ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

আমাদের প্রিয় জন্মভূমি স্বাধীনতা অর্জন করেছে চল্লিশ বছরের ও বেশি। একটা দেশের অর্থনৈতিক, সামাজিক ও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার জন্য এই সময়টা একেবারে কম নয়। স্বাধীনতার পর থেকে আমরা আমাদের নেতাদের মুখ থেকে শুধু মিথ্যা আশ্বাসই পেয়ে আসছি। আমাদের জাতির ভাগ্যাকাশে সর্বদাই ছিল দুর্যোগের ঘনঘটা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ক্ষমতা গ্রহন করার পর জাতির উদ্দেশে বলেছিলেন যুদ্ধ বিধ্বস্ত এক দেশের রাষ্ট্রপতি হয়েছি তাই পাঁচ বছর তোমাদের কিছু দিতে পারব না। বাস্তবতার নিরিখে জাতিও সেটা মেনে নিয়ে ছিল। কিন্তু তার শাসন আমলের সীমাহীন লুটতরাজ, ব্যাংক ডাকাতি, রক্ষী বাহিনীর অত্যাচার, সংবাদ পত্রের কণ্ঠরোধ, ও বাকশাল কায়েম করার কারনে জাতি তার থেকে মুখ ফিরিয়ে নিল। তার পরেও যতটুকু হওয়ার সম্ভবনা ছিল একদল বিপথগামী সৈন্য বঙ্গবন্ধু কে নির্মম ভাবে হত্যা করার মাধ্যমে সেই সম্ভাবনাও ধুলিস্ম্যাত করে দিল। এর পর এরশাদের নয় বছরের স্বৈরাচারী যুগ, আওয়ামীলীগ ও বিএনপির দুই টার্ম করে ক্ষমতার অপব্যবহার, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দুই বছর- সব মিলে অনেক রাজার রাজ্যই আমাদের দেখার সুযোগ হয়েছে। একটা বিষয়ে সকল সরকারেরই মিল আছে তাহলো ক্ষমতার অপব্যবহার, প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার জন্য সকল রাষ্ট্রীয় যন্ত্রের ব্যাবহার ও আগামীতে কিভাবে ক্ষমতায় আসা যায় সেই প্রচেষ্টা। সত্যিকার অর্থে দেশ ও দেশের মানুষকে নিয়ে ভাবেনি কোণও সরকারই।

এবার সময় হয়েছে নতুন কিছু করার। ইদানিং রাজনীতির মাঠে তৃতীয় শক্তির কথা শোনা যাচ্ছে। আমরা ব্লগার মহলই হতে পারি সেই তৃতীয় শক্তি। অন্তত তৃতীয় শক্তির উত্থানে যদি কোণ শুভ শক্তি মাঠে নামে তবে আমরা পারি আমাদের সর্ব শক্তি দিয়ে তাদের সহায়তা করা। আসুন দেশ গড়ার কাজে আমরা সকলে ঐক্যবদ্ধ হই।