ক্যাটেগরিঃ স্বাধিকার চেতনা

 

জাতির অন্যতম উপাদান হলো ভাষা।একটি সমৃদ্ধি ভাষা একটি জাতির উন্নতির মুল সোপান। একটি জাতি বিশ্ব দরবারে রুপ লাভ করার মুল হাতিয়ার হলো ভাষা। কেননা সুচিন্তার সুস্পষ্ট প্রকাশই জাতির পথপ্রদর্শক ও উন্নতির মূল শর্ত। যে কোন জাতি তার আশা আকাঙ্কা, ব্যবসা বাণিজ্য, জ্ঞানচর্চা ইত্যাদি সকলকিছু তার মাতৃভাষায় করে থাকে।মাতৃভাষা যে ভাষা মানুষ তার মায়ের মুখ থেকে শুনে শেখে। আর এভাবে শেখা ভাষাটি হয়ে ওঠে মানুষের জাতীয় জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।
একজন মানুষের অস্থিত্বকে ধবংস করতে হলে তার যেমন প্রান নাশের প্রয়োজন আছে।তেমনি একটা জাতিকে ধবংশ করতে নিশ্চত করার জন্য তার ভাষা,শিক্ষা ও সংস্কৃতিকে যা বিশ্ব দরবারে তার পরিচয় নির্ধারণী হিসেবে কাজ করে।
বাঙালি জাতিকে ধ্বংস করার জন্য তৎকালীন পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকার বাঙ্গালী জাতির শিক্ষা ও সংস্কৃতিকে ধবংসের চেস্টা চালায় এ ধ্বংস যজ্ঞের শুরুতেই তারা আঘাত করে বাংলা ভাষার উপর। পাকিস্তান সরকার ঘোষনা করে যে উর্দূই হবে একমাত্র রাষ্ট্র ভাষা। কিন্তু বাঙ্গালীরা প্রতিবাদ করে এবং বাংলাকে রাষ্ট্র ভাষা করার লক্ষ্যে ১৯৪৮ সাল থেকেই আন্দোলন শুরু করে।

১৯৪৮-১৯৫২ সাল পর্যন্ত চলমান এই আন্দোলনের চূড়ান্ত রূপ ছিল ১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারি যা ইতিহাসে “ভাষা আন্দোলন” নামে খ্যাত। এই আন্দোলনে একটি তাৎপর্যপূর্ণ অংশ হলো ১৯৫২ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি সর্বদলীয় রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদের এক সভায় সিদ্ধান্ত হয় যে ২১শে ফেব্রুয়ারি ভাষা দিবস ও হরতাল পালন করার। কিন্তু পাকিস্তানি সরকার আন্দোলনের তীব্রতা আচ করতে পেরে এবং জনরোষের ভয়ে ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে ১ মাসের জন্য ঢাকা জেলার সর্বত্র ১৪৪ ধারা জারির ঘোষনা দেয়। কিন্তু ১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারির সকালে উত্তাল ছাত্র সমাজ ১৪৪ ভেঙ্গে রাজপথে নামলে পুলিশ নির্মমভাবে গুলিবর্ষন করে যার ফলে প্রাণ হায়ার বাংলার অকুতভয় বীর সেনানীরা। পিচ ঢালা পথে বিছিয়ে দেয়া হয় রক্তের লাল গালিচা যে গালিচায় পা রেখে মাতৃভাষা বাংলা রাষ্ট্রভাষার মর্যাদা লাভ করে।
যদিও বাঙালিরা ১৯৭১ সালের ২৬;শে মার্চ স্বাধীনতা দিবস ঘোষনা করে এবং ৯ মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে ১৬ ই ডিসেম্বর বিজয় লাভ করেকিন্তু প্রকৃত অর্থে ১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারি পরোক্ষভাবে স্বাধীনতার ঘোষনা ঘোষিত হয়েছিল।
১৯৫২ সালের ২১শ ফেব্রুয়ারি বাঙালি জাতি রাজপথ রক্তে রন্জিত করার মাধ্যমে স্বাধীনতার বীজ বপন করে ছিল।আর ১৯৭১ সালে স্বাধীনতার বীজি অঙ্কুরোদগমের মাধ্যমে ১৬ ডিসেম্বর বিজয় ছিনিয়ে এনেছে বাঙালি জাতি। তাই ১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারি বাঙালি জাতি এক অবিচ্ছেদ্য অংশ।কাজেই বলা যায় শুধু ৯ মাসেই নয় স্বাধীনতার শুরু ১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারি থেকে।