ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

কোন আন্দোলন করার আগে ভাল করে বুঝা দরকার, আমরা কি আন্দোলন করছি আর এই আন্দোলন সফল হলে আমরা কতটুকু উপকৃত হব?

বাংলাদেশে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি কারা? এই প্রশ্নের খুব সহজ উত্তর জামাত-শিবির। তাহলে তাদের বিরুদ্ধে যারা আন্দোলন করছেন, তারা তাদের একটা ইস্যু নিয়ে আন্দোলন করছেন আর সেটা হল যুদ্ধাপরাধ। কিন্তু সামগ্রিক আন্দোলন এটা নয়।

বাংলাদেশে স্বাধীনতা বিরোধীদের মিশন বন্ধ করতে হলে যা যা করতে হবে, গুরুত্ব বিবেচনায় তা ক্রমানুসারে সাজানো হল:

১) জামায়াতের রাজনীতি নিষিদ্ধ করা
২) যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করা
৩) জামায়াতের ইসলামের সাথে যারা জড়িত আছে, তারা যেন কোন রকমের সামাজিক, বানিজ্যিক, সাংস্কৃতিক, উপসনালয় এবং শিক্ষা মূলক প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে না পারে।
৪) তারা যেন তাদের অপমতাদর্শ প্রচার করতে কোন প্রেস কিংবা মিডিয়ার ব্যবহার করতে না পারে।

উপরোক্ত ব্যবস্থা গুলো যে করেই হোক জামায়াতের বিরুদ্ধে নিতে হবে।

বাংলাদেশে বিহারীদেরকে যেভাবে একটা নির্দিষ্ট স্থানে ক্যাম্পে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে, জামায়াতের বেলায় তা-ই করতে হবে। কেননা, ৭১ এ জামায়াত বিহারীদের তুলনায় শতগুনে পাশবিক ছিল। আর বিহারীরা অন্য দেশে পাশবিকতা করেছে আর জামাতিরা নিজ ভুখন্ডের মানুষদের সাথে নৃশংস আচরণ করেছে।

তাই বিহারীদের তুলনায় তাদের শাস্তি আরো গুরুতর হতে হবে। সুতরাং এখন সকলকেই এই আওয়াজ তুলতে হবে-জামায়াতের রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে।

আরো দেখুন…
http://www.facebook.com/ban.jamayat