ক্যাটেগরিঃ পাঠাগার

shoili-ajkalersylhet-780x405

 

প্রগতিশীল পাঠক সংঘ ‘শৈলী’র কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের নতুন সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন ফিদা হাসান এবং সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন মাহফুজুর রহমান। ৫ জানুয়ারি শুক্রবার সিলেট নগরীর বালুচরস্থ জামিআ সিদ্দিকিয়া মিলনায়তনে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের ৫ম বার্ষিক সাধারন সভায় এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ।

শৈলী সভাপতি হেলাল হামামের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন পাঠক সংঘটির প্রধান উপদেষ্টা কবি ও গবেষক সৈয়দ মবনু। তিন পর্বে অনুষ্ঠিত কাউন্সিলের প্রথম পর্ব শুরু হয় সকাল ৯:৩০ মিনিটে। এই পর্বে শৈলীর সভ্যরা মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেন। ২য় অধিবেশনে শৈলীর ২০১৭ অর্থবছরের বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন সাধারন সম্পাদক ফিদা হাসান এবং বিগত বছরের আয় ব্যায়ের হিসাব ও ২০১৮ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করেন অর্থ-সম্পাদক সুফিয়ান আহমদ। বাজেটের উপর আলোচনা করেন, শৈলীর উপদেষ্টা মীর ফায়সাল আলী, উপদেষ্টা আরিফা সুলতানা, উপদেষ্টা মাহবুব মুহম্মদ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন হৃদয়ে ৭১ ফাউন্ডেশনের সভাপতি রুহুল আলম চৌধুরী উজ্জ্বল, শৈলীর সুধী মুফতি মনসুর আহমদ, সুধী হাফিজ মাওলানা জামিল আহমেদ চৌধুরী, সুধী মোহাম্মদ তোফায়েল আহমদ, শৈলীর শুভাকাঙ্ক্ষী শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আব্দুল কুদ্দুস নোমান, সহ সভাপতি মাজিদুল ইসলাম চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ জাফর ইকবাল, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ সভাপতি মুহাইমিনুল ইসলাম খান, বিশ্বনাথ নয়াবাজার শাখার আহ্বায়ক সাদিকুর রহমান, উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক মাহবুবুল আলম হৃদয় প্রমুখ। ৩য় অধিবেশনে ২০১৭ অর্থবছরের কার্যনির্বাহী কমিটি ঘোষণা করেন শৈলীর উপদেষ্টা এবং প্রধান নির্বাচন কমিশনার সৈয়দ মবনু।

26694472_870314496465966_959381900_n-768x463

 

শৈলীর সভ্যদের লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার ফলাফল এবং সার্বিক কর্মদক্ষতার উপর ভিত্তি করে সদস্য নির্বাচন করেন প্রধান নির্বাচক কবি সৈয়দ মবনু এবং নির্বাচন কমিশনার মীর ফায়সাল আলী, মাওলানা রেজাউল হক, হাফিজ মাওলানা জামিল আহমেদ চৌধুরী, আরিফা সুলতানা, মাহবুব মুহম্মদ, হেলাল হামাম। কমিটিতে অন্যান্য পদে নির্বাচিতরা হলেন, সহ-সভাপতি সালেহ আহমদ সাদি ও সাইয়্যিদা মারহামা, সহ সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ জাফর ইকবাল, সাংগঠনিক সম্পাদক সুফিয়ান আহমদ , সহ সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ ফাহাদ গাজী, অর্থ সম্পাদক মাজিদুল ইসলাম চৌধুরী, সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক সাইয়্যিদ মুজাদ্দিদ, শিক্ষা ও মানবসম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক জামিল আহমদ, প্রচার সম্পাদক মাহমুদুর রহমান, দপ্তর সম্পাদক মাহবুবুল আলম হৃদয়, রিপোর্টিং এন্ড ডকুমেন্টেশন সম্পাদক তানভীর অনিক, পাঠাগার সম্পাদক শামীম গাজী। সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন সৈয়দ তাজুল ইসলাম, রাজিব দাস, রুবেল রাফান, রাহা নার্গিস, শিমা আক্তার।

প্রধান অতিথি সৈয়দ মবনু তাঁর বক্তব্যে বলেন, দেশে সংগঠনের কোন অভাব নেই, কিন্তু ভালো নেতৃত্বের অভাব রয়েছে। শৈলীর মূল লক্ষ ও উদ্দেশ্য সমাজে দয়াদর্শন প্রতিষ্ঠা করা আর দয়াদর্শন সকল সৌন্দর্যকে ধারণ করে। জ্ঞান, বুদ্ধি, কর্ম, প্রেমের মাধ্যমে শৈলীর সভ্যদের উচিত নিজে সচেতন হয়ে দেশকে সচেতন করা। নিজেদের মধ্যে নেতৃত্বের বিকাশ ঘটানোর জন্য লোভ, ক্রোধ, কামকে নিবৃত্তের সাধনা করা। পরবর্তী প্রজন্ম থেকে মননশীল ব্যক্তিত্ব গঠনের চেষ্টা করে যাওয়া। শৈলীর সাথে সবাই এই শ্লোগানকে ধারণ করে পরিপূর্ণ মানুষ হয়ে উঠবে বলে আমাদের আশা, বিশ্বাস। অনুষ্ঠানের সভাপতি হেলাল হামামের বক্তব্যের মাধ্যমে ৫ম বার্ষিক সাধারণ সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। সভার শেষে মুফতি মনসুর আহমদ দোয়া পরিচালনা করেন।