ক্যাটেগরিঃ মুক্তমঞ্চ

 

গেল ২০১৬ সাল বাংলাদেশের জন্য একটি ক্রান্তিকাল বলা যায়। জঙ্গি উত্থান থেকে শুরু করে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির মত ঘটনা ২০১৬ তেই ঘটেছে। তবে চলমান ২০১৭ সালকে ইচ্ছা করলে আমরা স্মরণীয় করে রাখতে পারি ভাল কিছু দিয়ে।

দেশের কোন মানুষটার না ইচ্ছা থাকে এই বাংলাদেশকে সমৃদ্ধ এবং শান্তির দেশ হিসেবে দেখতে। কিন্তু সমৃদ্ধ ও শান্তির বাংলাদেশ অর্জনে রয়েছে কিছু অন্তরায়, যার মূল হল ঘুষ-দুর্নীতি। বাংলাদেশের এ প্রান্ত থেকে ঐ প্রান্তের কিছু (সবাই নয়) সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারি যখন ঘুষ-দুর্নীতির দুনিয়ায় মুহ্যমান তখন ২০১৭ সালকে কি আমরা আমাদের স্বপ্নের বছর করে রাখতে পারব?

এজন্য সবার আগে প্রয়োজন নিজেদেরকে পরিবর্তন করা। দুর্নীতি বিরোধী চেতনা নিজেদের মধ্যে জাগ্রত করা। সরকারের গুটিকয়েক (সবাই নয়) দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা-কর্মচারির জন্য দেশের উন্নয়ন ব্যহত হবে তা কোন ক্রমেই মেনে নেয়া যায় না। আমাদের দেশ মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে ৩০ লক্ষ শহীদ ও অজস্ত্র মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে পাওয়া। এই বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি গুটিকয়েক দুর্নীতিবাজের জন্য থেমে থাকবে বা পিছিয়ে থাকবে তা মেনে নেয়া লজ্জাজনক।

বীরের জাতি হিসেবে আমরা নিজেদের পরিচয় দেই, এই কি আমাদের বীরত্ব? চলুন, ঘুষ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলি। রাষ্ট্র এবং জনগনের যৌথ প্রচেষ্টাতে ভেঙে দেই দুর্নীতিবাজদের বিস্তার করা কাল জাল।  আসুন, দুর্নীতিকে প্রশ্রয় না দিয়ে দেশের সমৃদ্ধিকে এগিয়ে নেই এবং ২০১৭ সালকে দুর্নীতিবিরোধী বছর হিসেবে স্মরণীয় করে রাখি।

এস এম হৃদয় রহমান, নিজস্ব প্রতিবেদক, সাপ্তাহিক বাংলাবার্তা।