ক্যাটেগরিঃ স্বাস্থ্য

আজকাল “খাদ্যে ভেজাল” বিষয়টা আমাদের গা সওয়া হয়ে গেছে ! বোধহয় আমরা সবাই একে নিয়তি বলে ধরে নিয়েছি! না হলে এত কিছুর পরেও এর কোন প্রতিকার হচ্ছে না কেন? কেনইবা এর বিরুদ্ধে কোন কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না?

কিছু দিন আগে “বাংলাদেশের প্যাকেট-জাত দুধে ভেজাল” প্রসঙ্গে একটা লেখা পড়েছিলাম bdnews24.com এর Online পাতায়, আমি দুঃখিত এই কারণে যে এই মুহূর্তে লেখকের নামটা আমার মনে পড়ছে না। লেখাটা’র জন্য লেখককে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

চারিদিকে শুধু শুনি খাদ্যে ভেজাল, দুধে ভেজাল, মাছে-ফলে ফরমালিন, শিশু খাদ্যে ভেজাল! আসলে কি খাচ্ছি আমরা? কি খাওয়াচ্ছি আমরা আমাদের সন্তানদের? কোন দিকে যাচ্ছি আমরা? ন্যায়-অন্যায়, ভালমন্দ, মানবিকতা, এমন কি ধর্মীয় মূল্যবোধও আমরা কি হারিয়ে ফেলেছি? দুধে’র মত একটা বিশুদ্ধ ও পবিত্র দ্রব্যে বিষ মেশাচ্ছি? লোভ আমাদের কোথায় নিয়ে যাচ্ছে?

আপনারা যারা এটা করছেন, তারা কি একবারও ভেবেছেন, আপনার বিষ মিশ্রিত দুধ আপনারই শিশু সন্তানটি খাচ্ছে? বা আপনার আদরের মেয়েটি, যে দুধ তার শিশু সন্তানকে আদর করে খাওয়াচ্ছে তাতে আপনিই বিষ মিশিয়ে রেখেছেন? একবার ভাবুন প্লিজ!

যারা আপনারা খাদ্য পণ্যে ভেজাল দিচ্ছেন তারাও কি একবারো ভেবেছেন, আপনারাও ভেজাল খাদ্য খাচ্ছেন? হয়ত আপনি দুধে ভেজাল দিয়ে অতিরিক্ত লাভ করছেন কিন্তু আপনিও ফরমালিনযুক্ত মাছ খেয়ে অসুস্থ চিকিৎস্যা করতে যেয়ে সর্বস্বান্ত হচ্ছেন? আবার যিনি মাছে ফরমালিন দিচ্ছেন, তিনিও কিন্তু দুধ-ফল খেয়ে একই পরিনতি ভোগ করছেন। বলুনতো, তাহলে লাভটা হচ্ছে কার?

মানুষ আজ লোভে দানব হয়ে উঠেছে! আমরা, আর যায় হোক এই সব দানবদের হাত থেকে সহজেই মুক্তি পাচ্ছি না! কারণ যারা এদের শাস্তি দিবে তারাই তো এখন ওদের রক্ষাকর্তা । গত ৮-১০ বছর থেকে এই ভেজাল/বিষ শুনছি কিন্তু কোন প্রতিকার কি হয়েছে? একজন (!) একাই একটু চেষ্টা করেছিলো তাকেও সুযোগ মত আমাদের স্বনামধন্য প্রশাসনের লোকজন সামান্য ছুতাই সাইজ করে কম গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় ফেলে রেখেছে!

অতএব, আসুন, দুধে, মাছ, ফল, খাদ্যে বিষ ও ভেজাল মিশ্রণকারী, তা বাজারজাত-কারী, পান বা গ্রহনকারী, চোখ বুজে সহ্যকারী, বিচারের নামে প্রহনশনকারী, ঘুষ খেয়ে অপরাধী ছেড়ে দেওয়াকারী, পাপীদের সঙ্গে নিয়ে এবং জনগণকে জিম্মি করে রাজনীতিকারী সহ আমরা সবাই, অপেক্ষা করি কোন জটিল রোগে-ভুগে মৃত্যুবরণ এবং অসুস্থ এবং নিঃস্ব আগামী প্রজম্ম-এর জন্য!