ক্যাটেগরিঃ দিনলিপি

শীত আসলেই অপেক্ষায় থাকতাম কখন ভাইফোঁটা আসবে। দিদি ভোর হতেই বাটিতে করে কুয়াশার জল রাথত,দূর্বা তুলত, ফুলের সাজিতে ফুল রাখত। আমি বসে থাকতাম। ভাইফোঁটা মানেই অনেক খাওয়া, দিদির হাতের মোয়া, নাড়ু, পায়েস। দিদি যখন ভাইফোঁটা দিত আমার চোখে জল চলে আসত এই ভেবে আমি কত ভাগ্যবান আমার একটা দিদি আছে।
সময় বড় নিষ্ঠুর । দিদি আর আমি এখন এক শহরে থাকি না। তবে এখনও ভাইফোঁটার দিন আসলে দিদি মুঠোফোনে কথা বলে। আমি বুঝতে পারি দিদি ওপাশে কাঁদছে। দিদিরা বুঝি এমনই হয় !