ক্যাটেগরিঃ চারপাশে

যাত্রীদের যাতায়াতের সুবিধা বিবেচনা করে ঢাকা-সিলেট রুটে নতুন একটি ট্রেন চালু হতে যাচ্ছে। খবরটি আমাদের জন্যে খুবই আনন্দের। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে মঙ্গলবার থেকে ট্রেনটি আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করবে। ইতিমধ্যে নতুন এ ট্রেনের সময়সূচী নির্ধারণ করা হয়েছে। নতুন সময়সূচী অনুযায়ী ট্রেনটি ঢাকা থেকে প্রতিদিন দুপুর ৩.০০ ঘটিকায় ছাড়বে এবং সিলেটে রাত ৯.০০ ঘটিকায় পৌঁছাবে। এবং যথারীতি সিলেট থেকে প্রতিদিন ভোর ৬.৪০ ঘটিকায় ছেড়ে ঢাকায় ১.৩০ ঘটিকায় পৌঁছাবে।

ট্রেন যাত্রা সবসময়ই আরামদায়ক এবং তুলনামূলকভাবে অনেক বেশী নিরাপদ। তাই সকলেই নিরাপদ ভ্রমণ হিসেবে ট্রেনে ভ্রমণ করতে চায় । সে হিসেবে নুতন আরেকটি ট্রেন চালু হওয়ায় যাত্রীদের নিরাপদে আরামদায়ক যাতায়াত করতে সুবিধা হবে।

ঢাকা-সিলেট রুটে নতুন ট্রেন চালু করায় সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। নতুন ট্রেনসহ সব ট্রেনের সময়সূচী যাতে ঠিক থাকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সেদিকে খেয়াল রাখবেন বলে আমরা সবাই আশা রাখি।

সহজেই ট্রেনের টিকেট পাবার ব্যবস্থা তো অবশ্যই রাখতে হবে। কোন টিকেট কালোবাজারির হাতে যেন না যায় সেদিকে কঠোর দৃষ্টি দিতে হবে। সঠিক সময়ে ট্রেন ছাড়লে এবং সঠিকভাবে আমরা সবাই ট্রেনের টিকেট করতে পারলে- রেলখাত অবশ্যই লাভজনক খাত হবে বলে আমার বিশ্বাস। সেজন্যে সবার আন্তরিকতা বিশেষভাবে কাম্য।

যতটুকু জানতে পারলাম, ঢাকা-সিলেট রুটে নতুন যে ট্রেন চালু হতে যাচ্ছে সেটির নাম দেয়া হয়েছে “কালনি এক্সপ্রেস”। “কালনি এক্সপ্রেস” এ নামটির চেয়ে আরোও সুন্দর কোন নাম কি দেয়া যেত না? পৃথিবীতে আমরা কি আর কোন নাম খুঁজে পেলাম না? শুনেছি কালনি একটি নদীর নাম। আবার আকাশে কালো মেঘের আনাগোনা দেখলে আমরা অনেকেই বলে থাকি আকাশে কালনি করেছে। তার মানে অনেক ঝড়-বৃষ্টি হবে। কালনি মেঘ বা কালো মেঘ কে অনেকে আবার অশুভ লক্ষণ হিসেবে আখ্যা দিয়ে থাকেন। সুতরাং “কালনি এক্সপ্রেস” নামটি পরিবর্তন করে অন্য কোন দেয়া যায় কি-না সেটি ভেবে দেখার জন্যে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে সবিনয়ে অনুরোধ রাখছি।

নুতন ট্রেনের যাত্রা শুভ হোক। আপনার আমার সকলের যাত্রা শুভ হোক। এই হোক আমাদের কামনা।