ক্যাটেগরিঃ পাঠাগার

(লেখাটি ২য় বর্ষ সংখ্যা ৩১, মার্চ ০২, ২০১১ বুধবার নতুন দেশ -এ প্রকাশিত হয়েছিল।)

কবিতার মাঝে আমরা খুঁজে পাই অনুভূতির সাতরঙ। একজন কবির কাছে কবিতার চাইতে তাই আর তেমন কিছুই প্রিয় নয়। হতে পারে না। কবি জীবন চলার পথে সব সময় কবিতাকে আশ্রয় করে চলেন। সাতটি রঙের রঙধনু যেমন খুব কম সময়ের জন্য আকাশটাকে তার রঙের ছোঁয়ায় রাঙিয়ে ধীরে ধীরে আকাশের নীলে বিলীন হয়ে যায়, তারপর এক সময় সেই আকাশে রাত্রি নামে, আঁধার ভর করে। তখন সেই একই আঁধারের মানে এক এক জনের কাছে এক এক রকম হয়ে ধরাদেয়, স্থান কালে তার স্বতন্ত্র অবস্থানের কারণে। আর সবার মত একজন কবিও কখনই এই নিয়মের বাইরে নন। জীবনের পথ পরিক্রমায় তাকেও অতিক্রম করতে হয় নানান ঘাত প্রতিঘাতের। স্বাদ নিতে হয় কত যে অনাকাঙ্ক্ষিত বিস্বাদের। কি রাত,কি দিন,কি রঙ ধনু ছাওয়া আলো ঝলমল আকাশ, এমন সময় এলে কোন কিছুই সেই বিস্বাদকে ঢেকে দিতে পারেনা। কবিকে তাই “কবিতার বিস্বাদ প্রহর”এর স্বাদ নিতে হয়। সেই বিস্বাদকে সাথি করেই তিনি কবিতার অন্তহীন মহাসমুদ্রের তটে হেঁটে বেড়ান, কবিতার সীমাহীন সেই তীর ভূমির ঢেউ খেলা নরম বালির উপরে অস্থির আঙ্গুল চালাতে থাকেন। এভাবে আঁকা হয় কিছু রেখা, রেখার এই বিমূর্ত চলনে যে ছবি আঁকা হয় তাও এক সময় অতি মূর্ত হয়ে ধরা দেয়। এ যেন অবচেতনের শিল্পাভাস। চেতনার গভীরের মূর্ত-বিমূর্তের অপরূপ এক মেলবন্ধনের প্রকাশ। ঠিক এই ভাবে কবির চিন্তনে শব্দের বুনটে গেঁথে ওঠা কথাও যেন স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে এক সময় কবিতা হয়ে ওঠে। একজন কবির এমন অস্থির সময়কে ধারণ করে রাখা অসাধারণ একটি কাব্য গ্রন্থ “কবিতার বিস্বাদ প্রহর”।

প্রথম কাব্যগ্রন্থ “শুধু তুমি কবিতা” উপহার দেবার মাত্র দু বছরের মাঝে কবি সোহরাব সুমন তার দ্বিতীয় কাব্য গ্রন্থ “কবিতার বিস্বাদ প্রহর” নিয়ে পাঠকের সামনে হাজির হয়েছেন। বর্তমান গ্রন্থটিতে চলমান সহস্রাব্দের প্রথম দশকে তার নিজস্ব কবি জীবনের নানা ঘাত প্রতিঘাত, জীবন বোধ ও স্মৃতি কথা ঠাঁই পেয়েছে।

কবি সোহরাব সুমন দেশের বিভিন্ন ম্যাগাজিন এবং প্রথম সারির কাগজ গুলোতে নিয়মিত ফিচার,গল্প,কবিতা সহ নানা ধরনের সৃষ্টিশীল লেখা ও অনুবাদ লিখে চলেছেন।
শিল্পী হেদায়েতুল ইসলাম অপুর আঁকা চাররঙ্গা প্রচ্ছদে কাব্যগ্রন্থটি প্রকাশ করেছেন ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ। বইটির দাম রাখা হয়েছে ১২০টাকা।

বইটি দেশের পরিচিত সব লাইব্রেরী সহ বইটির ডিজিটাল ভার্শন পাওয়া যাবে www.sohrabsumon.me সাইটটিতে। এবং যে কেউ কবির সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন contact@sohrabsumon.me এই ইমেইলে।