ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

 

যে বিষয় নিয়ে লিখব তা অনেকটা সেনসেটিভ। একজন ডাক্তার, ব্লগার, লেখক সর্বোপরি একজন প্রখ্যাত অনলাইন এক্টিভিস্ট বিডিনিউজ২৪ সম্পর্কে কিছু সমালোচনা করেছেন তার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে। যেটা তিনি তার ফেইসবুক স্ট্যাটাসে তুলে ধরেছেন । সেই ব্যক্তির নাম জানানোর পূর্বে তার ফেইসবুক স্ট্যাটাসটা (বা বিডি নিউজ ২৪ সম্পর্কে তার বাস্তব অভিজ্ঞতা) আগে দেখে নেওয়া যাক।

 

মাইকে বক্তৃতা দিচ্ছেন পিনাকী ভট্রচারিয়া

মাইকে বক্তৃতা দিচ্ছেন পিনাকী ভট্রচারিয়া

স্ট্যাটাসটা ছিল এরকম:

বিডিনিউজ২৪ একটা ইন্টারেস্টিং নিউজ এজেন্সি। এরা তার পক্ষের ইস্যুর পিছনে ক্রমাগত লেখা ছাপিয়ে যাবে কিন্তু সেই লেখার প্রতিবাদ বা রিজয়েন্ডার যদি ছাপতে দেয়া হয় সেটা তারা ছাপবেনা। কয়েকদিন আগে বার্গম্যানের সাথেও তারা এই কাজ করেছে। গণমাধ্যমের একটা ন্যুনতম দায় যে আছে সেটাও তারা মানতে নারাজ। তাদের ইস্যুর পক্ষে লেখানোর জন্য তারা কাউকে ডেপুট করে। তারপরে মহাসমারহে সেই লেখা ছাপা হয়। মানুষ দেখে যে এই লেখার কোন প্রতিবাদ আসেনা। কারণ সেই প্রতিবাদ বা রিজয়েন্ডার যে তারা ছাপেই না, এটা তো আর মানুষ দেখতে পাচ্ছেনা।

একই ধরণের ঘটনা ঘটেছিল আমার ক্ষেত্রে। রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র নিয়ে যখন আন্দোলন চলছিল তখন আমার একটা লেখা ছাপা হয় প্রথম আলোতে; রামপালের স্বাস্থ্য ঝুকি নিয়ে। একই সময়ে বিডিনিউজ২৪ এ আঞ্জুমান ইসলাম নামের একজনকে দিয়ে রামপালের পক্ষে একাধিক পর্বের লেখা ছাপা চলছিল। আঞ্জুমান ইসলামের লেখার এক পর্বে আমার প্রথম আলোর লেখার রেফারেন্সে তিনি একটা লেখা লেখেন। আমি যথারিতি একটা রিজয়েন্ডার দেই বিডি নিউজে। আমার সেই লেখা দুই সপ্তাহ ঝুলিয়ে রেখে আমাকে বলে দেয়া হয়; আমার সেই লেখা ছাপানো যাবেনা। আমি বিডি নিউজের তৌফিক ইমরোজ খালিদিকে কল করে বললাম; আমার লেখার সমালোচনা ছাপা হল আপনার পত্রিকায় আপনি সেখানে আমার জবাবটা তো ছাপতে নৈতিকভাবে বাধ্য। তিনি বললেন, “দেখতেছি”। সেই দেখা তিন বছরেও শেষ হলনা। সেই তৌফিক সাহেব যখন প্রেস ইন্ডিপেন্ডেন্সের হাই প্রিস্ট হিসেবে নিজেকে জাহির করেন তখন হাসতেও কষ্ট হয়।

তাদের এই বায়াসড প্রচারণা যদি এখানেই থেমে থাকতো তাহলে কথা ছিলনা। কিন্তু তারা সময় মতো রঙ ও পালটে ফেলবে। সেটা যে তারা করবে আমি সেটারও সাক্ষী।

গত টার্মের শেষ দিকে যখন বি এন পি নির্বাচন বয়কটের ঘোষণা দেয়নি এবং মানুষের মনে এই ধারণা দৃঢ় হচ্ছে বিএনপি ক্ষমতায় আসছে। বি এন পি নেতাদের কলার উচু করে ঘোরাঘুরি শুরু হয়েছে, বেশী বেশী সালাম পাচ্ছেন রাস্তা ঘাটে, মানুষ এসে হাত মিলিয়ে ধন্য হচ্ছে। সেই সময় বিডি নিউজে কর্মরত আমার একজন ঘনিষ্ঠের কল আসলো। সে বলল, তারা ফাহাম, অ্যাপোলো এবং বি এনপি পন্থী তরুণ লেখকদের নিয়ে একটা লাইভ টক শৌ করতে চায়, তাদের লেখা ছাপাতেও চায়। আমি বললাম, অ্যাপোলো তো আপনাদের ওখানে লেখে, আপনারা নিজেরাই কল করুন, আর ফাহামের সাথে আমার সেই সময় পরিচয় ছিলনা, তাই বললাম, ফাহামকে এমন কিছু বলার মতো সম্পর্ক নাই। আর আপনাদের সাথে তো ওদের দা কুমড়া সম্পর্ক, ওরা কি আসবে? যাই হোক, সে বলল, আমরা এই অবস্থার পরিবর্তন চাই; আর অ্যাপোলোর সাথে তো আপনার সম্পর্ক আছে আপনিই একটু অ্যাপোলোকে বলেন। সেই সময় আমি আরো বোকা ছিলাম তাই অ্যাপোলোকে কল করলাম। ওদের প্রস্তাবের কথা জানালাম। অ্যাপোলো কিছুক্ষন চুপ থেকে বলল, দাদা, ওদের হয়ে কেউ কিছু বললে তিনি আমার রেস্পেক্ট হারাবেন। আর খেয়াল করলে দেখবেন আমাদের লেখায়ও ইচ্ছে করে ওই মিডিয়ার কোন নিউজ শেয়ার করিনা। যেন এই শেয়ারের বদৌলতে ওদের র্যাঙ্কিং না বাড়ে। আমাকে এই রিকুয়েস্ট করবেন না প্লিজ। বিএনপির নতুন প্রজন্মের লেখকেরা সবাই একই কথা বলবে।

পরে সব রাজনৈতিক হিসাব নিকাশ উলটে পালটে গেলে এই উদ্যোগেও ভাটা পরে সম্ভবত। কিন্তু হিসাব না উল্টালে কী হতো বলা মুস্কিল। আমরা হয়তো এক আমুল পরিবর্তিত প্রতিষ্ঠান দেখতাম যারা নতুন প্রভুর সামনে তাদের চকচকে লেজ আন্দোলিত করছে।

    এই ফেইসবুক স্ট্যাটাসটার লেখক-

Pinaki Bhattacharya (29/04/2016)

পিনাকী সাহেব বিডিনিউজ২৪ সম্পর্কে যে সকল সমস্যা বা সমালোচনা তুলে ধরেছেন তা অবশ্যই একটা ভাল সংবাদ মাধ্যমের থাকা উচিত নয়। জানিনা এটা সত্য কি না। এখন আমার সন্দেহ আমার এই ব্লগটি প্রকাশিত হবে তো?

পরিশেষে বিডিনিউজ২৪ কোন নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলের নয় বরং দেশ ও জনগনের জন্য কাজ করবে এটাই আশা রাখি।