ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক

২০১৫-২০১৬ অর্থবছরে বাড়িওয়ালাদের উপর ট্যাক্স আরোপের চিন্তা ভাবনা চলছে। ট্যাক্সএর আওতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। দেশের আয় অনেক টা ই বাড়বে। আর আয় বাড়লে উন্নতি অবধারিত। কিন্তু এটা কি বাড়িওয়ালা তাদের আয় থেকে ট্যাক্স দিবে বলে মনে হয়? অবশ্যই না। যা আমাদের উপর বর্তাবে।

এমনিতে মাসিক আয় এর 30-50% বাড়ি ভাড়া বাবত খরচ হয় ঢাকা শহরে। তার উপর যদি বাড়িওয়ালাদের উপর আলাদা ভাবে ট্যাক্সের আওতায় আনা হয় তা হলে আমাদের মত ভাড়াটিয়াদের অবস্থা আরও খারাপ হবে।

এখন প্রশ্ন হল টিন কাদের থাকতে হবে তা উল্লেখ আছে। খুজে খুজে তাদের বের করার দায়িত্ব জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের । কিন্তু তারা না খুজে ঢাক ঢোল পিটিয়ে জানাচ্ছে বাড়িওয়ালাদের উপর ট্যাক্স আরোপের চিন্তা ভাবনা চলছে। এটা পরিকল্পনার দূর দরশিতার অভাব মনে হয়।

একটা সহজ হিসাব করি, অধিকাংশ বাড়ির মালিক ১০-২০% ভাড়া বৃদ্ধি করে প্রতি বছরে। আমি মনে করি ৮০-৯০% ভাড়াটিয়ার মাসিক ঘর ভাড়া ২৫,০০০ এর ভিতর। এর বেশি যারা ভাড়া দেন তারা ঢাকাতে ফ্ল্যাট কেনার যোগ্যতা রাখেন বা আছে কিন্তু ভাড়া থাকেন। কারণ যরা ৪০,০০০ মাসিক ভাড়া দেন তারা ৭ বছরে (৪০,০০০*১২*৭)=৩৪,০০,০০০ মোটামুটি একটি ফ্ল্যাট কিনতে পারবেন ব্যাংক লোণে।

প্রতি বছর বাবসায়িদের নিয়ে প্রাক বাজেট আলোচনা হয়। কিন্তু আম জনতা (!) তাদের নিয়ে কে ভাবে?

বাড়িওয়ালাদের উপর ট্যাক্স আরোপ করলে ভাড়াটিয়াদের নিকট থেকে ই নেওয়া হবে।

ট্যাক্সএর আওতা বাড়ানোর আর একটি উৎস হল কোন বাক্তির একের অধিক গাড়ি থাকলে অতিরুক্ত প্রতি গাড়ির মুলের ৫% সার্ভিস ট্যাক্স থাকবে। সাথে সম্পদ কর ত আছেই।