ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

 

রাজধানির হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের (ডমেষ্টিক) কাউন্টারে যাত্রী প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে। ১৬ অক্টোবর পারভীন সুলতানা নামের এক যাত্রী অভিযোগ করে বলেন, গত ৮ অক্টোবর তাঁর স্বামী বদরুল হুদা বিমানবন্দর এলাকায় ডমেষ্টিক ফ্লাইটের জন্য ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের টিকেট কাটতে গেলে সেখানে ইউএসবাংলা এয়ারলাইন্সের এক্সিকিউটিভ খালেদ শামস তাকে দুইটি টিকেট দেয়। টিকেটের পিছনে একটি ফোন ন¤\^রও দিয়ে দেয় (০১৭৭৫০১৯৭০৪) এবং টিকেটে কোনপ্রকার পে সিল ছাড়াই। টিকেট কাটা শেষ হলে দুইটি টিকেটের মূল্য ১২ হাজার ৪০০ টাকা রেখে বলে দেয় আপনার মোবাইলে একটি মেসেজ যাবে। মোবাইলে যে মেসেজ আসে সেখানে মূল্য লেখা রয়েছে ১০ হাজার ৪০০ টাকা। তিনি বলেন, ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সে করে ১২ অক্টোবর আমাদের কক্সবাজার যাওয়ার কথা ছিল এবং আমরা সেদিন কক্সবাজার গিয়েওছিলাম। যাওয়ার কিছু কিছুক্ষন আগে গিয়ে বিষয়টি নিয়ে এয়ারলাইন্সের অফিসে যোগাযোগ করা হলে সেখানে যে ব্যক্তি খালেদ শামস নামে ছিলেন তাকে আমার স্বামী চিনতে পারেননি কারণ মূলত যে খালেদ শামস তার নাম ব্যবহার করে সেখানে ৮ তারিখে ছিলেন তিনি হলেন ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সের শাহেদ। পরবর্তীতে বুঝতে পারলাম ইউএসবাংলা এয়ারলাইন্সের খালেদ শামসের নাম ব্যবহার করে তখন ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সের শাহেদ সেখানে বসা ছিলেন এবং আমার স্বামীকে টিকেট দিয়েছিলেন। আমার প্রশ্ন হচ্ছে ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সের লোকজন ইউএসবাংলার কাউন্টারে বসে টিকেট বিক্রি করে কি করে? তাছাড়া ইউএস বাংলার কাউন্টারে বসে গোল্ডেন স্কাই ট্যুরস এন্ড ট্র্যাভেলস এর নামে টিকিট বিক্রি করে কিভাবে সেটাই জনার বিষয়। আমি ধারণা করছি এখানে কাউন্টারে যারা বসে থাকেন তাদের যোগসাজসেই এমন কাজগুলো হচ্ছে। নামে বেনামে নিজেরা ট্যুরস এন্ড ট্রাভলস কোম্পানী খুলে যাত্রীদের কাছ থেকে বাড়তি টাকা নিয়ে টিকেট দিচ্ছেন এবং প্রতারণামূলক ব্যবসা চালাচ্ছেন ইউএসবাংলা এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষের চোখের আড়ালে।
এ বিষয়ে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের খালেদ শামসের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, গত ৮ অক্টোবর আমি কাউন্টারে ছিলাম না। আমার নাম ব্যবহার করে যে ব্যক্তি এ কাজটা করেছেন তার নাম আমরা পরে জানতে পেরেছি যাত্রী পারভীন সুলতানার অভিযোগের ভিত্তিতে। পারভীন সুলতানা আমাদেরকে অভিযোগ করলে আমরা তাঁর টিকেট চেক করে দেখি তাঁর টিকেটটি গোল্ডেন স্কাই ট্যুরস এন্ড ট্রাভেলস থেকে কেনা। আমাদের ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের টিকেট ঐদিন শাহেদ নামের ঐ ব্যক্তি গোল্ডেন স্কাই ট্যুরস এন্ড ট্রাভেলস থেকে তাদেরকে টিকেট দেয়।

এ বিষয়ে ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সের শাহেদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ সম্পর্কে কিছুই জানেন না বলে মন্তব্য করেন।