ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

গত ৪১ বছর যাবত্‍ বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধোত্তর প্রজন্মকে যে হারে রাজাকার দর্শন আয়ত্ত করানো হয়েছে আর শিক্ষিত তরুনরা যে হারে নব্য রাজাকারে পরিণত হয়েছে তা বিশ্ব ইতিহাসে বিরল । এসব কারণে প্রগতিশীল গোষ্ঠীর অনেকেই আজ দেশকে নিয়ে স্বপ্ন হারিয়ে ফেলেছে,হতাশায় ডুবে আছে । তরুন প্রজন্মের মাঝে রাজাকার ভাবধারার এই বাম্পার ফলনে হতাশ হওয়া তো দূরে থাক্ , আমি এতটুকু হতচকিত ও হই নাই। কেননা, এই কিছুদিন আগেই বাংলাদেশের পাড়ায় পাড়ায় মিছিল হয়েছিল, “বিন্ লাদেনের কিছু হলে, জ্বলবে আগুন ঘরে ঘরে” । পল্টন ময়দানে মুফতি আমিনী বলেছিল, “আমরা সবাই তালেবান, বাংলা হবে আফগান” । আমার দেশের ৩০ লাখ শহীদের রক্তস্নাত ভূখণ্ডকে তিনি জঙ্গী রাষ্ট্র আফগান করতে চেয়েছিলেন । বিন লাদেন মারা যাওয়ার পর পাড়ায় পাড়ায় মিছিল করা সেই সব সমর্থকদের কাউকে আর অন্তত শোক প্রকাশ করতে ও দেখা যায়নি । যেদিন এই দেশে সকল ঘৃণ্য যুদ্বাপরাধীদের ফাঁসি নিশ্চিত করা হবে সেদিন তেমনি একজন ও খুজে পাওয়া যাবে না যারা এতটুকু শোক করবে তাদের জন্য। যে রাতে ফাঁসি নিশ্চিত করা হবে সকলের, তার পরের দিন সম্পূর্ণ পবিত্র একটা ভোর হবে, যে ভোরের বাতাসে কোন রাজাকারের বিষাক্ত বাতাস নেই। যে বাতাসে কোন বীরাঙ্গনার বোবা কান্নার শব্দ নেই । একদিন এই দেশে সেই সোনালি সূর্য উঠবেই উঠবে । যখন আমরা ও আমাদের পূর্বসূরিদের সামনে মাথা উচু করে দাড়িয়ে বলতে পারব, আমরা ও এক কঠিন যুদ্ধে বিজয় ছিনিয়ে এনেছি যা তোমাদের করা যুদ্ধের চেয়ে কম কঠিন নয় কিংবা কম মূল্য দানে নয় ।