ক্যাটেগরিঃ স্বাধিকার চেতনা

আজকের খেলা হোক বা না হোক , জেতা হোক বা হোক , গতকাল জিতে গেছি বিশাল ব্যবধানে । পশ্চিমবঙ্গ মুখ্যমন্ত্রীর শিল্পী দল কালকের বৈঠকী বাংলায় অনেক গান গেয়েছেন । অনেক জ্ঞান দিয়েছেন । আমাদের শিল্পীরাও ছিলেন সেখানে । মুখ্যমন্ত্রী মমতার স্নেহধন্য কোন এক দলকানা ইন্দ্রনীল সেনকে বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত গাওয়ার জন্য ডাকা হলে সে শুরু করে মাঝখান থেকে । কী আশ্চর্য একটি দেশের জাতীয় সংগীত কি ছেলেখেলা? কোন বি গ্রেড মুভির গরম মসলা গান যে যেভাবে খুশি গাইবে ? শিল্পী হিসাবে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকেও কি সম্মান জানাবে না রাজনৈতিক শিল্পী?
আমার জয়টা হয়েছে যখন এর প্রতিবাদে এক লাইন গাওয়ার পর পর ফুঁসে উঠেছে বাংলার শিল্পীরা, থামিয়ে দিয়েছেন সেই ইন্দ্রনীল সেনকে । আমার জয়টা সেখানেই যে সেই একই মঞ্চে বাংলার শিল্পীরাই গেয়েছেন বাংলার জাতীয় সংগীত । ২১ এর প্রথম প্রহরে এই হল সংবাদ । কবির সুমন বলেছেন, ছি:ছি: ভাবতেই কষ্ট হচ্ছে বাঙালী হিসাবে এ যেন আমারও পরাজয় । শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় বলেছেন, ওরা যেভাবে জাতীয় সংগীত গান ঠিক সেভাবেই গাওয়া উচিত ছিল ।

এই আমার জয় । আজকের ম্যাচের জয় পরাজয় নিয়ে ভাবছি না । শুধু ভাবছি দেশের এতগুলো তথাকথিত সত্য বলা সংবাদপত্রের পাতার কোন এক ছোট্ট কোণায় কেন দেখলাম না এই জয় এর কাহিনী । পাকিস্থান ভারতের ক্রিকেট জয়ের কাহিনী তো বড় পোস্টার হয়ে যেতে দেখি দৈনিকের পাতায় ।