ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

বর্তমানে বাংলাদেশে এফ এম রেডিওর সোনালী যুগ চলছে বললে হয়তবা খুব একটা বাড়িয়ে বলা হবেনা। এফ এম রেডিও গুলোর অনুষ্ঠানের পাশাপাশি তাদের প্রচারিত খবর গুলোও বেশ গ্রহন যোগ্যতা লাভ করেছে। অনেকে আবার রেডিও জকি কে তাদের পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন। এ পেশাটি মোটেই খারাপ নয়। অনেকে আবার পার্ট টাইম জব হিসেবেও এ পেশা বেছে নিয়েছেন। কারণ এ পেশায় খুব একটা বেশী যোগ্যতার প্রয়োজন হয়না শুধু শুদ্ধ ভাষায় কথা বলা আর চাপার জোর থাকলেই কাজ চালিযে নেয়া যায়।বিশেষ করে আমাদের তরুণ প্রজন্ম এফ রেডিও গুলোর অনুষ্ঠান বেশী পছন্দ করে। যখন মেয়ে আর জে দের প্রোগ্রাম থাকে তখন ছেলেদেরকে বেশী এস এম এস পাঠাতে দেখা যায়।আর ছেলে আর জে দের প্রোগ্রামে মেয়েদের কে বেশী এস এম এস পাঠাতে দেখা যায়। অনেক সময় দেখা যায় যে একটি ছেলে অথবা মেয়ে রেডিওতে এস এম এস পাঠিয়ে প্রেম নিবেদন করেন তাদের পছন্দের মানুষকে যা কিনা আর জে মহোদয় খুব সুন্দর করে পড়ে দেন। এফ এম রেডিও গুলোর ৯০ শতাংশ শ্রোতাই তরুণ যাদের মধ্যে কিনা আবার ৯০ শতাংশই ছাত্র-ছাত্রী। আর এসব ছাত্র-ছাত্রীরা পড়ালেখা বাদ দিয়ে এসব এফ এম রেডিও গুলোর অনুষ্ঠান নিয়ে পড়ে থাকে বিশেষ করে ভূত এফ এম, লাভ গুরু, হ্যালো ৮৯২০ ইত্যাদি। এগুলো সহ আরো কিছু পোগ্রাম আছে যা কিনা রাত সাড়ে এগারোটা কিংবা বারোটার পরে শুরু্ হয়। প্রোগ্রাম গুলো খুবই আকষর্নীয় হওযার কারণে যারা শোনেন তারা নিয়মিতই শোনেন। বিভিন্ন রেডিও চ্যানেল তাদের প্রোগ্রাম গুলো বিভিন্ন দিন সম্প্রচার করেন যার ফলে দেখা যায় একজন শ্রোতার প্রায় সব প্রোগ্রাম শোনার সুযোগ হয়। প্রোগ্রাম গুলো রাত ২ টা পর্যন্ত চলে। যারা শোনে তারা শেষ করেই ঘুমায়। সমস্যাটা এখানেই একজন ছাত্র যদি এভাবে রাত জেগে এফ এম রেডিও গুলোর অনুষ্ঠান শোনে তাহলে সে পড়ালেখা করবে কখন? আর প্রোগ্রাম গুলোতে শিক্ষনীয় কোন কিছু নেই। যা আছে তা হলো কিছু ছ্যাকা খা্ওয়ার কাহিনী। প্রোগ্রাম শে্ষে পরামর্শ দেওয়া হয় যে প্রেম করার সময় …………….. এসব বিষয় গুলো খুব ভালোভাবে দেখে নিবেন । প্রোগ্রাম থেকে যদি এরকম কিছু বলা হত যে, যেহেতু প্রেমে এত সমস্যা

তাই আপনারা প্রেম থেকে বিরত থাকুন। কিন্ত তা না করে উল্টা একটি অনৈতিক রাস্তায় কিভাবে এগোতে হবে তার পরামর্শ দেয়া হয়। রাত ২ টা পর্যন্ত জেগে যদি এটাই আমরা শিখি তাহলে আমাদের ভবিষ্যৎ শুধু অন্ধকারাচ্ছন্ন। তাই আমি তরুণ প্রজন্মের প্রতি অনুরোধ করব আসুন আমরা এ ধরনের প্রোগ্রাম বর্জন করি।আর এফ এম রেডিও গুলোর প্রতি অনুরোধ করব এমন কোন অনুষ্ঠান করবেননা যাদ্বারা দেশের তরুণ প্রজন্ম ক্ষতিগ্রস্থ হয়।