ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

ছোটবেলা থেকেই বড়দের মুখে একটা কথা প্রায়ই শুনতাম —- আল্লাহ তাঁর প্রিয় বান্দাকে তারা তারি তাঁর কাছে নিয়ে যান , তাঁর প্রিয় বান্দার প্রতি সব সময় সদয় থাকেন । এর প্রমাণ আগেও পেয়েছি আজ আবার পেলাম ।————

আমাদের শহীদ রাজীব হায়দার নাস্তিক ছিলেন নাকি আস্তিক ছিলেন আমি জানিনা (জানার কৌতূহল নেই ) তবে আজ এতোটুকু বুঝতে পাড়ছি তিনি আল্লাহর প্রিয় বান্দা ছিলেন আর সে কারণেই খোদা তাকে তাড়াতাড়ি তাঁরা কাছে নিয়ে গেছেন, তিনি শহীদের মৃত্যু বরণ করেছেন , গোটা পৃথিবী তার জন্য কাঁদছে । মরেও সে অমর হয়ে গেছে ।——

এইবার জামাত –শিবির ও তাদের দোসরদের বলছি — শহীদ রাজীব হায়দারকে তোরা রাতের অন্ধকারে চোরের মতো মেরেছিস কিন্তু, আল্লাহ তার শেষ যাত্রাটা নির্ধারণ কোরে রেখেছিলো বীরের মতো ( ধর্মের কোথা অনুযায়ী , জগতের সব কিছুই নাকি পূর্ব নির্ধারিত) একজন নাস্তিকের জানাজায় শামিল হয়ে ছিল লক্ষ্য লক্ষ্য বাঙালী তথা পুরো বাঙালী জাতী, তোদের মতো কতো গুলা পাকিস্তানী কুত্তা ছাড়া ।এখন চিন্তা কইরা দেখ নাস্তিক, নাফরমান , বেদীন কারা ।

শহীদ রফিক , সালাম, জব্বার বরকতদের রক্তের বিনিময়ে আমরা ভাষা পেয়েছী, লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি ,শহীদ রাজীবের রক্তের বিনিময়য়েও কি আমরা যুদ্ধাপরাধী মুক্ত, রাজাকার মুক্ত,গণতান্ত্রিক একটা সুস্থ ,সুন্দ্র বাংলাদেশ পাবো না ? মাননীয় সরকার ও দেশের হর্তা –কর্তারা, আপনারা কি শুনতে পাচ্ছেন ? আর কতো রক্ত হলে এই জাতীটা শুদ্ধ হবে? কতো ———-?