ক্যাটেগরিঃ খেলাধূলা

nasir

 

“আপনাদের খারাপ মন্তব্য দেখে অনেক কষ্ট পেলাম। আমার ছোট বোনের আবদার মেটাতে তার সাথে আমার ছবি পেজে পোস্ট করেছিলাম। তাই বলে আপনারা অনেকেই বাজে মন্তব্য করেছেন। যেটা নিয়ে অনেকেই ফান পোস্টও করছেন। পোস্টটা ডিলেট করে দিলাম এখন খুশিতো? আপনাদের মত ফ্যান আমার দরকার নাই। আমাকে যারা পছন্দ করেন না তারা আমার ছবিতে লাইক দিবেন না। আমাকে ফলো করবেন না। ধন্যবাদ। ”

কথাগুলো বলেছেন বাংলাদেশের একজন স্বনামধন্য ক্রিকেটার নাসির হোসাইন। প্রসঙ্গটি এসেছে, তিনি তার ফেসবুক পেইজে তার বোনের সাথে একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন । এবং হ্যা, এটাই তার অপরাধ ছিল। এজন্যে তাকে জাতির কাছে শুনতে হয়েছে, অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ। তাকে হজম করতে হয়েছে নিচু মন মানুষিকতার মানুষদের হীন কথাবার্তা । পরে মনের দুঃখে ছবিটি ডিলিট করে, তিনি বলেছেন “আমাকে ফলো করবেন না” ।

নাসির হোসাইনের সাথে আজ যা হয়েছে , সোজা বাংলায় বলতে এরা যা করেছে, এ ধরণের ঘটনার নজির এটাই প্রথম না। এ ধরণের ঘটনা বারবার ফিরে আসে। নাসিরদেরকে নিয়ে এদের যতটা না আগ্রহ তার চেয়ে বেশি আগ্রহ তাদের পরিবারের সাথে সংশ্লিষ্ট যে কোন মেয়েদের নিয়ে। একটা বিষয় স্পষ্ট এই লোকগুলোই ফেসবুকে অশ্লীল মন্তব্যের ঝড় বইয়ে দেয়, আর ভিড়ের রাস্তায় কিংবা পহেলা বৈশাখের জনসমাগমে যৌন হয়রানিতে লিপ্ত হয়। লজ্জায় মাথা হেঁট হয়ে যাওয়ার মত ব্যাপার। ভাবতে অবাক লাগে, জাতি হিসেবে আমরা কতটা নীচু মনমানুষিকতার। আমি আঁতকে উঠি , যখন ভাবি এরাই নাকি নাসিরের খেলা দেখে “বাংলাদেশ”, “বাংলাদেশ ” করে । এরা যদি বাঙালি হয় তবে আমি বাঙালি নই ।

স্পষ্টতই এরা অসুস্থ । কিন্তু অসুস্থতা তো নিরাময়যোগ্য । এদের কি সুস্থ হওয়ার ইচ্ছা নেই ? নাকি , এরা সুস্থ হওয়ার যোগ্যতা হারিয়ে ফেলেছে। এদের মানষিকতার অবনতি আসলে কিছুইনা, এ সবের জন্য পারিবারিক অসঙ্গতি দায়ি, এরা অসুস্থ পারিবারিক গণ্ডিতে বেড়ে উঠেছে। শুধু নাসির না, সাকিব, রুবেল, মাশরাফি, মুশফিক তামিমদের পরিবার নিয়েও এরা বাজে কথা বলে । আজকে আমি আমার বোনের সাথে, মেয়ে বন্ধুর সাথে ছবি দিলেও বাজে কথা শুনতে হয়। নীরব না থেকে এদেরকে সামাজিক ভাবে প্রতিহত করতে হবে, সরাসরি প্রতিহত করতে হবে।

এনাফ ইজ এনাফ! যথেষ্ট হইছে, এইবার থামেন, আই রিপিট লজ্জা থাকলে এইবার থামেন, বাজে অভ্যাসগুলি ত্যাগ করুন । ভাল হইতে পয়সা লাগে না। এতটুকুই আশা এটা যেন আর কাউকে না বলতে হয় , “Don’t Follow Me” ।

ট্যাগঃ:

মন্তব্য ০ পঠিত