ক্যাটেগরিঃ স্যাটায়ার

বঙ্গদেশে কিছু ছাগল আছে, কথায় কথায় তাহাদের উপর বাঘ মামা’রা ঝাঁপিয়ে পড়ে নানা ছুতায়; নানা অজুহাতে। ঘটায় নানা অঘটন ছাগলের ভাষায়। অবশ্য সত্য প্রমাণের ধারও; বাঘ মামারা কখনো ধারে না। প্রয়োজনও পড়ে না! কেন পড়বে? বাঘ বলে কথা!

দুর্ভাগা ছাগলদের। কখনো তাদের বলা হয়, তুঁই আমাকে আঘাত করেছিস, নে এবার আমার নখের ঘা খা! আবার বলা হয়, তুঁই আমার জমির ঘাস খেয়েছিস, তাই এবার তুঁই থাবড়া খাঁ। এই যেমন রাঙ্গামাটিতে বলা হলো, তুঁই আমার আনারস খেয়েছিস তাই এবার তোরা ভিটেমাটি থেকেও উচ্ছেদ হ!

এসব দেখে বনের রাজা সিংহ মহাবিরক্ত হয় প্রতিবারই। ভাব থাকলেও স্বজাতি বাঘদের শাসন করতে মায়া লাগে তার। তাই চক্ষুলজ্জা ঢাকতে শাসনের ছলে তাদের পিঠ চাপড়ে দেয়; ঝেড়ে দেয় ধুলোবালি। আর সেটাকেই রাজশাসন ভেবে মৌমাছি, প্রজাপতিরা খুশিতে ফুলে ফুলে দোল খায় আর ভাবে-

পোড়া জমির নতুন গাছে-

ফুটবে ফুল, পাবো মধু-সুবাস!

খাবো সবাই, মিলেমিশে-

বাড়বে সংসার, বাঁধবো নিবাস!

অপরদিকে দুর্ভাগা ছাগলগুলো ভাবছে, এই জমিও তো হারালাম, এবার আমরা বাচ্চাকাচ্চা নিয়ে যাবো কোথায়? কোথায় হবে আমাদের নতুন স্থান? বাঁচবো কিভাবে সবাই?

১৭/১২/২০১৪