড না থাকলে বুয়েটের আশে পাশে কিছু দোকান তাদের হয়ে পেমেন্ট করে দেয়। এক্ষেত্রে তাদের একটা নির্দিষ্ট ফী দিতে হয়।

Appointment Verification হওয়ার পর নির্দিষ্ট দিনে আপনার পরীক্ষা হবে। পরীক্ষার সময় সাধারণত দুই ঘন্টা হয়। MCQ পদ্ধতিতে ৭০ নম্বরের পরীক্ষার সিলেবাস রেফারেন্স বই SCHS এর ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। পরীক্ষায় অকৃতকার্য হলেও বছরে তিনবার পর্যন্ত পরীক্ষা দেওয়া যাবে। পরীক্ষায় পাস করলে সৌদি আরবে ঢুকার জন্য ভিসা প্রোসেসিং করা সহজ হবে। দুই বছরের চাকুরীর অভিজ্ঞতা থাকলে সব একাডেমিক কাগজ পত্র, বাংলাদেশ ফার্মেসী কাউন্সিলের রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট এবং কম পক্ষে দুই বছরের চাকুরীর অভিজ্ঞতার সার্টিফিকেট নিয়ে সৌদি আরব যেতে হবে। সেখানে গিয়ে আপনাকে একটি BLS (Basic Life Support) কোর্স করতে হবে এবং সমস্ত ডকুমেন্ট SCHS বরাবর জমা দিতে হবে। SCHS আপনার সমস্ত কাগজ পত্র দেখে আপনাকে রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট দিবে।

তারপর আপনি সৌদি আরবের একজন গর্বিত রেজিস্টার্ড ফার্মাসিস্ট হিসাবে চাকুরী করতে পারবেন। আপনি রিটেইল ফার্মেসি অথবা হসপিটাল ফার্মেসী দুই জায়গায়ই কাজ করতে পারবেন। রিটেইল ফার্মেসিতে চাকুরী করলে বেতন একটু কম হতে পারে, এভারেজ বেতন ৩৫০০ রিয়াল। আবার আপনি রিটেইল ফার্মেসিতে ভালো করতে পারলে এবং বড় কোন চেইন ফার্মেসীতে চাকুরী করতে পারলে বেতন অনেক আকর্ষণীয় হবে। অন্যদিকে হসপিটাল ফার্মেসির বেতন অনেক ভালো। রিটেইল ফার্মেসীর মতো এতো খাটুনীও নেই। অনেক ছুটি পাওয়া যায়। সৌদি আরবের অনেক হসপিটাল বিদেশী কম্পানীর মালিকানায় চলে। সুতরাং সেখানে বেতনও অনেক আকর্ষনীয়। এভারেজ বেতন ৫০০০ রিয়াল, তবে ভালো হসপিটালে বেতন আরো অনেক আকর্ষণীয়।