ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

আমার ৭ জন বন্ধু বুয়েটে অধ্যয়নরত এবং ২ জন সাবেক ছাত্র আমার আত্নীয়, যারা প্রত্যেকেই ভিসি এবং প্রোভিসির পদত্যাগের দাবীতে আন্দোলনরত। তাদের প্রায় প্রত্যেকের সাথেই একটু আগে আমার ঘন্টা ব্যাপি আন্দোলন নিয়ে কথা হয় । আন্দোলন করছিস কেন, এমন প্রশ্নের উত্তরে একদম সকলেই একই জবাব দিল, জানিনা, তবে বেশির ভাগ করছে তাই আমরা ও করছি । আন্দোলনরত কোন একজন শিক্ষক ও মিডিয়ার সামনে ভিসি-প্রোভিসির অপসারণের কোন অকাট্য যুক্তি উপস্থাপন করতে পারেনি । কোন একজন ছাত্রের মুখ থেকেও গত কয়েকদিন যাবত্‍ ধরে একটানা টিভি খবর দেখেও কোন অনিয়মের সুনির্দিষ্ট অভিযোগ উত্থাপন করতে দেখলাম না অভিযুক্তদের বিরুদ্বে । আর অভিযুক্তরাও বলছেন, তদন্ত কমিটি কেন ? প্রয়োজনে বিচার বিভাগীয় তদন্ত হোক, দোষী প্রমাণিত হলে সরে যাব । একদম নিখাঁদ কথা । তাহলে, এখন প্রশ্ন এসেই যায়, এই আন্দোলন কেন ? আর কি হচ্ছে আন্দোলনের নামে ? শিক্ষক-ছাত্ররা বসে একসাথে অনশন করছে আর তাস খেলছে। এই আমাদের তথাকথিত অনিয়মের বিরুদ্বে লড়ে যাওয়া আদর্শিক(!) শিক্ষকদের নৈতিকতাবোধ ? তাহলে যে অনেকদিন ধরেই কানাঘুষা চলছিল বুয়েটের শিক্ষকদের মধ্যে হিযবুত তাহরীর আদর্শবাদীরা ঢুকে গেছে এটা কি তারই ধারাবাহিক বহিঃপ্রকাশ ? তাহলে কি সব ধর্মান্ধ আর দূর্বৃত্তরা একজোট হয়ে গেছে আন্দোলনের নামে আর কিছু না বুঝেই সে ফাঁদে পা দিয়ে ফেলেছে নির্দোষ শিক্ষার্থীরা?