১।  নাগরিক সাংবাদিক নন? নিবন্ধন করুন
২। কী প্রকাশ করবেন?
৩। কী ধরনের এবং কীভাবে ভিডিও পোস্ট করবেন?
৪। ফটোপোস্ট কীভাবে করবেন?
৫। আপনার নাগরিক প্রতিবেদন প্রকাশের জন্য জমা দিয়েছেন?
৬। মন্তব্য করছেন?
৭। তথ্যসূত্র ও মৌলিক প্রতিবেদন
৮। ভাষা ও বানান সচেতনতা
৯। সহায়িকার নীতিমালা মেনে চলুন

 

  নাগরিক সাংবাদিক নন? নিবন্ধন করুন 

আপনি নাগরিক সাংবাদিক না হয়ে থাকলে এখনই নিবন্ধন করুন বাংলাদেশে নাগরিক সাংবাদিকতা ভিত্তিক প্লাটফর্ম ব্লগ ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে।

নিবন্ধন ফরমে থাকা নির্দেশনা অনুসরণ করে সকল তথ্য সঠিকভাবে দিন।  অসম্পূর্ণ তথ্য হলে বা নির্দেশনা অনুসরণ না করা হলে আপনার নিবন্ধন বাতিল হয়ে যাবে।

ফরম পূরণ করার পর অনুমোদনের জন্য জমা দিন। ফরম জমা দেওয়ার পর ইমেইল ভেরিফিকেশনের জন্য সঙ্গে সঙ্গে আপনার কাছে একটি অটো-নোটিফিকেশন চলে যাবে।

অটো-নোটিফিকেশন পেতে নিবন্ধন ফরমে দেওয়া আপনার ইমেইলের ইনবক্স (প্রয়োজনে জাঙ্ক ফোল্ডার) দেখুন। ইমেইলে থাকা লিংকে ক্লিক করে আপনার ইমেইলটি নিশ্চিত করুন।

ইমেইল নিশ্চিত হওয়ার এই প্রক্রিয়ার পরই ব্লগ সম্পাদনা টিম আপনার নিবন্ধন ফরম দেখবেন।

চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য অপেক্ষা করুন। আপনার অনুমোদন নিশ্চিত হলে একটি স্বাগত ইমেইল পাবেন।

চূড়ান্ত অনুমোদন হলেই আপনি এই প্লাটফর্মে  ইউজার নেইম-পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে লগইন করতে পারবেন এবং যে কোনো পোস্ট ও মন্তব্য করতে সক্ষম হবেন।

নিবন্ধন অনুমোদন হলে লগইন করার পর আপনার প্রোফাইলে একটি ছবি যুক্ত করুন।

কী প্রকাশ করবেন

নাগরিক সাংবাদিকতা ভিত্তিক এই প্লাটফর্মে গল্প-কবিতা-ছড়া-উপন্যাস প্রকাশ করা হয় না। তবে সাহিত্য বিষয়ক আলোচনা-সমালোচনা, গ্রন্থ পর্যযালোচনা, সাক্ষাৎকার এবং নাগরিক প্রতিবেদন স্বাগত।

নাগরিক প্রতিবেদনে  নিজের অভিজ্ঞতা থেকে নাগরিক সমস্যা তুলে ধরার সুযোগ করে দিতেই এই প্লাটফর্ম। পাশাপাশি অন্যান্য ঘটনা-অনুষ্ঠান নিয়ে নাগরিক প্রতিবেদনও হতে পারে।

লিখতে পারেন ভ্রমণ কাহিনী; ঐতিহাসিক  স্থান, প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন,  দর্শনীয় স্থাপত্য, পুরনো ভবন, সমুদ্র সৈকত, যে কোনো ধর্মীয় স্থান, পাহাড়-পর্বত, দ্বীপ, বন, জলাবন, ঝর্ণা, নদী-হৃদ-হাওড়, ঐতিহ্য-সংস্কৃতি-উৎসব,  খাদ্যাভাস, বিখ্যাত বাগান, বিখ্যাত  ব্যক্তিদের স্মৃতি বিজড়িত স্থান, বিলুপ্তপ্রায় ঐহিত্য, ঐতিহ্যবাহী খেলাধুলা, ব্যতিক্রমধর্মী জীবনাচার-জীবিকা-পেশা, উৎসব ইত্যাদি যে কোনও বিষয় যা ভ্রমণ পিপাসুদের আকর্ষণ করে।

চলচ্চিত্র পর্যযালোচনা, সাক্ষাৎকার, সিনেমা হল নিয়ে নাগরিক প্রতিবেদন স্বাগত।

এছাড়াও সমসাময়িক বিষয়ে তথ্যবহুল এবং বস্তুনিষ্ঠ  নাগরিক মতামতও প্রকাশ করা হয়।

নাগরিক সমস্যা ও অন্যান্য নাগরিক প্রতিবেদনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ছবি সংযুক্তি কাম্য। ছবি অবশ্যই আপনার নিজের ধারণ করা হবে।

আপনার পরিচিত কারো ধারণ করা ছবি যদি একান্তই ব্যবহার করতে হয়, তবে তার নাম ছবিসূত্র হিসেবে উল্লেখ করা আবশ্যক। এক্ষেত্রে উক্ত ব্যক্তির অনুমতি নিয়েই তার তোলা ছবি ও তার নাম যোগ করুন।

 

কী ধরনের এবং কীভাবে ভিডিও পোস্ট করবেন?

নাগরিক সমস্যা, সাক্ষাৎকার, ‘ট্রাভেলগ’ বা আপনার ভ্রমণের ভিডিও প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

নাগরিক সমস্যা হিসেবে আপনার এলাকার বা চলতি পথে সড়কে অনিয়ম, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, পানি সঙ্কট, নদী দূষণ নিয়ে নাগরিক অভিযোগ ইত্যাদি ভিডিও প্রতিবেদনে তুলে ধরা যায়।

যে কেনো নাগরিক সমস্যার পাশাপাশি ঐতিহাসিক  স্থান, প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন,  দর্শনীয় স্থাপত্য, পুরনো ভবন, সমুদ্র সৈকত, যে কোনো ধর্মীয় স্থান, পাহাড়-পর্বত, দ্বীপ, বন, জলাবন, ঝর্ণা, নদী-হ্রদ -হাওড়, ঐতিহ্য-সংস্কৃতি-উৎসব, খাদ্যাভাস, বিখ্যাত বাগান, বিখ্যাত  ব্যক্তিদের স্মৃতি বিজড়িত স্থান, বিলুপ্তপ্রায় ঐহিত্য, ঐতিহ্যবাহী খেলাধুলা, ব্যতিক্রমধর্মী জীবনাচার-জীবিকা-পেশা, উৎসব ইত্যাদি যে কোনও বিষয় যা ভ্রমণ পিপাসুদের আকর্ষণ করে এবং পর্যটন স্থান হিসেবে প্রচারণা ও জানার আড়ালে রয়ে গেছে -আপনার এলাকার অথবা বাড়ির পাশের এমন স্থান নিয়েও ভিডিও প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

(ক) ভিডিও ধারণে কী কী বিষয় খেয়াল রাখতে হবে?

মোবাইল জার্নালিজম বা  ‘মোজো’ চর্চায় আপনার হাতের মোবাইল ফোন দিয়েই ভিডিও প্রতিবেদনের জন্য ফুটেজ নিতে পারেন।

বিষয়বস্তু নির্ধারণ করে এর ছবি তুলুন ১০ সেকেন্ড করে ভিডিও ধারণ করুন ফ্রেম স্থির রেখে।

ভিডিও ধারণ করার সময় ক্যামেরা ফোন যেন না কাঁপে সে জন্য ট্রাইপড ব্যবহার করতে পারেন। সেলফি স্টিককেও মনোপড হিসেবে কাজে লাগানো যেতে পারে।  আপনার ক্যামেরা-ফোন কোনো টেবিল অথবা ছোট দেয়ালের উপর রেখেও ভিডিও ধারণ করতে পারেন।

ক্যামেরা ভার্টিকেল বা উল্লম্বভাবে ধরে ছবি-ভিডিও ধারণ করলে ভিডিওতে দু’পাশে কালো ফ্রেম দেখা যায়। তাই ভিডিও করা বা ছবি তোলার সময় ক্যামেরা-ফোন হরাইজনটাল বা আনুভূমিক রাখুন।

ভিডিও করা সম্ভব না হলে ভালো মানের একাধিক ছবি ধারণ করতে পারেন। একাধিক ছবি সাজিয়েও একটি ভিডিও প্রতিবেদন করা যেতে পারে।

ভিডিওচিত্রে আপনি নিজেও উপস্থিত থাকতে পারেন (সেফলি বা অন্যকারো ধারণকৃত)। তবে আমাদেরকে পাঠানো ফুটেজে আপনার উপস্থিতি যেন একাধিকবার না হয়।

আপনার ধারণকৃত ও পাঠানো আলোকচিত্র ও ভিডিওচিত্র সমন্বয় করে ভিডিও প্রতিবেদন করা হবে।

এক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে, আমাদেরকে পাঠানো আপনার ছবি ও ভিডিও অবশ্যই অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশিত হতে পারবে না।

() কীভাবে পাঠাবেন আপনার ভিডিও?

ভিডিও চিত্রের সাথে মিলিয়ে একটি ‘সংক্ষিপ্ত’ বর্ণনা আলাদা করে লিখে ফুটেজ ও টেক্সট পাঠিয়ে দিন blog@bdnews24.com ঠিকানায়।

আপনি ব্লগ ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে নিবন্ধিত নাগরিক সাংবাদিক হলে ব্লগ নিবন্ধনে ব্যবহার করা আপনার ইমেইল আইডি দিয়েই আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে।

ইমেইলে অবশ্যই (ক)আপনার ব্লগ আইডি/ব্লগ প্রোফাইল লিংক এবং (খ)ব্লগে আপনার প্রদর্শিত পূর্ণ নাম সঠিকভাবে লিখতে হবে।

ভারী ভিডিও ফাইল গুগল ড্রাইভে আপলোড করে ‘ডাউনলোড পারমিশন’ দিয়ে ইমেইলে লিঙ্ক পাঠাতে পারেন।

() প্রকাশিত ভিডিও প্রতিবেদনের স্বত্ত্ব

blog@bdnews24.com ইমেইলে আপনার পাঠানো ফুটেজ দিয়ে বানানো ভিডিও প্রতিবেদনের  স্বত্ত্ব হবে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের।

ক্রেডিট হিসেবে আপনার নাম উল্লেখ করে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম এই প্রতিবেদন যে কোনো কাজ, প্রচারণা বা প্রতিবেদনে ব্যবহার করতে পারবে।

আমাদেরকে পাঠানো আপনার ফুটেজ অবশ্যই অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশিত হতে পারবে না।

পাঠানো ফুটেজ প্রকাশে ব্লগ ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদনা টিম সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে।

(ঘ) ভিডিও প্রতিবেদন কোথায় প্রকাশ করা হবে?

নাগরিক সাংবাদিকতা ভিত্তিক প্লাটফর্ম ব্লগ ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের ভিডিওপোস্ট পাতায় (লিংক)

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের টিউব পাতায় (লিংক)

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের ইউটিউব চ্যানেলে (লিংক)

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের ফেইসবুক পাতায় (লিংক)

 

ফটোপোস্ট কীভাবে করবেন?  

ফটোপোস্ট বিভাগে একটি প্রতিবেদনে একটির বেশি ছবি প্রকাশ করা হয় না। ছবি যোগ করে সঙ্গে ছবি ধারণের স্থান, তারিখ ও অত্যন্ত সংক্ষেপে ছবি সম্পর্কিত তথ্য বা বর্ণনা যোগ করুন।

‘নতুন পোস্ট লিখুন’ থেকে মূল পোস্ট হিসেবেও ছবি প্রতিবেদন প্রকাশের জন্য জমা দিতে পারেন। এক্ষেত্রে একাধিক ছবি এবং ছবি সম্পর্কিত বিস্তারিত বর্ণনা যোগ করা যাবে।

আপনার ধারণ করা যে কোনো ছবিতে আপনার নাম  ও কোনো জলছাপ ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন।

কোনো ব্যক্তিগত  ও উল্লেখযোগ্য বিষয় ছাড়া ছবি ফটোপোস্ট বিভাগে প্রকাশ করা হয় না।

কোনো কোনো প্রতিবেদনে (যেমন- ভ্রমণ বিষয়ক) ব্যক্তিগত ছবি যোগ করার সুযোগ থাকলেও একাধিক ছবি যোগ করা হলে তা মুছে ফেলা হবে।

আপনার নাগরিক প্রতিবেদন প্রকাশের জন্য জমা দিয়েছেন?

নতুন নাগরিক প্রতিবেদন, ফটোপোস্ট জমা দিয়ে এবং ইমেইলে ভিডিও পাঠিয়ে তা প্রকাশের জন্য অপেক্ষা করুন।

আপনার পোস্ট প্রকাশ করা হবে কি না সম্পাদনা টিম সে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে। ব্লগ ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদনা টিম লেখার মূল অর্থ ও তথ্য ঠিক রেখে প্রয়োজনে লেখা ও শিরোনামে সম্পাদনা করতে পারবে।

পোস্ট প্রকাশের ক্ষেত্রে বিশেষ ক্ষণ ও দিবস গুরুত্বপূর্ণ হলে তা বিবেচনা করে ওই সময়ে প্রকাশের জন্য পোস্ট অপেক্ষমান রাখার সিদ্ধান্ত নিতে পারে সম্পাদনা টিম।

মন্তব্য করছেন?

এই প্লাটফর্মে আপনার সতীর্থ নাগরিক সাংবাদিকদের প্রতিবেদনে মন্তব্য ঘরে প্রশ্ন, প্রতিক্রিয়া বা মতামত দিয়ে মিথস্ক্রিয়ায় অংশ নিন।

মন্তব্য হিসেবে আলোচনা ও সমালোচনা প্রতিটি নাগরিক প্রতিবেদনকে উৎসাহ যোগাবে এবং সমৃদ্ধ করবে।

মন্তব্য অবশ্যই বাংলায় করতে হবে। ইংরেজি বা রোমান হরফে লেখা মন্তব্য মুছে দেওয়া হবে।

মন্তব্যে বস্তুনিষ্ঠ সমালোচনা স্বাগত। তবে অসহনশীন বা ব্যক্তি আক্রমণাত্মক মন্তব্য মুছে দেওয়া হবে। ব্যক্তি বা নারী, বিশেষ সংস্কৃতি-জাতি-গোষ্ঠী সম্বোধনে অসৌজন্যতা হলে মন্তব্য মুছে দেওয়া হবে।

মন্তব্যে ব্যক্তিগত তথ্য (যেমন- ঠিকানা, ফোন নম্বর, ইমেইল ইত্যাদি) দেওয়া থেকে বিরত থাকুন। এ ধরনের মন্তব্য মুছে দেওয়া হবে।

মন্তব্য ঘরে বিজ্ঞাপনমূলক কোনো লিংক দেওয়া হলে তা মুছে ফেলা হবে।

তথ্যসূত্র মৌলিক প্রতিবেদন

তথ্যপূর্ণ ও আপনার মৌলিক লেখা নিয়ে নাগরিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা এই প্লাটফর্মের উদ্দেশ্য। এখানে আপনার লেখার স্বকীয়তাকে প্রাধান্য দেওয়া হবে।

তাই অনলাইনের বিভিন্ন সাইট, পত্রিকা, গ্রন্থ থেকে হুবহু লেখা কপিপেস্ট করা এই প্লাটফর্মে নিরুৎসাহিত। এ ধরনের কোনো লেখা প্রকাশ করা হয় না।

যদি প্রতিবেদন প্রকাশের পরও কেউ বিস্তারিত ও উপযুক্ত প্রমাণসহ প্রতিবেদনের মূল দাবিদার হন, তবে সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে ব্লগ সম্পাদনা টিম উভয় পক্ষের কাছেই প্রয়োজনীয় ব্যাখ্যা দাবি করবে। প্রতিবেদন মৌলিক নয় বলে প্রমাণিত হলে তা মুছে দেওয়া হতে পারে।

আপনার প্রতিবেদনে বিশেষ কোনো তথ্য যুক্ত করা হলে অবশ্যই এর সূত্র হিসেবে ওই সাইট বা বই বা লেখকের নাম ও লিংক জুড়ে দিন।

যদি আপনার প্রতিবেদনে একান্তই কোনো অংশ হুবহু যোগ করতে হয়,তবে উদ্ধৃত ওই অংশের সূত্র অবশ্যই উল্লেখ করতে হবে।

তথ্যসূত্র হিসেবে গুগল ও ফেইসবুক উল্লেখ করা গ্রহণযোগ্য হবে না।

ভাষা বানান সচেতনতা

এই প্লাটফর্মে শুধুমাত্র বাংলা ভাষায় লেখা ও মন্তব্য প্রকাশ করা হয়। ইংরেজি বা রোমান হরফে লেখা ও মন্তব্য প্রকাশ করা হয় না এবং মুছে ফেলা হয়।

তবে লেখা বা মন্তব্যে কোনো বিশেষ তথ্য-উদ্ধৃতি ইংরেজি হলে তা প্রকাশ করা হতে পারে।

বাংলা বানানের ক্ষেত্রে নাগরিক সাংবাদিকের আন্তরিকতা একান্ত কাম্য। প্রতিবেদনে উল্লেখ ব্যক্তি-স্থান-প্রতিষ্ঠানের নামের বানানে ভুল থাকা সমীচিন নয়। আপনার প্রতিবেদন জমা দেওয়ার পূর্বে কয়েকবার তা দেখে ও পড়ে নিন।

সহায়িকার নীতিমালা মেনে চলুন

নিবন্ধিত নাগরিক সাংবাদিক অবশ্যই এই সহায়িকা মেনে চলে এই প্লাটফর্মের ধরন ও পরিবেশ রক্ষায় আন্তরিক থাকবেন।

কোনো বিষয়ে প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকলে  ‘যোগাযোগ’ পাতার মাধ্যমে তা জানাতে পারবেন।