ক্যাটেগরিঃ স্বাধিকার চেতনা

 

আমাদের মহান স্বাধীনতা একদিনে অর্জিত হয়নি। এর জন্যে দীর্ঘ সংগ্রাম করতে হয়েছে। জাতিকে মুক্তির সংগ্রামের জন্যে প্রস্তুত করতে হয়েছে। আর এর নেতৃত্ব দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তারই সুযোগ্য দিক নির্দেশনায় জাতি ঐক্যবদ্ধ হয়েছিল। এরই ধারাবাহিকতায় সত্তরের নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর নের্তৃত্বাধীন আওয়ামীলীগ বিজয়ী হয়েও রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় যেতে পারেনি। পাকিস্তানের সেই সময়কার শাসক গোষ্ঠী নানান টালবাহানায় বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সরকার গঠন করতে দেয়নি। আন্দোলনের ধারাবাহিকতা তখনও থেমে থাকেনি। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আন্দোলন চলতে থাকে।

আজ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ। বাঙ্গালী জাতি তথা বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রের ইতিহাসে এক অবিস্মরণীয় দিন। ১৯৭১ সালের এই দিনে বাঙ্গালী জাতির প্রিয় নেতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে অসংখ্য মানুষের সামনে এক উদ্দীপনাময়ী বক্তৃতা দিয়ে মানুষকে জাগিয়ে তুলেছিলেন। আমরা যারা মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী প্রজন্ম তারা এখনও ক্যাসেটে বঙ্গবন্ধুর সেই ঐতিহাসিক বক্তৃতাটি শুনলে উজ্জীবিত হই, উদ্দীপিত হই। ৭ মার্চের সেই শ্রেষ্ঠ বক্তৃতাটি একবার শুনলে বারবার শুনতে ইচ্ছে হয়।

৭ মার্চের সেই ঐতিহাসিক বক্তৃতাটি বাংলাদেশের ইতিহাসে চিরস্মরণীয় হয়ে আছে এবং থাকবে। এই ভাষণের মাধ্যমেই তিনি জাতিকে স্বাধীনতা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকার আহবান জানিয়েছিলেন। নিজেদের অধিকার আদায়ের সংগ্রামে সবাইকে অংশ গ্রহণ করার আহবান জানিয়েছিলেন। প্রত্যেক ঘরে ঘরে দূর্গ গড়ে তুলার আহবান জানিয়েছিলেন। ঐক্যবদ্ধভাবে সবাইকে যার যা কিছু আছে তা নিয়েই শত্রুর মোকাবেলা করার আহবান জানিয়েছিলেন। আরও অনেক দিকনির্দেশনা দিয়েছিলেন…।

আমার মতে- তিনি মূলত ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম’ ঘোষণাটি দেওয়ার মাধ্যমে জাতির বহু আকাঙ্খিত স্বাধীনতার ঘোষণাটিই দিয়ে দিয়েছিলেন। এবং বাঙ্গালী জাতি স্বাধীনতা সংগ্রামের জন্যে তখন থেকেই তৈরী ছিল। এরই ধারাবাহিকতায় ২৬ মার্চ বঙ্গবন্ধু আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা দিয়েছিলেন। শুরু হয়েছিল আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধ। নয় মাস ব্যাপী রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মধ্য দিয়ে অর্জিত হয় আমাদের মহান স্বাধীনতা। তাই ৭ মার্চ আমাদের জাতীয় জীবনের এক গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়, অবিস্মরণীয় দিন।

ঐতিহাসিক এই দিনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে আমি গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি। মুক্তিযুদ্ধে শহীদদেরকেও আমি গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি। তাঁদের অবদান জাতি কোনদিনই ভুলতে পারেনা, পারবেনা।