ক্যাটেগরিঃ খেলাধূলা

 

সাকিবের শাস্তি নিয়ে দেখি অনেকেই অনলাইনে অফলাইনে অনেকরকম বিরূপ মন্তব্য করছে। ক্রিকেট বোর্ডের সমালোচনা করছে। কেউ বলছে তার শাস্তি বেশি হয়ে গেছে এটা কমানো দরকার কারণ সে আমাদের সবচেয়ে ভাল ক্রিকেটার। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। আবার কেউ কেউ বলছে এই শাস্তি আরও আগেই ওর হওয়া উচিত ছিল। তাতে করে আজ সে এই বড় ধরনের শৃঙ্খলা ভঙ্গ করতে সাহস দেখাতো না। কোচের সাথে খারাপ আচরণ করতে পারতো না। ভাল বলে বলে তাকে মাথায় চড়ানো হয়েছে।

যারা তার শাস্তির বিরোধিতা করছেন তাদের বলি-

আপনারা বর্তমান বিশ্বকাপ ফুটবলের খেলাগুলো নিশ্চয় দেখছেন?  ব্রাজিলের ক্যাপ্টেনের দ্বিতীয় হলুদ কার্ডটা দেখানোর সময়ও নিশ্চয় দেখেছেন? ব্রাজিলের সমর্থকরা কিন্তু কোন ফাউল দেখেনি সিলভার আচরণে, তারপরেও রেফারি তাকে হলুদ কার্ড দেখিয়েছেন কারণ তার কাছে সেটা ফাউলই মনে হয়েছে! অপরদিকে বিশ্ব ফুটবলের পরাশক্তি ব্রাজিলের ফুটবল ফেডারেশন এই হলুদ কার্ডটা বাতিল করানোর জন্য ফিফার কাছে আবেদন করেছিল; যাতে সিলভা সেমিফাইনাল খেলতে পারে। কিন্তু ফিফা সেটা নাকচ করে দিয়ে তা বহাল রেখেছে। আমি মনে করি, এতে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। উরুগুয়ের স্ট্রাইকার সুয়ারেজের শাস্তির কথা নাইবা বললাম!

এবার আসি সাকিবের শাস্তি প্রসঙ্গে-

গত কিছুদিন ধরে যদি আমরা সাকিবের আচরণ খেয়াল করি, তাহলে দেখবো সে ড্যামকেয়ার টাইপের হয়ে গেছে। ধরাকে সরা জ্ঞান করছে। ড্রেসিংরুম থেকে বেরিয়ে এসে দর্শক পেটাচ্ছে, একবার তা স্বীকার করছে আবার পরক্ষনেই তা অস্বীকার করছে। কারো অনুমতি না নিয়ে বিদেশি টুর্নামেন্ট খেলতে যাচ্ছে। এইসবই কিন্তু একধরণের অপরাধ। ক্রিকেটে একে শৃঙ্খলা ভঙ্গ বলা হয়।

আর শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীকে অবশ্যই শাস্তি পেতে হবে, না হলে দেখবেন আমাদের ক্রিকেট একদিন আমাদের ফুটবলের মত হয়ে গেছে!

তারপর শুধুই ভারত-পাকিস্তানের দিকে তাকিয়ে হাততালি দিতে হবে; আজ যেমন দিচ্ছি ব্রাজিল–আর্জেন্টিনার দিকে তাকিয়ে রাত জেগে!

তাই আমি মনে করি- ক্রিকেটের স্বার্থেই সাকিবের শাস্তি হওয়া উচিত এবং সেটা আরও আগে হলে ভাল হত! বিসিবি’র উচিত হয়নি তাকে প্রশ্রয় দিয়ে মাথায় তোলাটা।

তবুও বলবো- লেট বেটার দ্যান নেভার!

ধন্যবাদ !!!

৮/০৭/২০১৪, রাতঃ ১১.০০